ফেরিতে বেশি ট্রাক উঠানোর দাবি নিয়ে

শিবচরের কাঁঠালবাড়ী ঘাটে ট্রাকশ্রমিক ও ফেরি স্টাফদের সংঘর্ষ

আহত ৪

ফেরিতে বেশি ট্রাক উঠানোর দাবি নিয়ে মাদারীপুরের শিবচরের কাঁঠালবাড়ি ঘাটে ট্রাক শ্রমিক ও ফেরি স্টাফদের মধ্যে ব্যাপক সংর্ঘষের ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করলেও সংর্ঘষের ঘটনায় অন্তত ৪ জন আহত হয়েছে। এদিকে আজো নাব্যতা সংকটের কারণে মাত্র ৪/৫টি ফেরি কোন রকমে চলছে। বন্ধ রয়েছে রো রো ও ডাম্ব ফেরি। ঘাটে আটকা রয়েছে কয়েক শ’ ট্রাক। বিআইডব্লিউটিসি, বিআইডব্লিউটিএ’সহ একাধিক সূত্রে জানা যায়, নাব্যতা সংকটে ১০ দিন ফেরি চলাচল বন্ধের পর গত ২দিন ধরে দিনের বেলা কোনমতে ৪/৫টি কেটাইপ ফেরি চলছে। বন্ধ রয়েছে রো রো ও ডাম্ব ফেরি। গতকাল দুপুরে কেটাইপ ফেরি কিশোরী শিমুলিয়া থেকে ৩টি ট্রাকসহ যানবাহন বোঝাই করে কাঁঠালবাড়ি ৩নং ঘাটে পৌঁছে। ফেরিটি আনলোড হওয়ার পর দীর্ঘদিন ধরে ঘাটে আটকা ট্রাক শ্রমিকরা ৩টি ট্রাক পার করার দাবি জানায়। কিন্তু ফেরিটির শুকানি জাকির হোসেন মাত্র ১টি ট্রাক নিতে চায়। এনিয়ে উভয় পক্ষের কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে সংর্ঘষ বাধে। সংর্ঘষের শুরুতে ফেরির স্টাফরা বেপরোয়া আচরণ করলে ব্যাপক সংর্ঘষ বেধে যায়। সংর্ঘষে উভয় পক্ষ একে অন্যের উপর লাঠিসোটা নিয়ে হামলা চালায়। ইটপাটকেল ছুঁড়ে। এতে উভয় পক্ষের অন্তত ৪ জন আহত হয়। খবর পেয়ে ঘাটে কর্তব্যরত জেলা পুলিশ ও শিবচর থানা পুলিশ পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়। পরে উভয় পক্ষকে নিয়ে সমঝোতা বৈঠক করে পুলিশ। আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

ট্রাক চালক জলিল মিয়া বলেন, ফেরি বন্ধ থাকায় আমরা আজ ১১/১২ ধরে ঘাটে আটকে থেকে মানবেতর জীবন যাপন করছি। এখন কয়েকটি ফেরি চালু হয়েছে। শিমুলীয়া থেকে একটি ফেরিতে ৩টি ট্রাক পার করা হচ্ছে। কিন্তু কাঁঠালবাড়ি ঘাট থেকে মাত্র একটি ট্রাক কর্তৃপক্ষ পার করতে চাইলে আমরা ৩টি ট্রাক পারাপারের দাবি জানাই। এতে তারা আমাদের ওপর হামলা করেছে। কিশোরী ফেরির শুকানি জাকির হোসেন বলেন, নদীতে নাব্যতা সংকটে ধারণ ক্ষমতার কম যানবাহন নিয়ে অল্প কয়েকটি ফেরি চলাচল করছে। কিশোরী ফেরিটি শিমুলীয়া থেকে ২টি ট্রাক পার করেছে তাই কাঁঠালবাড়ি ঘাট থেকে আমরাও ২টি ট্রাক উঠাতে বলি। কিন্তু ট্রাক চালকরা আরও বেশি ট্রাক উঠাতে বলে। আমি এটা না মানায় ট্রাক চালকরা আমার ওপর হামলা চালায়। ঘাটে কর্তব্যরত পুলিশের পরিদর্শক মো. মনিরুল ইসলাম বলেন, ফেরিতে ট্রাক বেশি উঠানো নিয়ে সংর্ঘষ বাধে। ওপার থেকে ৩টি ট্রাক নিয়ে পার হয় ফেরিটি। এপার থেকেও ট্রাক শ্রমিকরা ৩টি ট্রাক পার করার দাবি করে। ফেরি স্টাফদের দাবি নদীতে নাব্যতা সংকট থাকায় বেশি ট্রাক বহন করা যাচ্ছে না। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

সোমবার, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ , ২৪ মহররম ১৪৪২, ২৬ ভাদ্র ১৪২৭

