যৌতুক না পেয়ে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে এসিড নিক্ষেপ স্বামী-শ^শুর আটক

মাদারীপুরে যৌতুক না দেয়ায় সাত মাসের এক অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে এসিড নিক্ষেপের অভিযোগ উঠেছে স্বামী ও শ^শুরের বিরুদ্ধে। এ ঘটনার বিচার দাবি করেছেন স্বজন ও এলাকাবাসী। পুলিশ এই ঘটনায় স্বামী ও শ^শুরকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে।

স্বজনদের বরাত দিয়ে মাদারীপুর সদর থানার ওসি কামরুল ইসলাম মিয়া বলেন, ৯ মাস আগে মাদারীপুর সদর উপজেলার মাদ্রা এলাকার সুমন শেখের সঙ্গে বিয়ে হয় পাশের কালাইমারা গ্রামের মীম আক্তারের। বিয়ের পর শ^শুরবাড়ির লোকজন বিভিন্ন সময়ে যৌতুক দাবি করে আসছিল। এতে ৫ মাস আগে বাবার বাড়ি চলে আসে মিম। স্থানীয়ভাবে বেশ কয়েকবার মীমাংসার চেষ্টা করা হলে আরো বেপরোয়া হয়ে ওঠে সুমন ও তার পরিবারের লোকজন। গত শনিবার সন্ধ্যায় মিমের বাবার বাড়ি গিয়ে সুমন ও মিমের শ^শুর সোবাহান শেখ কৌশলে ডেকে ঘরের পেছেনে নিয়ে যায়। পরে বোতলে থাকা ব্যাটারির পানি মিশ্রত এসিড নিক্ষেপের চেষ্টা চালায় বলে অভিযোগ নির্যাতিতার পরিবারের। ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে হাত ও মুখম-লে এসিড লাগলে চিৎকার করে মিম। পরে তাকে উদ্ধার করে ভর্তি করা হয় জেলা সদর হাসপাতালে।

সোমবার, ১১ অক্টোবর ২০২১ , ২৬ আশ্বিন ১৪২৮ ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

যৌতুক না পেয়ে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে এসিড নিক্ষেপ স্বামী-শ^শুর আটক

মাদারীপুরে যৌতুক না দেয়ায় সাত মাসের এক অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে এসিড নিক্ষেপের অভিযোগ উঠেছে স্বামী ও শ^শুরের বিরুদ্ধে। এ ঘটনার বিচার দাবি করেছেন স্বজন ও এলাকাবাসী। পুলিশ এই ঘটনায় স্বামী ও শ^শুরকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে।

স্বজনদের বরাত দিয়ে মাদারীপুর সদর থানার ওসি কামরুল ইসলাম মিয়া বলেন, ৯ মাস আগে মাদারীপুর সদর উপজেলার মাদ্রা এলাকার সুমন শেখের সঙ্গে বিয়ে হয় পাশের কালাইমারা গ্রামের মীম আক্তারের। বিয়ের পর শ^শুরবাড়ির লোকজন বিভিন্ন সময়ে যৌতুক দাবি করে আসছিল। এতে ৫ মাস আগে বাবার বাড়ি চলে আসে মিম। স্থানীয়ভাবে বেশ কয়েকবার মীমাংসার চেষ্টা করা হলে আরো বেপরোয়া হয়ে ওঠে সুমন ও তার পরিবারের লোকজন। গত শনিবার সন্ধ্যায় মিমের বাবার বাড়ি গিয়ে সুমন ও মিমের শ^শুর সোবাহান শেখ কৌশলে ডেকে ঘরের পেছেনে নিয়ে যায়। পরে বোতলে থাকা ব্যাটারির পানি মিশ্রত এসিড নিক্ষেপের চেষ্টা চালায় বলে অভিযোগ নির্যাতিতার পরিবারের। ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে হাত ও মুখম-লে এসিড লাগলে চিৎকার করে মিম। পরে তাকে উদ্ধার করে ভর্তি করা হয় জেলা সদর হাসপাতালে।