বিএনপির ১৮ নেতার আমলনামা তারেকের হাতে

বরিশাল বিএনপির মহানগরসহ ৩টি সাংগঠনিক কমিটি গঠনে শীর্ষ পদের জন্য ১৮ বিএনপি নেতার আমলনামা দলটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে দেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। গত মঙ্গলবার বরিশাল অঞ্চলের সাংগঠনিক নেতাদের সঙ্গে ভার্চুয়াল সভা করে শীর্ষ পদ প্রত্যাশী নেতাদের তথ্য সংগ্রহ করেন লন্ডন প্রবাসী ও আদালত কর্তৃক দণ্ডপ্রাপ্ত তারেক জিয়া। ওই ১৮ নেতার দলীয় কর্মকাণ্ড পর্যালোচনা করে চলতি মাসের ২০ তারিখের পরে যেকোন সময় বরিশাল মহানগর এবং দক্ষিণ ও উত্তর জেলার আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করা হতে পারে বলে দায়িত্বশীল দলীয় সূত্র নিশ্চিত করেছে।

বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বিলকিস জাহান শিরিন এ প্রসঙ্গে বলেন, গত মঙ্গলবার বিকেল ৪টা থেকে প্রায় ৩ ঘণ্টা ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান বরিশালের ৩ সাংগঠনিক কমিটির নেতাদের সঙ্গে কথা বলেন। আলোচনায় বরিশাল মহানগর, উত্তর ও দক্ষিণ জেলায় সম্ভাব্য কমিটিতে শীর্ষ পদপ্রত্যাশী নেতাদের রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড সম্পর্কে জানতে চেয়েছেন ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান। তার কথায় মনে হয়েছে বরিশালে আগামী ২০ অক্টোবর কিংবা তার পরপরই নতুন কমিটির খবর আসতে পারে।

সাংগঠনিক সম্পাদক শিরিন বলেন, মহানগরে আহ্বায়ক পদে মজিবর রহমান সরোয়ার, আহসান হাবিব কামাল, মনিরুজ্জামান ফারুক, আলী হায়দার বাবুল ও তিনি (শিরিন) এবং সদস্য সচিব পদে জিয়াউদ্দিন সিকদার, মীর জাহিদুল কবির জাহিদ, শাহ আমিনুল ইসলাম আমিনের নাম আলোচনায় আছে। তবে যারা কেন্দ্রীয় কমিটিতেও আছেন তাদের মহানগরে পদ পেতে হলে অপর পদটি ছাড়তে হবে। কেননা বিএনপি ‘এক নেতা এক পদ’ ইস্যুতে কঠোর।

জানা গেছে, কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও মহানগর বিএনপির সভাপতি মজিবর রহমান সরোয়ার এবং ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জিয়াউদ্দিন সিকদার আবারও নেতৃত্বে আসতে আগ্রহী। তবে তাদের প্রতিদ্বন্দ্বী সাবেক মেয়র আহসান হাবিব কামাল, মনিরুজ্জামান ফারুক, আলী হায়দার বাবুল, বিলকিস জাহান শিরিন, মীর জাহিদুল কবির, শাহ আমিনুল ইসলাম আমিনসহ কয়েকজন।

জেলা (উত্তর) বিএনপিতে বর্তমান সভাপতি মেজবাউদ্দিন ফরহাদ, রফিকুল ইসলাম কাজল, আফজাল হোসেন, আব্দুস ছত্তার খান এবং দক্ষিণে এবায়দুল হক চান, আবুল হোসেন, আবুল কালাম শাহিনের নাম জোরেশোরে শোনা যাচ্ছে।

মঙ্গলবারের ভার্চুয়াল সভার তথ্য মতে, মহানগর এবং উত্তর ও দক্ষিণ জেলার কমিটির নতুন নেতৃত্বে আসতে পারেন এমন প্রায় ১৮ জনের তালিকা ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপার্সন তারেক রহমানকে দেয়া হয়।

সূত্র মতে, পরপর দুইবার ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের সঙ্গে ভার্চুয়াল আলোচনায় কয়েকজন হেভিওয়েট নেতার কর্মকাণ্ড নিয়ে সমালোচনা হয়েছে। দলের দুঃসময়ে আঁতাত করাসহ নানা বিতর্কে জড়িয়ে পড়া কয়েকজন হেভিওয়েট নেতা এবার দলের মূল দায়িত্বে (আহ্বায়ক-সদস্য সচিব) আসতে পারছেন না বলে সূত্রটি থেকে ওই সভায় ইঙ্গিত দেয়া হয়েছে।

জানতে চাইলে বিএনপির কেন্দ্রীয় সহ সাংগঠনিক সম্পাদক আকন কুদ্দুসুর রহমান বলেন, গত সপ্তাহে সভায় তাদের কাছে নেতাদের তালিকা চাওয়া হয়েছিল।

বৃহস্পতিবার, ১৪ অক্টোবর ২০২১ , ২৯ আশ্বিন ১৪২৮ ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