ফেরিতে বেশি ট্রাক উঠানোর দাবি নিয়ে

শিবচরের কাঁঠালবাড়ী ঘাটে ট্রাকশ্রমিক ও ফেরি স্টাফদের সংঘর্ষ

আহত ৪
image

ফেরিতে বেশি ট্রাক উঠানোর দাবি নিয়ে মাদারীপুরের শিবচরের কাঁঠালবাড়ি ঘাটে ট্রাক শ্রমিক ও ফেরি স্টাফদের মধ্যে ব্যাপক সংর্ঘষের ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করলেও সংর্ঘষের ঘটনায় অন্তত ৪ জন আহত হয়েছে। এদিকে আজো নাব্যতা সংকটের কারণে মাত্র ৪/৫টি ফেরি কোন রকমে চলছে। বন্ধ রয়েছে রো রো ও ডাম্ব ফেরি। ঘাটে আটকা রয়েছে কয়েক শ’ ট্রাক। বিআইডব্লিউটিসি, বিআইডব্লিউটিএ’সহ একাধিক সূত্রে জানা যায়, নাব্যতা সংকটে ১০ দিন ফেরি চলাচল বন্ধের পর গত ২দিন ধরে দিনের বেলা কোনমতে ৪/৫টি কেটাইপ ফেরি চলছে। বন্ধ রয়েছে রো রো ও ডাম্ব ফেরি। গতকাল দুপুরে কেটাইপ ফেরি কিশোরী শিমুলিয়া থেকে ৩টি ট্রাকসহ যানবাহন বোঝাই করে কাঁঠালবাড়ি ৩নং ঘাটে পৌঁছে। ফেরিটি আনলোড হওয়ার পর দীর্ঘদিন ধরে ঘাটে আটকা ট্রাক শ্রমিকরা ৩টি ট্রাক পার করার দাবি জানায়। কিন্তু ফেরিটির শুকানি জাকির হোসেন মাত্র ১টি ট্রাক নিতে চায়। এনিয়ে উভয় পক্ষের কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে সংর্ঘষ বাধে। সংর্ঘষের শুরুতে ফেরির স্টাফরা বেপরোয়া আচরণ করলে ব্যাপক সংর্ঘষ বেধে যায়। সংর্ঘষে উভয় পক্ষ একে অন্যের উপর লাঠিসোটা নিয়ে হামলা চালায়। ইটপাটকেল ছুঁড়ে। এতে উভয় পক্ষের অন্তত ৪ জন আহত হয়। খবর পেয়ে ঘাটে কর্তব্যরত জেলা পুলিশ ও শিবচর থানা পুলিশ পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়। পরে উভয় পক্ষকে নিয়ে সমঝোতা বৈঠক করে পুলিশ। আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

ট্রাক চালক জলিল মিয়া বলেন, ফেরি বন্ধ থাকায় আমরা আজ ১১/১২ ধরে ঘাটে আটকে থেকে মানবেতর জীবন যাপন করছি। এখন কয়েকটি ফেরি চালু হয়েছে। শিমুলীয়া থেকে একটি ফেরিতে ৩টি ট্রাক পার করা হচ্ছে। কিন্তু কাঁঠালবাড়ি ঘাট থেকে মাত্র একটি ট্রাক কর্তৃপক্ষ পার করতে চাইলে আমরা ৩টি ট্রাক পারাপারের দাবি জানাই। এতে তারা আমাদের ওপর হামলা করেছে। কিশোরী ফেরির শুকানি জাকির হোসেন বলেন, নদীতে নাব্যতা সংকটে ধারণ ক্ষমতার কম যানবাহন নিয়ে অল্প কয়েকটি ফেরি চলাচল করছে। কিশোরী ফেরিটি শিমুলীয়া থেকে ২টি ট্রাক পার করেছে তাই কাঁঠালবাড়ি ঘাট থেকে আমরাও ২টি ট্রাক উঠাতে বলি। কিন্তু ট্রাক চালকরা আরও বেশি ট্রাক উঠাতে বলে। আমি এটা না মানায় ট্রাক চালকরা আমার ওপর হামলা চালায়। ঘাটে কর্তব্যরত পুলিশের পরিদর্শক মো. মনিরুল ইসলাম বলেন, ফেরিতে ট্রাক বেশি উঠানো নিয়ে সংর্ঘষ বাধে। ওপার থেকে ৩টি ট্রাক নিয়ে পার হয় ফেরিটি। এপার থেকেও ট্রাক শ্রমিকরা ৩টি ট্রাক পার করার দাবি করে। ফেরি স্টাফদের দাবি নদীতে নাব্যতা সংকট থাকায় বেশি ট্রাক বহন করা যাচ্ছে না। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।