এইচএসসি পরীক্ষার কারণে চতুর্থ ধাপে ইউপি ভোটের তারিখ পেছালো

উচ্চ মাধ্যমিক (এইচএসসি) পরীক্ষা ও নির্বাচনের তারিখ একই দিনে হওয়ায় চতুর্থ ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে ভোটগ্রহণের তারিখ তিন দিন পিছিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। আগামী ২৩ ডিসেম্বরের পরিবর্তে চতুর্থ ধাপে ৮৪০ ইউপিতে আগামী ২৬ ডিসেম্বর ভোটের নতুন তারিখ নির্ধারণ করেছে সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানটি।

ইসি’র অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ বলেন, ২৩ ডিসেম্বর এইচএসসি’র গুরুত্বপূর্ণ দুইটি পরীক্ষা রয়েছে। এই পরীক্ষা পিছানোর জন্য পর্যাপ্ত সময় না থাকায় শিক্ষামন্ত্রণালয় থেকে কমিশনে অনুরোধ করেছে যে, নির্বাচনের তারিখটি পরিবর্তন করা যায় কি না। কমিশন তাদের অনুরোধ বিবেচনায় নিয়ে ভোটের তারিখ পিছানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

ভোটের অন্যান্য তারিখ পরিবর্তন করা হয়েছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ভোটের অন্যান্য তারিখ আগের মতো একই থাকবে। শুধু ভোটগ্রহণের তারিখটি পরিবর্তন করা হয়েছে। এর আগে বুধবার (১০ নভেম্বর) চতুর্থ ধাপে ৮৪০ ইউপির ভোটের তফসিল ঘোষণা করে কমিশন। এই ধাপে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ২৫ নভেম্বর। বাছাই ২৯ নভেম্বর। আপিল ৩০ নভেম্বর থেকে ২ ডিসেম্বর। আপিল নিষ্পত্তি ৩ ডিসেম্বর থেকে ৫ ডিসেম্বর। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ৬ ডিসেম্বর। প্রতীক বরাদ্দ ৭ ডিসেম্বর। এই ধাপে ৩৩টি ইউপিতে ইভিএমে ভোট গ্রহণ করা হবে।

ইতিমধ্যে চার ধাপে ইউপি ভোটের তফসিল ঘোষণা করেছে ইসি। প্রথম ধাপে ৩৬৯ এবং দ্বিতীয় ধাপে ৮৩৩টি ইউপিতে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। তৃতীয় ধাপে ১০০৩ ইউপিতে আগামী ২৮ নভেম্বর এবং চতুর্থ ধাপে ৮৪০ ইউপিতে ২৬ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। পঞ্চম ধাপের তফসিল ঘোষণার অপেক্ষায় রয়েছে।

এদিকে, আগামী ২ ডিসেম্বর থেকে সারাদেশে শুরু হচ্ছে উচ্চ মাধ্যমিক বা এইচএসসি পরীক্ষা। ২৩ ডিসেম্বর সকালে ভূগোল দ্বিতীয় পত্র এবং বিকেলে আরবি দ্বিতীয় পত্রের পরীক্ষা নেয়ার দিন-সময় নির্ধারিত রয়েছে। এর আগের দিন সকাল ও বিকেলে এ দু’টি বিষয়ের প্রথম পত্রের পরীক্ষা নেয়া হবে। ইসি সূত্র জানায়, এইচএসসি পরীক্ষার দিনে ভোটগ্রহণের তারিখের বিষয়টি নজরে এনে সম্প্রতি শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদার সঙ্গে কথা বলেন। তিনি পরীক্ষার বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে ভোটগ্রহণের তারিখ পরিবর্তনের জন্য প্রধান নির্বাচন কমিশনারকে অনুরোধ করেন। এরই পরিপ্রেক্ষিতে চতুর্থ ধাপের ইউপি নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তন করল ইসি।

