কিশোর বঙ্গবন্ধুর চরিত্রে সৌম্য

সৌম্য জ্যোতি, বাংলাদেশের নাট্যাঙ্গনের তারকা দম্পতি নাট্যকার বৃন্দাবন দাস ও অভিনেত্রী শাহানাজ খুশী দম্পতির জম ছেলেদের একজন। সৌম্য অভিনয় শুরু করেছেন সরকারি অনুদানে মাসুম রেজার কাহিনী, সংলাপ ও চিত্রনাট্যে মুশফিকুর রহমান গুলজারের পরিচালনায় ‘টুঙ্গিপাড়ার দুঃসাহসী খোকা’ সিনেমায়। এই সিনেমায় সৌম্য অভিনয় করছেন বঙ্গবন্ধুর কিশোর কালের চরিত্রে। সিনেমাতে মূলত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১৬ থেকে ২০ বছরের সময়টাকে তুলে ধরা হবে বলে জানালেন সৌম্য। এরই মধ্যে সৌম্য এই সিনেমার শুটিংয়ের জন্য গোপালগঞ্জের টুঙ্গি পাড়ায় গিয়েছেন। সেখানে সিনেমার শুটিং শুরুর আগে বঙ্গবন্ধুর সমাধিস্থলে গিয়েছিলেন।

প্রথম দিনের শুটিং শেষে মুঠোফোনে সৌম্য তার অনুভূতি ব্যক্ত করতে গিয়ে বলেন, ‘আমাদের বঙ্গবন্ধু’র কিশোর কালের চরিত্রে অভিনয় করার সুযোগ পাওয়া সত্যিই ভাগ্যের ব্যাপার। সিনেমাটিতে কাজ করার পূর্বে আমার বাবা-মা আমাকে ভীষণভাবে অনুপ্রেরণা দিয়েছেন। সেই সঙ্গে আমি নিজেও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মজীবনী বইটি পড়ে তার সম্পর্কে অগাধ জানার চেষ্টা করেছি। নিজেকে তৈরি করেছি। সিনেমাটিতে বঙ্গবন্ধুর বাবা শেখ লুৎফর রহমানের চরিত্রে অভিনয় করছেন শ্রদ্ধেয় লুৎফর রহমান জর্জ। তিনিও আমাকে ভীষণ সহযোগিতা করছেন। সর্বোপরি সিনেমার পরিচালকসহ পুরো ইউনিটের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা।’ সৌম্য জানান, সিনেমার বিরাট একটি অংশের শুটিং হবে ফরিদপুরে এবং বিএফডিসিতে। সৌম্যর ছোটবেলায় প্রথম অভিনয়ে অভিষেক হয় বাবার লেখায় অর্থাৎ বৃন্দাবন দাসের রচনায় ও সৈয়দ শাকিলের পরিচালনায় ‘পাদুকা বিতান’ নাটকে অভিনয়ের মধ্যদিয়ে। এরইমধ্যে সৌম্য আকরাম খানের পরিচালনায় ‘নকশী কাঁথার জমিন’ সিনেমার কাজ শেষ করেছেন।

রবিবার, ১০ অক্টোবর ২০২১ , ২৫ আশ্বিন ১৪২৮ ০২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

কিশোর বঙ্গবন্ধুর চরিত্রে সৌম্য

image

সৌম্য জ্যোতি, বাংলাদেশের নাট্যাঙ্গনের তারকা দম্পতি নাট্যকার বৃন্দাবন দাস ও অভিনেত্রী শাহানাজ খুশী দম্পতির জম ছেলেদের একজন। সৌম্য অভিনয় শুরু করেছেন সরকারি অনুদানে মাসুম রেজার কাহিনী, সংলাপ ও চিত্রনাট্যে মুশফিকুর রহমান গুলজারের পরিচালনায় ‘টুঙ্গিপাড়ার দুঃসাহসী খোকা’ সিনেমায়। এই সিনেমায় সৌম্য অভিনয় করছেন বঙ্গবন্ধুর কিশোর কালের চরিত্রে। সিনেমাতে মূলত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১৬ থেকে ২০ বছরের সময়টাকে তুলে ধরা হবে বলে জানালেন সৌম্য। এরই মধ্যে সৌম্য এই সিনেমার শুটিংয়ের জন্য গোপালগঞ্জের টুঙ্গি পাড়ায় গিয়েছেন। সেখানে সিনেমার শুটিং শুরুর আগে বঙ্গবন্ধুর সমাধিস্থলে গিয়েছিলেন।

প্রথম দিনের শুটিং শেষে মুঠোফোনে সৌম্য তার অনুভূতি ব্যক্ত করতে গিয়ে বলেন, ‘আমাদের বঙ্গবন্ধু’র কিশোর কালের চরিত্রে অভিনয় করার সুযোগ পাওয়া সত্যিই ভাগ্যের ব্যাপার। সিনেমাটিতে কাজ করার পূর্বে আমার বাবা-মা আমাকে ভীষণভাবে অনুপ্রেরণা দিয়েছেন। সেই সঙ্গে আমি নিজেও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মজীবনী বইটি পড়ে তার সম্পর্কে অগাধ জানার চেষ্টা করেছি। নিজেকে তৈরি করেছি। সিনেমাটিতে বঙ্গবন্ধুর বাবা শেখ লুৎফর রহমানের চরিত্রে অভিনয় করছেন শ্রদ্ধেয় লুৎফর রহমান জর্জ। তিনিও আমাকে ভীষণ সহযোগিতা করছেন। সর্বোপরি সিনেমার পরিচালকসহ পুরো ইউনিটের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা।’ সৌম্য জানান, সিনেমার বিরাট একটি অংশের শুটিং হবে ফরিদপুরে এবং বিএফডিসিতে। সৌম্যর ছোটবেলায় প্রথম অভিনয়ে অভিষেক হয় বাবার লেখায় অর্থাৎ বৃন্দাবন দাসের রচনায় ও সৈয়দ শাকিলের পরিচালনায় ‘পাদুকা বিতান’ নাটকে অভিনয়ের মধ্যদিয়ে। এরইমধ্যে সৌম্য আকরাম খানের পরিচালনায় ‘নকশী কাঁথার জমিন’ সিনেমার কাজ শেষ করেছেন।