গণপরিবহনে প্রতিবন্ধীদের জন্য অর্ধেক ভাড়ার দাবি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের

গণপরিবহনে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অর্ধেক ভাড়ার দাবি জানিয়েছে সোসাইটি ফর দ্য চেঞ্জ অ্যান্ড অ্যাডভোকেসি নেক্সাস (বি-স্ক্যান) নামের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। এছাড়া তাদের জন্য বাসের নির্দিষ্ট সিট ও ‘অমানবিক আচরণ’ বন্ধের দাবি জানায় সংগঠনটি।

গতকাল রাজধানীর রামপুরা এলাকায় এক মানববন্ধনে তারা এই দাবি জানান। বাসে ‘হাফ ভাড়ার’ দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে সমর্থন জানিয়ে অবিলম্বে সড়ক পরিবহন আইনে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিসহ ছাত্র এবং বয়স্ক ব্যক্তিদের জন্য অর্ধেক ভাড়ার বিধান অন্তর্ভুক্ত করার আহ্বান জানায় সংগঠনটি।

মানববন্ধনে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সালমা মাহবুব বলেন, ‘দেড়শ বছর আগে করা ব্রিটিশ আমলের রেল আইনে প্রতিবন্ধীদের হাফ ভাড়ার বিধান রাখা হয়েছে এবং এখনও তা মানা হচ্ছে। ২০১৮ সালের সড়ক পরিবহন আইনে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিসহ প্রান্তিক মানুষদের রেয়াতি ভাড়া নির্ধারণের উল্লেখ থাকলেও তাতে সুস্পষ্ট বিধান রাখা হয়নি।’

তিনি জানান, ‘প্রতিবন্ধী মানুষ প্রতিদিনই চলাচলের ক্ষেত্রে নানা ধরনের বাধার মুখোমুখি হচ্ছেন এবং একজন সাধারণ মানুষের চেয়ে প্রতিবন্ধী ব্যক্তির চলার খরচও বেশি। সাধারণ মানুষের চেয়ে আমাদেরকে অনেক বেশি ব্যক্তিগত যানবাহন ব্যবহার করতে হয়। ফলে প্রতিবন্ধিতার কারণে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের যাতায়াতে অতিরিক্ত খরচ করতে হচ্ছে। বাসে সংরক্ষিত আসনে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অধিকার বাস্তবায়নে পরিবহন শ্রমিক এবং সহযাত্রীদের সহযোগিতা আহ্বান করে পরিবহন শ্রমিকদের প্রশিক্ষণে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অধিকারের ধারণা যুক্ত করার দাবি জানান তিনি।

এছাড়া গণপরিবহন বিষয়ক কমিটিগুলোতে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের মধ্য থেকে প্রতিনিধি রাখা এবং প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের উপযোগী গণপরিবহন নিশ্চিত করার দাবি জানিয়েছে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন বি-স্ক্যান। অনুষ্ঠানে সংগঠনটির সমন্বয়কারী ইফতেখার মাহমুদের সঞ্চালনায় একাধিক প্রতিবন্ধী ব্যক্তি বক্তব্য রাখেন।

বুধবার, ২৪ নভেম্বর ২০২১ , ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ ১৮ রবিউস সানি ১৪৪৩

গণপরিবহনে প্রতিবন্ধীদের জন্য অর্ধেক ভাড়ার দাবি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের

গণপরিবহনে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অর্ধেক ভাড়ার দাবি জানিয়েছে সোসাইটি ফর দ্য চেঞ্জ অ্যান্ড অ্যাডভোকেসি নেক্সাস (বি-স্ক্যান) নামের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। এছাড়া তাদের জন্য বাসের নির্দিষ্ট সিট ও ‘অমানবিক আচরণ’ বন্ধের দাবি জানায় সংগঠনটি।

গতকাল রাজধানীর রামপুরা এলাকায় এক মানববন্ধনে তারা এই দাবি জানান। বাসে ‘হাফ ভাড়ার’ দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে সমর্থন জানিয়ে অবিলম্বে সড়ক পরিবহন আইনে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিসহ ছাত্র এবং বয়স্ক ব্যক্তিদের জন্য অর্ধেক ভাড়ার বিধান অন্তর্ভুক্ত করার আহ্বান জানায় সংগঠনটি।

মানববন্ধনে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সালমা মাহবুব বলেন, ‘দেড়শ বছর আগে করা ব্রিটিশ আমলের রেল আইনে প্রতিবন্ধীদের হাফ ভাড়ার বিধান রাখা হয়েছে এবং এখনও তা মানা হচ্ছে। ২০১৮ সালের সড়ক পরিবহন আইনে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিসহ প্রান্তিক মানুষদের রেয়াতি ভাড়া নির্ধারণের উল্লেখ থাকলেও তাতে সুস্পষ্ট বিধান রাখা হয়নি।’

তিনি জানান, ‘প্রতিবন্ধী মানুষ প্রতিদিনই চলাচলের ক্ষেত্রে নানা ধরনের বাধার মুখোমুখি হচ্ছেন এবং একজন সাধারণ মানুষের চেয়ে প্রতিবন্ধী ব্যক্তির চলার খরচও বেশি। সাধারণ মানুষের চেয়ে আমাদেরকে অনেক বেশি ব্যক্তিগত যানবাহন ব্যবহার করতে হয়। ফলে প্রতিবন্ধিতার কারণে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের যাতায়াতে অতিরিক্ত খরচ করতে হচ্ছে। বাসে সংরক্ষিত আসনে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অধিকার বাস্তবায়নে পরিবহন শ্রমিক এবং সহযাত্রীদের সহযোগিতা আহ্বান করে পরিবহন শ্রমিকদের প্রশিক্ষণে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অধিকারের ধারণা যুক্ত করার দাবি জানান তিনি।

এছাড়া গণপরিবহন বিষয়ক কমিটিগুলোতে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের মধ্য থেকে প্রতিনিধি রাখা এবং প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের উপযোগী গণপরিবহন নিশ্চিত করার দাবি জানিয়েছে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন বি-স্ক্যান। অনুষ্ঠানে সংগঠনটির সমন্বয়কারী ইফতেখার মাহমুদের সঞ্চালনায় একাধিক প্রতিবন্ধী ব্যক্তি বক্তব্য রাখেন।