ব্যক্তিগত পোর্টফোলিও ম্যানেজ করার দায়িত্ব কমিশনের না : শিবলী

পুঁজিবাজারের বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগ জ্ঞান অর্জনের ওপর গুরুত্বারোপ করে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম বলেছেন, ব্যক্তিগত পোর্টফোলিও ম্যানেজ করার দায়িত্ব কমিশনের না।

গতকাল রাজধানীর জীবন বীমা টাওয়ারে বাংলাদেশ একাডেমি ফর সিকিউরিটিজ মার্কেটসের (বিএএসএম) নতুন ক্যাম্পাসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। বিএসইসি চেয়ারম্যান বলেন, ‘আমরা খেয়াল করেছি- বিভিন্ন সময় না জেনে, না বুঝে এবং ভুল সিদ্ধান্তের মাধ্যমে বিনিয়োগকারীরা পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ করেন। কিন্তু পরবর্তীতে এই ভুলের কারণে তারা নিয়ন্ত্রক সংস্থাসহ স্টক এক্সচেঞ্জকে দায়ী করে। কিন্তু বিএসইসি বা স্টক এক্সচেঞ্জ কারও পোর্টফোলিও ম্যানেজ করে না। কে কোনটা কিনবে বা বিক্রি করবে, এটা আমরা নির্ধারণ করি না’।

তিনি বলেন, ‘নিয়ন্ত্রক সংস্থার মনিটরিং বা সুপারভিশনে কিছু ভুল থাকতে পারে। কোন ধরনের ম্যানুপুলেশন বা অপরাধ সংঘটিত হলে, তার দায়িত্ব আমাদের। কিন্তু কারও ব্যক্তিগত পোর্টফোলিও ম্যানেজ করার দায়িত্ব আমাদের না। আমরা চাই একজন বিনিয়োগকারী তার সঠিক জ্ঞানের মাধ্যমে বিনিয়োগ করবে। যার মাধ্যমে সে তার কষ্টের অর্থের ভালো রিটার্ন অর্জন করবে। আর বিনিয়োগকারীদের এই জ্ঞান অর্জনের জন্য আমরা শেয়ারবাজার নিয়ে ট্রেনিং প্রোগ্রাম করি।’

এ সময় ডিলারদের শিক্ষার দরকার আছে বলেও মন্তব্য করেন বিএসইসির চেয়ারম্যান। তিনি বলেন, ‘একটা বেকার ছেলেকে এনে ডিলার হিসেবে চাকরি দিয়ে দিলেই হবে না। ডিলারদের ট্রেনিং দিতে হবে। তা না হলে সে তো ঠিকমতো কাজ করতে পারবে না। এছাড়া তার ভুলের কারণে বাজার ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। সে না বুঝে বিনিয়োগকারীদের এমন একটা জিনিস বলল, যা মুহূর্তেই বাজারে প্যানিক তৈরি করতে পারে। তাই ডিলারদেরও শিক্ষা অর্জন করতে হবে।’

একাডেমি ফর সিকিউরিটিজ মার্কেটের ট্রেনিংয়ের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘এখানে স্থায়ী নিয়োগের পাশাপাশি অভিজ্ঞদের এনে ট্রেনিং দেয়া হবে। প্রথম দফায় আমরা অথরাইজড ডিলারদের ট্রেনিং দেয়ার প্রোগ্রাম হাতে নিয়েছি।

তিনি আরও বলেন, ‘এক বছর আগে ক্যাপিটাল মার্কেটের যে লক্ষ্য নিয়ে দায়িত্ব গ্রহণ করেছিলাম, তা গুটি গুটি পায়ে এগিয়ে চলেছে। তবে মূল লক্ষ্যের কোনটাই অর্জন করতে পারিনি, তবে আমরা চেষ্টা করছি। সামনের দিনগুলোতে আমাদের লক্ষ্য প্রস্তুত করা আছে, আমরা সেদিকেই এগিয়ে যাচ্ছি।’

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বিএসইসির কমিশনার অধ্যাপক ড. শেখ সামসুদ্দিন আহমেদ, ড. মিজানুর রহমান, আবদুল হালিম প্রমুখ।

