সরিষাবাড়ীতে ‘সম্মুখযুদ্ধ দিবস’ পালিত

জামালপুর জেলার সরিষাবাড়ীতে ১৯৭১ নালে মহান স্বাধীনতাযুদ্ধ চলাকালীন সময়ে ভয়াবহ সম্মুখ যুদ্ধসংঘটিত হয়েছিল। স্থানীয় বীর মুক্তিযোদ্ধারা প্রতি বৎসর এ দিবস পালন করে আসছেন । গত রোববা সকালে বাউসী পপুলার মোড় মুক্তিযোদ্ধা স্মরণীতে মুক্তিযোদ্ধাদের উদ্যোগে জাতীয় পতাকা, কালো পতাকা, মুক্তিযুদ্ধ পতাকা উত্তোলন, পুস্পস্তবক অর্পণ, দোয়া ও আলোচনা সভার মধ্যে দিয়ে এ দিবস পালন করা হয়।

উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার মোফাজ্জল হোসেনের সভাপতিত্বে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা গিয়াস উদ্দিন পাঠান,সরিষাবাড়ী মাহমুদা সালাম মহিলা কলেজ পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা লুৎফর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক জহুরুল ইসলাম মানিক , সরিষাবাড়ী পৌর মেয়র মনির উদ্দিন, তথ?্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী আলহাজ ডা. মুরাদ হাসান এর পক্ষে কাউন্সিলর সাখাওয়াত হোসেন মুকুল, কামরাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের নৌকা প্রতীকের মনোনয়ন প্রত?্যাশী ছামিউল হক খান ও মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের রাশেদুজ্জামান শাহীনসহ অনান?্যরা শ্রদ্ধা নিবেদন ও শহীদদের আত্মার মাগফিরাত কামনায় দোয়া করা হয়।

উল্লেখ, ১৯৭১ সালে ১০ অক্টোবর মহান মুক্তিযুদ্ধে বীর মুক্তিযোদ্ধারা সরিষাবাড়ী উপজেলার বাউসি পপুলার মোড়ে রেলওয়ে ব্রিজ ভাঙ্গতে আসলে পাকিস্তানি সেনাদের সঙ্গে সম্মুখযুদ্ধ হয়। ওই যুদ্ধে মতান্তরে ৫ জন বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ হন ও ৫নং পিংনা ইউপির কাওয়ামারা গ্রামের আজগর টেন্ডেলের ছেলে মো. জালাল উদ্দিন এর গুলি ফুড়িয়ে যাওয়ায় হানাদার বাহিনীর হাতে ধরা পড়েন। পড়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা জালালকে ব্যানোট দিয়ে খুচিয়ে খুচিয়ে মেরে বর্তমান মুক্তিযোদ্ধা সংসদের স্থানে মাটিতে পুতে রাখাহয় । এ সম্মুখযুদ্ধে অনেকেই আহত হন।

মঙ্গলবার, ১২ অক্টোবর ২০২১ , ২৭ আশ্বিন ১৪২৮ ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

সরিষাবাড়ীতে ‘সম্মুখযুদ্ধ দিবস’ পালিত

image

সরিষাবাড়ী (জামালপুর) : শহীদদের স্মরণে জাতীয় পতাকা হাতে স্মৃতিসৌধে মুক্তিযোদ্ধারা -সংবাদ

জামালপুর জেলার সরিষাবাড়ীতে ১৯৭১ নালে মহান স্বাধীনতাযুদ্ধ চলাকালীন সময়ে ভয়াবহ সম্মুখ যুদ্ধসংঘটিত হয়েছিল। স্থানীয় বীর মুক্তিযোদ্ধারা প্রতি বৎসর এ দিবস পালন করে আসছেন । গত রোববা সকালে বাউসী পপুলার মোড় মুক্তিযোদ্ধা স্মরণীতে মুক্তিযোদ্ধাদের উদ্যোগে জাতীয় পতাকা, কালো পতাকা, মুক্তিযুদ্ধ পতাকা উত্তোলন, পুস্পস্তবক অর্পণ, দোয়া ও আলোচনা সভার মধ্যে দিয়ে এ দিবস পালন করা হয়।

উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার মোফাজ্জল হোসেনের সভাপতিত্বে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা গিয়াস উদ্দিন পাঠান,সরিষাবাড়ী মাহমুদা সালাম মহিলা কলেজ পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা লুৎফর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক জহুরুল ইসলাম মানিক , সরিষাবাড়ী পৌর মেয়র মনির উদ্দিন, তথ?্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী আলহাজ ডা. মুরাদ হাসান এর পক্ষে কাউন্সিলর সাখাওয়াত হোসেন মুকুল, কামরাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের নৌকা প্রতীকের মনোনয়ন প্রত?্যাশী ছামিউল হক খান ও মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের রাশেদুজ্জামান শাহীনসহ অনান?্যরা শ্রদ্ধা নিবেদন ও শহীদদের আত্মার মাগফিরাত কামনায় দোয়া করা হয়।

উল্লেখ, ১৯৭১ সালে ১০ অক্টোবর মহান মুক্তিযুদ্ধে বীর মুক্তিযোদ্ধারা সরিষাবাড়ী উপজেলার বাউসি পপুলার মোড়ে রেলওয়ে ব্রিজ ভাঙ্গতে আসলে পাকিস্তানি সেনাদের সঙ্গে সম্মুখযুদ্ধ হয়। ওই যুদ্ধে মতান্তরে ৫ জন বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ হন ও ৫নং পিংনা ইউপির কাওয়ামারা গ্রামের আজগর টেন্ডেলের ছেলে মো. জালাল উদ্দিন এর গুলি ফুড়িয়ে যাওয়ায় হানাদার বাহিনীর হাতে ধরা পড়েন। পড়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা জালালকে ব্যানোট দিয়ে খুচিয়ে খুচিয়ে মেরে বর্তমান মুক্তিযোদ্ধা সংসদের স্থানে মাটিতে পুতে রাখাহয় । এ সম্মুখযুদ্ধে অনেকেই আহত হন।