‘নতুন খেলোয়াড় আসা বন্ধ হয়ে গেছে বাংলাদেশ দলে’

আসাটা বন্ধ হয়ে গেছে বলে মনে করেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক ইনজামাম উল হক। টি-২০ বিশ^কাপে যাচ্ছেতাই পারফরমেন্সের পর, পাকিস্তানের কাছে সংক্ষিপ্ত সংস্করণের সিরিজে হোয়াইটওয়াশের পর বাংলাদেশের ক্রিকেট নিয়ে এমন মন্তব্য করেছেন ইনজি। তিনি জানান, বাংলাদেশের ক্রিকেটে নতুন খেলোয়াড় তৈরি বন্ধ হয়ে গেছে। অভিজ্ঞদের জায়গা পূরণ করতে পারছে না নতুনরা।

বাছাইপর্বে স্কটল্যান্ডের কাছে হার দিয়ে টি-২০ বিশ^কাপে যাত্রা শুরু করেছিল বাংলাদেশ। পরে বাছাইপর্বের শেষ দুই ম্যাচ জিতে সুপার টুয়েলভে উঠে। কিন্তু সেখানে আরও বাজে পারফরমেন্স প্রদর্শন করে বাংলাদেশ। পাঁচ ম্যাচের সবগুলোতেই হারে তারা। বিশ^কাপে বাজে পারফরমেন্সের দুঃস্মৃতি নিয়ে ঘরের মাঠে পাকিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজ খেলতে নামে বাংলাদেশ।

এই সিরিজ দিয়ে ঘুরে দাঁড়ানোর ভালো সুযোগ ছিল বাংলাদেশের। কারণ বিশ^কাপের আগে ঘরের মাঠের সুবিধা নিয়ে অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের মতো দলের বিপক্ষে সিরিজ জিতেছিল টাইগাররা। কিন্তু পাকিস্তানের কাছে সিরিজের তিন ম্যাচই হারে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশের এমন পারফরমেন্স দেখে হতবাক ইনজামাম। নিজের ইউটিউব চ্যানেলে ইনজি বলেন, ‘আমি যদি বাংলাদেশের দিক থেকে চিন্তা করি, তাদের কাছে এখনও ৩-৪ সেট খেলোয়াড় রয়েছে, যারা গত ৬-৭ বছর ধরে খেলছে এবং দলে অবদান রাখছে। তবু তারা নিজেদের উইকেট ভালো করেনি, কন্ডিশন ভালো করেনি, টুর্নামেন্টও ভালো করেনি। আমি দেখছি- তাদের নতুন খেলোয়াড় উঠে আসা বন্ধ হয়ে গেছে।’

পুরনো খেলোয়াড়রাই পারফর্ম করছে বলে মনে করেন ইনজামাম। তিনি বলেন, ‘পাঁচ-ছয় বছর আগে যেসব খেলোয়াড় দলে এসেছে, তারাই খেলছে। তখনকার খেলোয়াড়রাই ভালো করছে। নতুন খেলোয়াড়দের মধ্যে এমন পারফরমার নেই। সবই আগের খেলোয়াড়।

তিনি আরও বলেন, ‘দলের জন্য পুরনো খেলোয়াড়রাই অবদান রাখছে, তাদের মধ্যে কয়েকজন (সাকিব-মুশফিক) এই সিরিজে খেলেনি। আমি মনে করি বাংলাদেশের উচিত এই পরিস্থিতি নিয়ে চিন্তা করা এবং তাদের ক্রিকেটের উন্নতির দিকে নজর দেয়া।’

বিশ^কাপের খারাপ পারফরমেন্স থেকে বাংলাদেশ কিছু শিখবে বলে মনে করেছিলেন ইনজামাম। কিন্তু সেই ছাপ পাননি তিনি, ‘আমি আশা করেছিলাম, নিজেদের মাঠে বাংলাদেশ আরও কঠিন পরীক্ষা নিবে প্রতিপক্ষের। ভেবেছিলাম, বিশ্বকাপের বাজে পারফরমেন্স থেকে তারা হয়তো কিছু শিখেছে, কিন্তু তেমন কোন পরিবর্তন দেখা যায়নি।’

তিনি আরও বলেন, ‘বিশ্বকাপে তাদের কোথাও ভালো করতে দেখা যায়নি। এর পেছনে প্রধান কারণ, দেশে একেবারে বাজে পিচ তৈরি করেছে তারা। এমনকি খেলোয়াড়দের শুধুমাত্র বাংলাদেশে ম্যাচ জয়ের জন্য সন্তুষ্ট হবার সুযোগ দেয় না। এটা দেখে আমি খুবই হতাশ।’