মঙ্গলবার, ০১ জুন ২০২১ , ১৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮ ১৯ শাওয়াল ১৪৪২

ব্যক্তিগত পোর্টফোলিও ম্যানেজ করার দায়িত্ব কমিশনের না : শিবলী

পুঁজিবাজারের বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগ জ্ঞান অর্জনের ওপর গুরুত্বারোপ করে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম বলেছেন, ব্যক্তিগত পোর্টফোলিও ম্যানেজ করার দায়িত্ব কমিশনের না।

গতকাল রাজধানীর জীবন বীমা টাওয়ারে বাংলাদেশ একাডেমি ফর সিকিউরিটিজ মার্কেটসের (বিএএসএম) নতুন ক্যাম্পাসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। বিএসইসি চেয়ারম্যান বলেন, ‘আমরা খেয়াল করেছি- বিভিন্ন সময় না জেনে, না বুঝে এবং ভুল সিদ্ধান্তের মাধ্যমে বিনিয়োগকারীরা পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ করেন। কিন্তু পরবর্তীতে এই ভুলের কারণে তারা নিয়ন্ত্রক সংস্থাসহ স্টক এক্সচেঞ্জকে দায়ী করে। কিন্তু বিএসইসি বা স্টক এক্সচেঞ্জ কারও পোর্টফোলিও ম্যানেজ করে না। কে কোনটা কিনবে বা বিক্রি করবে, এটা আমরা নির্ধারণ করি না’।

তিনি বলেন, ‘নিয়ন্ত্রক সংস্থার মনিটরিং বা সুপারভিশনে কিছু ভুল থাকতে পারে। কোন ধরনের ম্যানুপুলেশন বা অপরাধ সংঘটিত হলে, তার দায়িত্ব আমাদের। কিন্তু কারও ব্যক্তিগত পোর্টফোলিও ম্যানেজ করার দায়িত্ব আমাদের না। আমরা চাই একজন বিনিয়োগকারী তার সঠিক জ্ঞানের মাধ্যমে বিনিয়োগ করবে। যার মাধ্যমে সে তার কষ্টের অর্থের ভালো রিটার্ন অর্জন করবে। আর বিনিয়োগকারীদের এই জ্ঞান অর্জনের জন্য আমরা শেয়ারবাজার নিয়ে ট্রেনিং প্রোগ্রাম করি।’

এ সময় ডিলারদের শিক্ষার দরকার আছে বলেও মন্তব্য করেন বিএসইসির চেয়ারম্যান। তিনি বলেন, ‘একটা বেকার ছেলেকে এনে ডিলার হিসেবে চাকরি দিয়ে দিলেই হবে না। ডিলারদের ট্রেনিং দিতে হবে। তা না হলে সে তো ঠিকমতো কাজ করতে পারবে না। এছাড়া তার ভুলের কারণে বাজার ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। সে না বুঝে বিনিয়োগকারীদের এমন একটা জিনিস বলল, যা মুহূর্তেই বাজারে প্যানিক তৈরি করতে পারে। তাই ডিলারদেরও শিক্ষা অর্জন করতে হবে।’

একাডেমি ফর সিকিউরিটিজ মার্কেটের ট্রেনিংয়ের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘এখানে স্থায়ী নিয়োগের পাশাপাশি অভিজ্ঞদের এনে ট্রেনিং দেয়া হবে। প্রথম দফায় আমরা অথরাইজড ডিলারদের ট্রেনিং দেয়ার প্রোগ্রাম হাতে নিয়েছি।

তিনি আরও বলেন, ‘এক বছর আগে ক্যাপিটাল মার্কেটের যে লক্ষ্য নিয়ে দায়িত্ব গ্রহণ করেছিলাম, তা গুটি গুটি পায়ে এগিয়ে চলেছে। তবে মূল লক্ষ্যের কোনটাই অর্জন করতে পারিনি, তবে আমরা চেষ্টা করছি। সামনের দিনগুলোতে আমাদের লক্ষ্য প্রস্তুত করা আছে, আমরা সেদিকেই এগিয়ে যাচ্ছি।’

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বিএসইসির কমিশনার অধ্যাপক ড. শেখ সামসুদ্দিন আহমেদ, ড. মিজানুর রহমান, আবদুল হালিম প্রমুখ।