গোপালগঞ্জে

২ ইটভাটা উচ্ছেদ ৩টিতে ৫ লাখ টাকা জরিমানা

গোপালগঞ্জে ২টি অবৈধ ইটভাটা ভেঙে গুঁড়িয়ে দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় আরও ৩ অবৈধ ইটভাটাকে ৫ লাখ টাকা জরিমানা করে ভাটার কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়া হযেছে। গত বৃহস্পতিবার দুপুর ১টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত গোপালগঞ্জ জেলা প্রশাসন, উপজেলা প্রশাসন, আর্মড ফোর্স ব্যাটেলিয়ন (আনসার) ও গোপালগঞ্জ পরিবেশ অধিদপ্তরের সমন্বয়ে গঠিত টিম সদর উপজেলার পুকুরিয়া গ্রামের মেসার্স মধুমতি ব্রিকস, মেসার্স এসবিআই ব্রিকস, মেসার্স আরবিআর ব্রিকস, মেসার্স স্টার ব্রিকস ও মেসার্স কেএসবি ব্রিকসের বিরুদ্ধে উচ্ছেদ অভিযান ও মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে।

গোপালগঞ্জ পরিবেশ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো. আসাদুজ্জামান জানান, ইট প্রস্তুত ও ভাটা স্থাপন নিয়ন্ত্রণ ও সংশোধন আইনের ২০১৯ এর ৪ ধারা লঙ্ঘনের দায়ে এবং জেলা প্রশাসক কর্তৃক ইট পোড়ানোর লাইসেন্স ব্যতিত ইটভাটা স্থাপন ও ইট প্রস্তুত করার অপরাধে মেসার্স স্টার ব্রিকস ও মেসার্স কেএসবি ব্রিকসের চিমনী ও ভাটার কিলœ ভেঙে গুঁড়িয়ে দেয়া হয়। এছাড়া মেসার্স মধুমতি ব্রিকসকে ১ লাখ টাকা জরিমানা ও মেসার্স এসবিআই ব্রিকস এবং মেসার্স আরবিআর ব্রিকসকে দুই লাখ টাকা করে মোট ৫ লাখ টাকা জরিমানা করে তাৎক্ষণিকভাবে আদায় করে ভাটার কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়া হয়।

ওই কর্মকর্তা আরও জানান, ইটভাটায় উচ্ছেদ অভিযান ও মেবাইল কোর্ট পরিচালনায় প্রসিকিউটর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন গোপালগঞ্জ পরিবেশ অধিদপ্তরের পরিদর্শক তুহিন আলম।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক ও গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. মনোয়ার হোসেন বলেন, গোপালগঞ্জের পরিবেশ রক্ষায় ইটভাটায় উচ্ছেদ অভিযান অব্যাহত থাকবে। আমরা অবৈধ ২টি ইটভাটা উচ্ছেদ করেছি। ৩টিকে জরিমানা করে বন্ধ করে দিয়েছি। পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র ও জেলা প্রশাসনের লাইসেসন্স ছাড়া কোন ভাটাকেই ব্যবসা করতে দেয়া হবে না বলে আমরা সাফ জানিয়ে দিয়েছি।

শনিবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২১ , ১৬ মাঘ ১৪২৭, ১৬ জমাদিউস সানি ১৪৪২

গোপালগঞ্জে

২ ইটভাটা উচ্ছেদ ৩টিতে ৫ লাখ টাকা জরিমানা

image

গোপালগঞ্জে ২টি অবৈধ ইটভাটা ভেঙে গুঁড়িয়ে দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় আরও ৩ অবৈধ ইটভাটাকে ৫ লাখ টাকা জরিমানা করে ভাটার কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়া হযেছে। গত বৃহস্পতিবার দুপুর ১টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত গোপালগঞ্জ জেলা প্রশাসন, উপজেলা প্রশাসন, আর্মড ফোর্স ব্যাটেলিয়ন (আনসার) ও গোপালগঞ্জ পরিবেশ অধিদপ্তরের সমন্বয়ে গঠিত টিম সদর উপজেলার পুকুরিয়া গ্রামের মেসার্স মধুমতি ব্রিকস, মেসার্স এসবিআই ব্রিকস, মেসার্স আরবিআর ব্রিকস, মেসার্স স্টার ব্রিকস ও মেসার্স কেএসবি ব্রিকসের বিরুদ্ধে উচ্ছেদ অভিযান ও মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে।

গোপালগঞ্জ পরিবেশ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো. আসাদুজ্জামান জানান, ইট প্রস্তুত ও ভাটা স্থাপন নিয়ন্ত্রণ ও সংশোধন আইনের ২০১৯ এর ৪ ধারা লঙ্ঘনের দায়ে এবং জেলা প্রশাসক কর্তৃক ইট পোড়ানোর লাইসেন্স ব্যতিত ইটভাটা স্থাপন ও ইট প্রস্তুত করার অপরাধে মেসার্স স্টার ব্রিকস ও মেসার্স কেএসবি ব্রিকসের চিমনী ও ভাটার কিলœ ভেঙে গুঁড়িয়ে দেয়া হয়। এছাড়া মেসার্স মধুমতি ব্রিকসকে ১ লাখ টাকা জরিমানা ও মেসার্স এসবিআই ব্রিকস এবং মেসার্স আরবিআর ব্রিকসকে দুই লাখ টাকা করে মোট ৫ লাখ টাকা জরিমানা করে তাৎক্ষণিকভাবে আদায় করে ভাটার কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়া হয়।

ওই কর্মকর্তা আরও জানান, ইটভাটায় উচ্ছেদ অভিযান ও মেবাইল কোর্ট পরিচালনায় প্রসিকিউটর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন গোপালগঞ্জ পরিবেশ অধিদপ্তরের পরিদর্শক তুহিন আলম।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক ও গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. মনোয়ার হোসেন বলেন, গোপালগঞ্জের পরিবেশ রক্ষায় ইটভাটায় উচ্ছেদ অভিযান অব্যাহত থাকবে। আমরা অবৈধ ২টি ইটভাটা উচ্ছেদ করেছি। ৩টিকে জরিমানা করে বন্ধ করে দিয়েছি। পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র ও জেলা প্রশাসনের লাইসেসন্স ছাড়া কোন ভাটাকেই ব্যবসা করতে দেয়া হবে না বলে আমরা সাফ জানিয়ে দিয়েছি।