বুধবার, ২৪ নভেম্বর ২০২১ , ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ ১৮ রবিউস সানি ১৪৪৩

‘নতুন খেলোয়াড় আসা বন্ধ হয়ে গেছে বাংলাদেশ দলে’

আসাটা বন্ধ হয়ে গেছে বলে মনে করেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক ইনজামাম উল হক। টি-২০ বিশ^কাপে যাচ্ছেতাই পারফরমেন্সের পর, পাকিস্তানের কাছে সংক্ষিপ্ত সংস্করণের সিরিজে হোয়াইটওয়াশের পর বাংলাদেশের ক্রিকেট নিয়ে এমন মন্তব্য করেছেন ইনজি। তিনি জানান, বাংলাদেশের ক্রিকেটে নতুন খেলোয়াড় তৈরি বন্ধ হয়ে গেছে। অভিজ্ঞদের জায়গা পূরণ করতে পারছে না নতুনরা।

বাছাইপর্বে স্কটল্যান্ডের কাছে হার দিয়ে টি-২০ বিশ^কাপে যাত্রা শুরু করেছিল বাংলাদেশ। পরে বাছাইপর্বের শেষ দুই ম্যাচ জিতে সুপার টুয়েলভে উঠে। কিন্তু সেখানে আরও বাজে পারফরমেন্স প্রদর্শন করে বাংলাদেশ। পাঁচ ম্যাচের সবগুলোতেই হারে তারা। বিশ^কাপে বাজে পারফরমেন্সের দুঃস্মৃতি নিয়ে ঘরের মাঠে পাকিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজ খেলতে নামে বাংলাদেশ।

এই সিরিজ দিয়ে ঘুরে দাঁড়ানোর ভালো সুযোগ ছিল বাংলাদেশের। কারণ বিশ^কাপের আগে ঘরের মাঠের সুবিধা নিয়ে অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের মতো দলের বিপক্ষে সিরিজ জিতেছিল টাইগাররা। কিন্তু পাকিস্তানের কাছে সিরিজের তিন ম্যাচই হারে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশের এমন পারফরমেন্স দেখে হতবাক ইনজামাম। নিজের ইউটিউব চ্যানেলে ইনজি বলেন, ‘আমি যদি বাংলাদেশের দিক থেকে চিন্তা করি, তাদের কাছে এখনও ৩-৪ সেট খেলোয়াড় রয়েছে, যারা গত ৬-৭ বছর ধরে খেলছে এবং দলে অবদান রাখছে। তবু তারা নিজেদের উইকেট ভালো করেনি, কন্ডিশন ভালো করেনি, টুর্নামেন্টও ভালো করেনি। আমি দেখছি- তাদের নতুন খেলোয়াড় উঠে আসা বন্ধ হয়ে গেছে।’

পুরনো খেলোয়াড়রাই পারফর্ম করছে বলে মনে করেন ইনজামাম। তিনি বলেন, ‘পাঁচ-ছয় বছর আগে যেসব খেলোয়াড় দলে এসেছে, তারাই খেলছে। তখনকার খেলোয়াড়রাই ভালো করছে। নতুন খেলোয়াড়দের মধ্যে এমন পারফরমার নেই। সবই আগের খেলোয়াড়।

তিনি আরও বলেন, ‘দলের জন্য পুরনো খেলোয়াড়রাই অবদান রাখছে, তাদের মধ্যে কয়েকজন (সাকিব-মুশফিক) এই সিরিজে খেলেনি। আমি মনে করি বাংলাদেশের উচিত এই পরিস্থিতি নিয়ে চিন্তা করা এবং তাদের ক্রিকেটের উন্নতির দিকে নজর দেয়া।’

বিশ^কাপের খারাপ পারফরমেন্স থেকে বাংলাদেশ কিছু শিখবে বলে মনে করেছিলেন ইনজামাম। কিন্তু সেই ছাপ পাননি তিনি, ‘আমি আশা করেছিলাম, নিজেদের মাঠে বাংলাদেশ আরও কঠিন পরীক্ষা নিবে প্রতিপক্ষের। ভেবেছিলাম, বিশ্বকাপের বাজে পারফরমেন্স থেকে তারা হয়তো কিছু শিখেছে, কিন্তু তেমন কোন পরিবর্তন দেখা যায়নি।’

তিনি আরও বলেন, ‘বিশ্বকাপে তাদের কোথাও ভালো করতে দেখা যায়নি। এর পেছনে প্রধান কারণ, দেশে একেবারে বাজে পিচ তৈরি করেছে তারা। এমনকি খেলোয়াড়দের শুধুমাত্র বাংলাদেশে ম্যাচ জয়ের জন্য সন্তুষ্ট হবার সুযোগ দেয় না। এটা দেখে আমি খুবই হতাশ।’