নারায়ণগঞ্জ

নুরুল ইসলাম স্মৃতি পাঠাগারের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী অনুষ্ঠিত

শিশু-কিশোরদের মেধা ও মননের বিকাশের উদ্দেশ্যে নিজ উদ্যোগে সদর উপজেলার তল্লা এলাকায় নুরুল ইসলাম স্মৃতি পাঠাগার প্রতিষ্ঠা করেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের যুগ্ম কর কমিশনার মর্তুজা শরিফুল ইসলাম। ‘কার্যকর ভালো মানুষের সন্ধানে’- এই স্লোগানকে সামনে রেখে প্রতিষ্ঠিত পাঠাগারটির দুই বছরপূর্তি অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বিকেলে পাঠাগার প্রাঙ্গণে শিশু-কিশোরদের অংশগ্রহণে গান, নাচ, কবিতা আবৃত্তির মধ্য দিয়ে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান ও মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাড. মাহমুদা মালা। আরও উপস্থিত ছিলেন নুরুল ইসলাম স্মৃতি পাঠাগারের প্রধান উপদেষ্টা সালমা বেগম, ঘিওর সরকারি কলেজের সহকারী অধ্যাপক মশিউর রহমান, বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হাসান রুমি, পাঠাগারের পরিচালক কাজী জান্নাত, গলাচিপা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অজিত কুমার। অনুষ্ঠানের সঞ্চালনা করেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের যুগ্ম কর কমিশনার ও নুরুল ইসলাম স্মৃতি পাঠাগারের প্রতিষ্ঠাতা মর্তুজা শরিফুল ইসলাম।

বক্তারা উপস্থিত শিশু-কিশোরদের উদ্দেশে বলেন, কেবল স্বপ্ন দেখলে চলবে না। স্বপ্ন বাস্তবায়নে পরিশ্রম করতে হবে। মনকে আকাশের মতো সুবিশাল করতে হবে। মানুষের জন্য আগামীর বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে সকলকে এগিয়ে যেতে হবে। এর জন্য প্রচুর পড়াশোনা করতে হবে। ভালো কাজের সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকতে হবে। যারা সমাজে ভূমিকা রাখতে পারে তেমন ভালো মানুষের প্রয়োজন আছে। যারা সত্যকে সত্য ও মিথ্যাকে মিথ্যা বলতে পারবে। প্রগতির পক্ষে থাকতে হবে।

পাঠাগারের কার্যক্রমের প্রশংসা করে একক উদ্যোগে এমন একটি পাঠাগার প্রতিষ্ঠা ও তার কার্যক্রম পরিচালনার জন্য প্রতিষ্ঠা গোলাম মর্তুজা শরিফুল ইসলামের প্রতি সাধুবাদ জানান উপস্থিত অতিথিরা। তারা বলেন, এই পাঠাগার আলো ছড়াচ্ছে। সরকারি চাকুরির নানা ব্যস্ততা ছাপিয়ে অবসর সময়ে শিশু-কিশোরদের মন ও মননের বিকাশে শরিফুল ইসলামের এমন উদ্যোগ প্রশংসার দাবিদার।

নুরুল ইসলাম স্মৃতি পাঠাগারের পাশাপাশি অনুষ্ঠানের আয়োজক তালিকায় ছিল পরিচ্ছন্ন বাংলাদেশ নামে একটি সংগঠন। এই সংগঠনেরও প্রতিষ্ঠা মর্তুজা শরিফুল ইসলাম। এ বিষয়ে তিনি বলেন, কার্যকর ভালো মানুষের সন্ধানে কাজ করছে নুরুল ইসলাম স্মৃতি পাঠাগার। ২০১৯ সালের জানুয়ারি শুরু করা এই পাঠাগারে প্রতি শুক্রবার সাংস্কৃতিক আয়োজন করা। এতে শিশু-কিশোর শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করে। একই সঙ্গে সবুজ বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে গঠিত পরিচ্ছন্ন বাংলাদেশের পথ চলা।

অনুষ্ঠানে শিশু-কিশোররা গান, কবিতা আবৃত্তি ও নাচ পরিবেশন করে। সাংস্কৃতিক আয়োজনে অংশগ্রহণকারী সবাইকে উপহার হিসেবে বই প্রদান করা হয়।

শনিবার, ০৯ জানুয়ারী ২০২১ , ২৫ পৌষ ১৪২৭, ২৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪২

