কাশফুল ছেঁড়া থেকে বিরত থাকুন

ষড়ঋতুর দেশ বাংলাদেশ। প্রতিটা ঋতুর আলাদা আলাদা বৈশিষ্ট্যে বৈচিত্র্যময় হযয়ে ওঠে বাংলার প্রকৃতি। বর্তমানে বাংলায় শরৎকাল বিদ্যমান। শরতের অন্যতম অনুষঙ্গ হলো শুভ্র কাশফুল। নাই কোনো বাড়তি যত্নের পাঁয়তারা তবুও শরৎ এলেই নদীর দুপাশে কাশফুল ফুটে বাংলার প্রকৃতির সৌন্দর্য বহুগুণে বাড়িয়ে দেয়। বর্তমানে ফেসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম কাশফুলময় ছবিতে ভরপুর।

কাশবনগুলো হয়ে উঠেছে পর্যটন কেন্দ্রের মতো। অনেক মানুষ কাশবনে গিয়ে ছবি তুলে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে আপলোড করছেন। কাশফুলের কোমল শুভ্রতায় মন রাঙিয়ে ঠেঁাঁটের কোনে হাসির রেশ দেখা যায় সবার। কিন্তু একটা অসঙ্গতিও চোখকে এড়িয়ে যাচ্ছে না। অধিকাংশেরই হাতে ছেঁড়া কাশফুল দেখা যায়। যা মোটেও শোভনীয় নয়, ভালো কথা নয়। এভাবে ফুল ছিঁড়তে থাকলে শরৎ শেষ হওয়ার অনেক আগেই বাগানগুলো কাশফুল শূন্য হয়ে পড়বে। প্রকৃতি বঞ্চিত হবে শরতের শোভা থেকে। তাছাড়া একারণে কাশফুলের বীজ বিনষ্ট হলে ধীরে ধীরে বিলুপ্ত হয়ে যেতে পারে। তাই সবার কাছে অনুরোধ, কাশফুল বাগানে গিয়ে সৌন্দর্য উপভোগ করুন। ফুল ছিড়ে সৌন্দর্য নষ্ট করা থেকে বিরত থাকুন। পরবর্তী প্রজন্মকে কাশফুলের সৌন্দর্য উপভোগ করতে দিন।

শাহ্ মুহাম্মদ আবদুল্লাহ

আরও খবর

বৃহস্পতিবার, ১৪ অক্টোবর ২০২১ , ২৯ আশ্বিন ১৪২৮ ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

কাশফুল ছেঁড়া থেকে বিরত থাকুন

ষড়ঋতুর দেশ বাংলাদেশ। প্রতিটা ঋতুর আলাদা আলাদা বৈশিষ্ট্যে বৈচিত্র্যময় হযয়ে ওঠে বাংলার প্রকৃতি। বর্তমানে বাংলায় শরৎকাল বিদ্যমান। শরতের অন্যতম অনুষঙ্গ হলো শুভ্র কাশফুল। নাই কোনো বাড়তি যত্নের পাঁয়তারা তবুও শরৎ এলেই নদীর দুপাশে কাশফুল ফুটে বাংলার প্রকৃতির সৌন্দর্য বহুগুণে বাড়িয়ে দেয়। বর্তমানে ফেসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম কাশফুলময় ছবিতে ভরপুর।

কাশবনগুলো হয়ে উঠেছে পর্যটন কেন্দ্রের মতো। অনেক মানুষ কাশবনে গিয়ে ছবি তুলে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে আপলোড করছেন। কাশফুলের কোমল শুভ্রতায় মন রাঙিয়ে ঠেঁাঁটের কোনে হাসির রেশ দেখা যায় সবার। কিন্তু একটা অসঙ্গতিও চোখকে এড়িয়ে যাচ্ছে না। অধিকাংশেরই হাতে ছেঁড়া কাশফুল দেখা যায়। যা মোটেও শোভনীয় নয়, ভালো কথা নয়। এভাবে ফুল ছিঁড়তে থাকলে শরৎ শেষ হওয়ার অনেক আগেই বাগানগুলো কাশফুল শূন্য হয়ে পড়বে। প্রকৃতি বঞ্চিত হবে শরতের শোভা থেকে। তাছাড়া একারণে কাশফুলের বীজ বিনষ্ট হলে ধীরে ধীরে বিলুপ্ত হয়ে যেতে পারে। তাই সবার কাছে অনুরোধ, কাশফুল বাগানে গিয়ে সৌন্দর্য উপভোগ করুন। ফুল ছিড়ে সৌন্দর্য নষ্ট করা থেকে বিরত থাকুন। পরবর্তী প্রজন্মকে কাশফুলের সৌন্দর্য উপভোগ করতে দিন।

শাহ্ মুহাম্মদ আবদুল্লাহ