বুধবার, ২৪ নভেম্বর ২০২১ , ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ ১৮ রবিউস সানি ১৪৪৩

এইচএসসি পরীক্ষার কারণে চতুর্থ ধাপে ইউপি ভোটের তারিখ পেছালো

উচ্চ মাধ্যমিক (এইচএসসি) পরীক্ষা ও নির্বাচনের তারিখ একই দিনে হওয়ায় চতুর্থ ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে ভোটগ্রহণের তারিখ তিন দিন পিছিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। আগামী ২৩ ডিসেম্বরের পরিবর্তে চতুর্থ ধাপে ৮৪০ ইউপিতে আগামী ২৬ ডিসেম্বর ভোটের নতুন তারিখ নির্ধারণ করেছে সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানটি।

ইসি’র অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ বলেন, ২৩ ডিসেম্বর এইচএসসি’র গুরুত্বপূর্ণ দুইটি পরীক্ষা রয়েছে। এই পরীক্ষা পিছানোর জন্য পর্যাপ্ত সময় না থাকায় শিক্ষামন্ত্রণালয় থেকে কমিশনে অনুরোধ করেছে যে, নির্বাচনের তারিখটি পরিবর্তন করা যায় কি না। কমিশন তাদের অনুরোধ বিবেচনায় নিয়ে ভোটের তারিখ পিছানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

ভোটের অন্যান্য তারিখ পরিবর্তন করা হয়েছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ভোটের অন্যান্য তারিখ আগের মতো একই থাকবে। শুধু ভোটগ্রহণের তারিখটি পরিবর্তন করা হয়েছে। এর আগে বুধবার (১০ নভেম্বর) চতুর্থ ধাপে ৮৪০ ইউপির ভোটের তফসিল ঘোষণা করে কমিশন। এই ধাপে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ২৫ নভেম্বর। বাছাই ২৯ নভেম্বর। আপিল ৩০ নভেম্বর থেকে ২ ডিসেম্বর। আপিল নিষ্পত্তি ৩ ডিসেম্বর থেকে ৫ ডিসেম্বর। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ৬ ডিসেম্বর। প্রতীক বরাদ্দ ৭ ডিসেম্বর। এই ধাপে ৩৩টি ইউপিতে ইভিএমে ভোট গ্রহণ করা হবে।

ইতিমধ্যে চার ধাপে ইউপি ভোটের তফসিল ঘোষণা করেছে ইসি। প্রথম ধাপে ৩৬৯ এবং দ্বিতীয় ধাপে ৮৩৩টি ইউপিতে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। তৃতীয় ধাপে ১০০৩ ইউপিতে আগামী ২৮ নভেম্বর এবং চতুর্থ ধাপে ৮৪০ ইউপিতে ২৬ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। পঞ্চম ধাপের তফসিল ঘোষণার অপেক্ষায় রয়েছে।

এদিকে, আগামী ২ ডিসেম্বর থেকে সারাদেশে শুরু হচ্ছে উচ্চ মাধ্যমিক বা এইচএসসি পরীক্ষা। ২৩ ডিসেম্বর সকালে ভূগোল দ্বিতীয় পত্র এবং বিকেলে আরবি দ্বিতীয় পত্রের পরীক্ষা নেয়ার দিন-সময় নির্ধারিত রয়েছে। এর আগের দিন সকাল ও বিকেলে এ দু’টি বিষয়ের প্রথম পত্রের পরীক্ষা নেয়া হবে। ইসি সূত্র জানায়, এইচএসসি পরীক্ষার দিনে ভোটগ্রহণের তারিখের বিষয়টি নজরে এনে সম্প্রতি শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদার সঙ্গে কথা বলেন। তিনি পরীক্ষার বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে ভোটগ্রহণের তারিখ পরিবর্তনের জন্য প্রধান নির্বাচন কমিশনারকে অনুরোধ করেন। এরই পরিপ্রেক্ষিতে চতুর্থ ধাপের ইউপি নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তন করল ইসি।