নারায়ণগঞ্জ

নুরুল ইসলাম স্মৃতি পাঠাগারের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী অনুষ্ঠিত

image

শিশু-কিশোরদের মেধা ও মননের বিকাশের উদ্দেশ্যে নিজ উদ্যোগে সদর উপজেলার তল্লা এলাকায় নুরুল ইসলাম স্মৃতি পাঠাগার প্রতিষ্ঠা করেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের যুগ্ম কর কমিশনার মর্তুজা শরিফুল ইসলাম। ‘কার্যকর ভালো মানুষের সন্ধানে’- এই স্লোগানকে সামনে রেখে প্রতিষ্ঠিত পাঠাগারটির দুই বছরপূর্তি অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বিকেলে পাঠাগার প্রাঙ্গণে শিশু-কিশোরদের অংশগ্রহণে গান, নাচ, কবিতা আবৃত্তির মধ্য দিয়ে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান ও মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাড. মাহমুদা মালা। আরও উপস্থিত ছিলেন নুরুল ইসলাম স্মৃতি পাঠাগারের প্রধান উপদেষ্টা সালমা বেগম, ঘিওর সরকারি কলেজের সহকারী অধ্যাপক মশিউর রহমান, বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হাসান রুমি, পাঠাগারের পরিচালক কাজী জান্নাত, গলাচিপা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অজিত কুমার। অনুষ্ঠানের সঞ্চালনা করেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের যুগ্ম কর কমিশনার ও নুরুল ইসলাম স্মৃতি পাঠাগারের প্রতিষ্ঠাতা মর্তুজা শরিফুল ইসলাম।

বক্তারা উপস্থিত শিশু-কিশোরদের উদ্দেশে বলেন, কেবল স্বপ্ন দেখলে চলবে না। স্বপ্ন বাস্তবায়নে পরিশ্রম করতে হবে। মনকে আকাশের মতো সুবিশাল করতে হবে। মানুষের জন্য আগামীর বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে সকলকে এগিয়ে যেতে হবে। এর জন্য প্রচুর পড়াশোনা করতে হবে। ভালো কাজের সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকতে হবে। যারা সমাজে ভূমিকা রাখতে পারে তেমন ভালো মানুষের প্রয়োজন আছে। যারা সত্যকে সত্য ও মিথ্যাকে মিথ্যা বলতে পারবে। প্রগতির পক্ষে থাকতে হবে।

পাঠাগারের কার্যক্রমের প্রশংসা করে একক উদ্যোগে এমন একটি পাঠাগার প্রতিষ্ঠা ও তার কার্যক্রম পরিচালনার জন্য প্রতিষ্ঠা গোলাম মর্তুজা শরিফুল ইসলামের প্রতি সাধুবাদ জানান উপস্থিত অতিথিরা। তারা বলেন, এই পাঠাগার আলো ছড়াচ্ছে। সরকারি চাকুরির নানা ব্যস্ততা ছাপিয়ে অবসর সময়ে শিশু-কিশোরদের মন ও মননের বিকাশে শরিফুল ইসলামের এমন উদ্যোগ প্রশংসার দাবিদার।

নুরুল ইসলাম স্মৃতি পাঠাগারের পাশাপাশি অনুষ্ঠানের আয়োজক তালিকায় ছিল পরিচ্ছন্ন বাংলাদেশ নামে একটি সংগঠন। এই সংগঠনেরও প্রতিষ্ঠা মর্তুজা শরিফুল ইসলাম। এ বিষয়ে তিনি বলেন, কার্যকর ভালো মানুষের সন্ধানে কাজ করছে নুরুল ইসলাম স্মৃতি পাঠাগার। ২০১৯ সালের জানুয়ারি শুরু করা এই পাঠাগারে প্রতি শুক্রবার সাংস্কৃতিক আয়োজন করা। এতে শিশু-কিশোর শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করে। একই সঙ্গে সবুজ বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে গঠিত পরিচ্ছন্ন বাংলাদেশের পথ চলা।

অনুষ্ঠানে শিশু-কিশোররা গান, কবিতা আবৃত্তি ও নাচ পরিবেশন করে। সাংস্কৃতিক আয়োজনে অংশগ্রহণকারী সবাইকে উপহার হিসেবে বই প্রদান করা হয়।