অনলাইন অ্যাপে জুয়া, টাকা যাচ্ছে বিদেশে

বাইনানি অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে জুয়া পরিচালনা এবং বিদেশে টাকা পাচারের অভিযোগে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে অ্যান্টি টেরোরিজম ইউনিট (এটিইউ)। গত বৃহস্পতিবার মৌলভীবাজার থেকে সঞ্জয় চন্দ্র ধর নামে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

অ্যান্টি টেররিজম ইউনিটের মিডিয়া অ্যান্ড অ্যাওয়ারনেস শাখার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আসলাম খান বলেন, গ্রেপ্তারকৃত সঞ্জয় চন্দ্র ধর বাইনানি অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে অনলাইন প্লাটফর্মে জুয়া পরিচালনা করে আসছিল। অনলাইন প্লাটফর্মের মাধ্যমে ট্র্যাপে ফেলে মিথ্যা আশায় নিঃস্ব হচ্ছে অনেকেই। অনলাইন প্লাটফর্মে পরিচালিত এ জুয়ার টাকা বিদেশে পাচার হচ্ছে বলেও জানানো হয়। কী পরিমাণ টাকা বিদেশে পাচার হয়েছে এ বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

তিনি বলেন, গুগল প্লে-স্টোর থেকে অ্যাপটি ডাউনলোড করার পর বিকাশ এবং নগদের মাধ্যমে অ্যাকাউন্ট রিচার্জ করে অনলাইনে জুয়া খেলা হতো। জুয়াখেলার জন্য সময়সীমা এবং বিভিন্ন অঙ্কের টাকা নির্ধারণ করে দেয়া থাকতো। জুয়া থেকে পাওয়া অর্থ গ্রেপ্তারকৃত সঞ্জয় নিজের অ্যাকাউন্টে নেয়ার জন্য উইথড্র অপশন ছিল তাদের। যদিও এক্ষেত্রে বেশিরভাগ গ্রাহক প্রতারণার শিকার হয়ে আসছিল।

রবিবার, ২১ নভেম্বর ২০২১ , ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ ১৫ রবিউস সানি ১৪৪৩

অনলাইন অ্যাপে জুয়া, টাকা যাচ্ছে বিদেশে

বাইনানি অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে জুয়া পরিচালনা এবং বিদেশে টাকা পাচারের অভিযোগে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে অ্যান্টি টেরোরিজম ইউনিট (এটিইউ)। গত বৃহস্পতিবার মৌলভীবাজার থেকে সঞ্জয় চন্দ্র ধর নামে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

অ্যান্টি টেররিজম ইউনিটের মিডিয়া অ্যান্ড অ্যাওয়ারনেস শাখার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আসলাম খান বলেন, গ্রেপ্তারকৃত সঞ্জয় চন্দ্র ধর বাইনানি অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে অনলাইন প্লাটফর্মে জুয়া পরিচালনা করে আসছিল। অনলাইন প্লাটফর্মের মাধ্যমে ট্র্যাপে ফেলে মিথ্যা আশায় নিঃস্ব হচ্ছে অনেকেই। অনলাইন প্লাটফর্মে পরিচালিত এ জুয়ার টাকা বিদেশে পাচার হচ্ছে বলেও জানানো হয়। কী পরিমাণ টাকা বিদেশে পাচার হয়েছে এ বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

তিনি বলেন, গুগল প্লে-স্টোর থেকে অ্যাপটি ডাউনলোড করার পর বিকাশ এবং নগদের মাধ্যমে অ্যাকাউন্ট রিচার্জ করে অনলাইনে জুয়া খেলা হতো। জুয়াখেলার জন্য সময়সীমা এবং বিভিন্ন অঙ্কের টাকা নির্ধারণ করে দেয়া থাকতো। জুয়া থেকে পাওয়া অর্থ গ্রেপ্তারকৃত সঞ্জয় নিজের অ্যাকাউন্টে নেয়ার জন্য উইথড্র অপশন ছিল তাদের। যদিও এক্ষেত্রে বেশিরভাগ গ্রাহক প্রতারণার শিকার হয়ে আসছিল।