বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের রক্ত পরিসঞ্চালন বিভাগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে নানা আয়োজনে উদযাপিত হয়েছে রক্ত পরিসঞ্চালন বিভাগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। গতকাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ ডা. মিল্টন হলে স্বেচ্ছায় রক্তদাতাদের সম্মাননা দেয়া, স্বেচ্ছায় রক্তদান ও এক আলোচনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

বিভাগীয় সূত্রে জানা যায়, ১৯৭২ সালে ৮ই অক্টোবর সাবেক পিজি হাসপাতালে (আইপিজিএমআর)-এর এ ব্লকের দোতলায় ‘কেন্দ্রীয় রক্ত পরিসঞ্চালন’ কেন্দ্রটির উদ্বোধন করা হয়। বর্তমানে এটি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রান্সফিউশন মেডিসিন বিভাগ নামে পরিচিত।

বিভাগটি জরুরি বিধায় শুরু থেকেই এর কার্যক্রম দিন-রাত ২৪ ঘণ্টা চলমান ছিল এবং এখনও তাই আছে। বিশ্ব করোনা মহামারীর মধ্যেও বিভাগটির কোন কার্যক্রম এক মিনিটের জন্যও বন্ধ হয় নাই। রোগীর প্রতি দায়িত্ববোধ এবং সর্বোপরি বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়া প্রতিষ্ঠানের প্রতি শ্রদ্ধাবোধ থেকেই বিভাগের সব শিক্ষক, চিকিৎসক, কর্মকর্তা এবং কর্মচারীরা করোনা মহামারীর মধ্যেও দিন-রাত কাজ করে যাচ্ছে নিরলসভাবে।

সোমবার, ১১ অক্টোবর ২০২১ , ২৬ আশ্বিন ১৪২৮ ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের রক্ত পরিসঞ্চালন বিভাগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপিত

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে নানা আয়োজনে উদযাপিত হয়েছে রক্ত পরিসঞ্চালন বিভাগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। গতকাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ ডা. মিল্টন হলে স্বেচ্ছায় রক্তদাতাদের সম্মাননা দেয়া, স্বেচ্ছায় রক্তদান ও এক আলোচনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

বিভাগীয় সূত্রে জানা যায়, ১৯৭২ সালে ৮ই অক্টোবর সাবেক পিজি হাসপাতালে (আইপিজিএমআর)-এর এ ব্লকের দোতলায় ‘কেন্দ্রীয় রক্ত পরিসঞ্চালন’ কেন্দ্রটির উদ্বোধন করা হয়। বর্তমানে এটি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রান্সফিউশন মেডিসিন বিভাগ নামে পরিচিত।

বিভাগটি জরুরি বিধায় শুরু থেকেই এর কার্যক্রম দিন-রাত ২৪ ঘণ্টা চলমান ছিল এবং এখনও তাই আছে। বিশ্ব করোনা মহামারীর মধ্যেও বিভাগটির কোন কার্যক্রম এক মিনিটের জন্যও বন্ধ হয় নাই। রোগীর প্রতি দায়িত্ববোধ এবং সর্বোপরি বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়া প্রতিষ্ঠানের প্রতি শ্রদ্ধাবোধ থেকেই বিভাগের সব শিক্ষক, চিকিৎসক, কর্মকর্তা এবং কর্মচারীরা করোনা মহামারীর মধ্যেও দিন-রাত কাজ করে যাচ্ছে নিরলসভাবে।