বরিশাল মহানগরসহ ৩ সাংগঠনিক কমিটি গঠন

বিএনপির ১৮ নেতার আমলনামা তারেকের হাতে

বরিশাল বিএনপির মহানগরসহ ৩টি সাংগঠনিক কমিটি গঠনে শীর্ষ পদের জন্য ১৮ বিএনপি নেতার আমলনামা দলটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে দেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। গত মঙ্গলবার বরিশাল অঞ্চলের সাংগঠনিক নেতাদের সঙ্গে ভার্চুয়াল সভা করে শীর্ষ পদ প্রত্যাশী নেতাদের তথ্য সংগ্রহ করেন লন্ডন প্রবাসী ও আদালত কর্তৃক দণ্ডপ্রাপ্ত তারেক জিয়া। ওই ১৮ নেতার দলীয় কর্মকাণ্ড পর্যালোচনা করে চলতি মাসের ২০ তারিখের পরে যেকোন সময় বরিশাল মহানগর এবং দক্ষিণ ও উত্তর জেলার আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করা হতে পারে বলে দায়িত্বশীল দলীয় সূত্র নিশ্চিত করেছে।

বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বিলকিস জাহান শিরিন এ প্রসঙ্গে বলেন, গত মঙ্গলবার বিকেল ৪টা থেকে প্রায় ৩ ঘণ্টা ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান বরিশালের ৩ সাংগঠনিক কমিটির নেতাদের সঙ্গে কথা বলেন। আলোচনায় বরিশাল মহানগর, উত্তর ও দক্ষিণ জেলায় সম্ভাব্য কমিটিতে শীর্ষ পদপ্রত্যাশী নেতাদের রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড সম্পর্কে জানতে চেয়েছেন ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান। তার কথায় মনে হয়েছে বরিশালে আগামী ২০ অক্টোবর কিংবা তার পরপরই নতুন কমিটির খবর আসতে পারে।

সাংগঠনিক সম্পাদক শিরিন বলেন, মহানগরে আহ্বায়ক পদে মজিবর রহমান সরোয়ার, আহসান হাবিব কামাল, মনিরুজ্জামান ফারুক, আলী হায়দার বাবুল ও তিনি (শিরিন) এবং সদস্য সচিব পদে জিয়াউদ্দিন সিকদার, মীর জাহিদুল কবির জাহিদ, শাহ আমিনুল ইসলাম আমিনের নাম আলোচনায় আছে। তবে যারা কেন্দ্রীয় কমিটিতেও আছেন তাদের মহানগরে পদ পেতে হলে অপর পদটি ছাড়তে হবে। কেননা বিএনপি ‘এক নেতা এক পদ’ ইস্যুতে কঠোর।

জানা গেছে, কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও মহানগর বিএনপির সভাপতি মজিবর রহমান সরোয়ার এবং ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জিয়াউদ্দিন সিকদার আবারও নেতৃত্বে আসতে আগ্রহী। তবে তাদের প্রতিদ্বন্দ্বী সাবেক মেয়র আহসান হাবিব কামাল, মনিরুজ্জামান ফারুক, আলী হায়দার বাবুল, বিলকিস জাহান শিরিন, মীর জাহিদুল কবির, শাহ আমিনুল ইসলাম আমিনসহ কয়েকজন।

জেলা (উত্তর) বিএনপিতে বর্তমান সভাপতি মেজবাউদ্দিন ফরহাদ, রফিকুল ইসলাম কাজল, আফজাল হোসেন, আব্দুস ছত্তার খান এবং দক্ষিণে এবায়দুল হক চান, আবুল হোসেন, আবুল কালাম শাহিনের নাম জোরেশোরে শোনা যাচ্ছে।

মঙ্গলবারের ভার্চুয়াল সভার তথ্য মতে, মহানগর এবং উত্তর ও দক্ষিণ জেলার কমিটির নতুন নেতৃত্বে আসতে পারেন এমন প্রায় ১৮ জনের তালিকা ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপার্সন তারেক রহমানকে দেয়া হয়।

সূত্র মতে, পরপর দুইবার ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের সঙ্গে ভার্চুয়াল আলোচনায় কয়েকজন হেভিওয়েট নেতার কর্মকাণ্ড নিয়ে সমালোচনা হয়েছে। দলের দুঃসময়ে আঁতাত করাসহ নানা বিতর্কে জড়িয়ে পড়া কয়েকজন হেভিওয়েট নেতা এবার দলের মূল দায়িত্বে (আহ্বায়ক-সদস্য সচিব) আসতে পারছেন না বলে সূত্রটি থেকে ওই সভায় ইঙ্গিত দেয়া হয়েছে।

জানতে চাইলে বিএনপির কেন্দ্রীয় সহ সাংগঠনিক সম্পাদক আকন কুদ্দুসুর রহমান বলেন, গত সপ্তাহে সভায় তাদের কাছে নেতাদের তালিকা চাওয়া হয়েছিল।