ফের বাড়ল স্বর্ণের দাম

ফের স্বর্ণের দাম বৃদ্ধির ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি-বাজুস। সংগঠনটি জানায়, দেশের বাজারে প্রতি ভরি সোনার দাম এক হাজার ৭৫০ টাকা বাড়ানো হবে। এবার আন্তর্জাতিক বাজারে দাম বাড়ার কারণে নয়, যুক্তরাষ্ট্রের মুদ্রা ডলারের তেজিভাবের কারণে সোনার দাম বাড়ানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন বাজুসের সভাপতি এনামুল হক খান দোলন।

তিনি বলেন, কোভিড-১৯ মহামারীর মধ্যে বেশ কিছু দিন ধরে আন্তর্জাতিক বাজারে স্বর্ণের দাম খুব উঠানামা করছিল। কিন্তু গত দুই সপ্তাহ ধরে প্রায় একই জায়গায়ই রয়েছে। গত ২১ আগস্ট যখন দেশে সোনার দাম বেড়েছিল, তখন বিশ্ব বাজারে প্রতি আউন্সের (৩১.১০৩৪৭৬৮ গ্রাম) দাম ছিল ১৯৪০ ডলার। এখনও দাম প্রায় একই (১৯৪৩ ডলার) রয়েছে। কোভিড-১৮ মহামারীর কারণে বিশ্ব অর্থনীতি স্থবির হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ডলারের দামও কমে গিয়েছিল। এখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে শুরু করায় ডলারও শক্তিশালী হচ্ছে। আমাদের কার্ব মার্কেটে ডলারের দাম বেড়ে গেছে। গোল্ড আমদানি করতে এখন আমাদের বেশি টাকা লাগছে। সে কারণেই দাম বাড়ানো হয়েছে। গতকাল থেকে প্রতি ভরি (১১.৬৬৪ গ্রাম) সবচেয়ে ভালো মানের (২২ ক্যারেট) সোনা ৭৪ হাজার ৮ টাকায় বিক্রি হয়েছে। ২১ ক্যারেটের সোনা বিক্রি হবে ৭০ হাজার ৮৫৯ টাকায়। ১৮ ক্যারেটের বিক্রি হবে ৬২ হাজার ১১১ টাকায়। আর সনাতন পদ্ধতির সোনা বিক্রি হবে ৫১ হাজার ৭৮৮ টাকায়।

গত বুধবার পর্যন্ত সবচেয়ে ভালো মানের প্রতি ভরি সোনা ৭২ হাজার ২৫৮ টাকায় বিক্রি হয়। ২১ ক্যারেটের ৬৯ হাজার ১০৯ টাকায়, ১৮ ক্যারেটের ৬০ হাজার ৩১২ টাকায় বিক্রি হচ্ছিল। আর সনাতন পদ্ধতির সোনা বিক্রি হয় ৫০ হাজার ৩৮ টাকায়। তবে সোনার দাম বাড়লেও রুপা আগের মতোই ৯৩৩ টাকা ভরিতে বিক্রি হবে।

শুক্রবার, ১১ সেপ্টেম্বর ২০২০ , ২১ মহররম ১৪৪২, ২৩ ভাদ্র ১৪২৭

ফের বাড়ল স্বর্ণের দাম

image

ফের স্বর্ণের দাম বৃদ্ধির ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি-বাজুস। সংগঠনটি জানায়, দেশের বাজারে প্রতি ভরি সোনার দাম এক হাজার ৭৫০ টাকা বাড়ানো হবে। এবার আন্তর্জাতিক বাজারে দাম বাড়ার কারণে নয়, যুক্তরাষ্ট্রের মুদ্রা ডলারের তেজিভাবের কারণে সোনার দাম বাড়ানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন বাজুসের সভাপতি এনামুল হক খান দোলন।

তিনি বলেন, কোভিড-১৯ মহামারীর মধ্যে বেশ কিছু দিন ধরে আন্তর্জাতিক বাজারে স্বর্ণের দাম খুব উঠানামা করছিল। কিন্তু গত দুই সপ্তাহ ধরে প্রায় একই জায়গায়ই রয়েছে। গত ২১ আগস্ট যখন দেশে সোনার দাম বেড়েছিল, তখন বিশ্ব বাজারে প্রতি আউন্সের (৩১.১০৩৪৭৬৮ গ্রাম) দাম ছিল ১৯৪০ ডলার। এখনও দাম প্রায় একই (১৯৪৩ ডলার) রয়েছে। কোভিড-১৮ মহামারীর কারণে বিশ্ব অর্থনীতি স্থবির হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ডলারের দামও কমে গিয়েছিল। এখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে শুরু করায় ডলারও শক্তিশালী হচ্ছে। আমাদের কার্ব মার্কেটে ডলারের দাম বেড়ে গেছে। গোল্ড আমদানি করতে এখন আমাদের বেশি টাকা লাগছে। সে কারণেই দাম বাড়ানো হয়েছে। গতকাল থেকে প্রতি ভরি (১১.৬৬৪ গ্রাম) সবচেয়ে ভালো মানের (২২ ক্যারেট) সোনা ৭৪ হাজার ৮ টাকায় বিক্রি হয়েছে। ২১ ক্যারেটের সোনা বিক্রি হবে ৭০ হাজার ৮৫৯ টাকায়। ১৮ ক্যারেটের বিক্রি হবে ৬২ হাজার ১১১ টাকায়। আর সনাতন পদ্ধতির সোনা বিক্রি হবে ৫১ হাজার ৭৮৮ টাকায়।

গত বুধবার পর্যন্ত সবচেয়ে ভালো মানের প্রতি ভরি সোনা ৭২ হাজার ২৫৮ টাকায় বিক্রি হয়। ২১ ক্যারেটের ৬৯ হাজার ১০৯ টাকায়, ১৮ ক্যারেটের ৬০ হাজার ৩১২ টাকায় বিক্রি হচ্ছিল। আর সনাতন পদ্ধতির সোনা বিক্রি হয় ৫০ হাজার ৩৮ টাকায়। তবে সোনার দাম বাড়লেও রুপা আগের মতোই ৯৩৩ টাকা ভরিতে বিক্রি হবে।