কিউইদের বিপক্ষে ভারতের দ্বিতীয় সারির দল

ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপের ফাইনালে সাউদাম্পটনে নিউজিল্যান্ডের কাছে পরাজিত হয়েছিলো ভারতীয় ক্রিকেট দল। এরপর কিউইরা সদ্য সমাপ্ত টি-২০ বিশ্বকাপের ফাইনালে খেললেও ভারতীয়রা উঠতে পারেনি সেমিতেই। কিন্তু ঘরের মাঠে রোহিত শর্মার নেতৃত্বে ম্যান ইন ব্লুজ’রা তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজে ব্ল্যাক ক্যাপসদের দাপটের সঙ্গেই হোয়াইটওয়াশ করেছে। এবার নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট লড়াইয়ে নামছে ভারত। আজ বৃহস্পতিবার সকাল দশটায় কানপুরে সিরিজের প্রথম ম্যাচে মাঠে নামার সময়ে ভারতের মিশনটা হবে প্রতিশোধের। যদিও ভারতীয় দল পাচ্ছেনা নিয়মিত অধিনায়ক বিরাট কোহলি, নিয়মিত ওপেনার রোহিত শর্মা, লোকেশ রাহুল ও ঋষভ পন্টের সেবা। আজিঙ্কা রাহানের নেতৃত্বে আসলে দ্বিতীয় সারির ভারতীয় দল নিউজিল্যান্ডের মোকাবেলা করবে।

দুই দলের মধ্যে র‌্যাংকিংয়ে এগিয়ে নিউজিল্যান্ড। কাজেই টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপের দ্বিতীয়বারের অভিযানটাতে কিউইরা একেবারে ছেড়ে কথা বলবেনা।

নিউজিল্যান্ডের জন্য আশার কথা হলো ভারতের বিপক্ষে টি-২০ সিরিজে বিশ্রামে থাকা অধিনায়ক কেইন উইলিয়ামসন দলে ফিরেছেন। গত ১৪ নভেম্বর অনুষ্ঠিত টি-২০ বিশ^কাপের  ফাইনাল খেলেই ভারতের উদ্দেশে উড়াল দেয় নিউজিল্যান্ড। এরপর পাঁচ দিনের ব্যবধানে ভারতের বিপক্ষে তিনটি টি-২০ ম্যাচ খেলে কিউইরা। টি-২০ সিরিজের পরই টেস্ট সিরিজের ব্যস্ত সূচি থাকায় উইলিয়ামসনকে বিশ্রাম দেয়া হয়েছিলো।

এদিকে তবে ঘরের মাঠে নিউজিল্যান্ডকে টি-২০ সিরিজে হোয়াইটওয়াশ করার পরও শিষ্যদের অতিমাত্রায় আত্মবিশ্বাসী হতে নিষেধ করেছেন ভারতের নবনিযুক্ত প্রধান কোচ রাহুল দ্রাবিড়। তিনি বলেন, আমাদের পা মাটিতে রাখতে হবে, জয়ের ব্যাপারে বাস্তববাদী হতে হবে।

কানপুর টেস্ট দিয়ে আবারো ক্রিকেটে ফিরছেন নিউজিল্যান্ডের অভিজ্ঞ ব্যাটার রস টেইলর। পাঁচ মাস আগে হওয়া বিশ^ টেস্ট ফাইনালের পর প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরেছেন তিনি। তার মতে, টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের মুকুট ধরে রাখা চ্যালেঞ্জিং হবে।

ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে টেইলর বলেন, আমরা দীর্ঘদিন ধরে আন্ডারডগ ছিলাম, কিন্তু এখন আমরা চ্যাম্পিয়ন দল।

৩৭ বছর বয়সী টেইলর আরও বলেন,  কিন্তু ভারতের মাঠে খেলার সময়ে নিজেদের আন্ডারডগই ভাবতে হয়, তা র‌্যাংকিংয়ে এক নম্বর বা আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে কোনো সফরকারী দলের যে অবস্থানই হোক না কেনো। ভারত বেশ কিছু খেলোয়াড়কে বিশ্রামে দিয়েছে, তারপরও তারা শক্তিশালী দল। এই অবস্থায় তারা সত্যিই ভালোভাবে জানে।

বৃহস্পতিবার, ২৫ নভেম্বর ২০২১ , ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ ১৯ রবিউস সানি ১৪৪৩

আজ কানপুরে প্রথম টেস্ট

কিউইদের বিপক্ষে ভারতের দ্বিতীয় সারির দল

ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপের ফাইনালে সাউদাম্পটনে নিউজিল্যান্ডের কাছে পরাজিত হয়েছিলো ভারতীয় ক্রিকেট দল। এরপর কিউইরা সদ্য সমাপ্ত টি-২০ বিশ্বকাপের ফাইনালে খেললেও ভারতীয়রা উঠতে পারেনি সেমিতেই। কিন্তু ঘরের মাঠে রোহিত শর্মার নেতৃত্বে ম্যান ইন ব্লুজ’রা তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজে ব্ল্যাক ক্যাপসদের দাপটের সঙ্গেই হোয়াইটওয়াশ করেছে। এবার নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট লড়াইয়ে নামছে ভারত। আজ বৃহস্পতিবার সকাল দশটায় কানপুরে সিরিজের প্রথম ম্যাচে মাঠে নামার সময়ে ভারতের মিশনটা হবে প্রতিশোধের। যদিও ভারতীয় দল পাচ্ছেনা নিয়মিত অধিনায়ক বিরাট কোহলি, নিয়মিত ওপেনার রোহিত শর্মা, লোকেশ রাহুল ও ঋষভ পন্টের সেবা। আজিঙ্কা রাহানের নেতৃত্বে আসলে দ্বিতীয় সারির ভারতীয় দল নিউজিল্যান্ডের মোকাবেলা করবে।

দুই দলের মধ্যে র‌্যাংকিংয়ে এগিয়ে নিউজিল্যান্ড। কাজেই টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপের দ্বিতীয়বারের অভিযানটাতে কিউইরা একেবারে ছেড়ে কথা বলবেনা।

নিউজিল্যান্ডের জন্য আশার কথা হলো ভারতের বিপক্ষে টি-২০ সিরিজে বিশ্রামে থাকা অধিনায়ক কেইন উইলিয়ামসন দলে ফিরেছেন। গত ১৪ নভেম্বর অনুষ্ঠিত টি-২০ বিশ^কাপের  ফাইনাল খেলেই ভারতের উদ্দেশে উড়াল দেয় নিউজিল্যান্ড। এরপর পাঁচ দিনের ব্যবধানে ভারতের বিপক্ষে তিনটি টি-২০ ম্যাচ খেলে কিউইরা। টি-২০ সিরিজের পরই টেস্ট সিরিজের ব্যস্ত সূচি থাকায় উইলিয়ামসনকে বিশ্রাম দেয়া হয়েছিলো।

এদিকে তবে ঘরের মাঠে নিউজিল্যান্ডকে টি-২০ সিরিজে হোয়াইটওয়াশ করার পরও শিষ্যদের অতিমাত্রায় আত্মবিশ্বাসী হতে নিষেধ করেছেন ভারতের নবনিযুক্ত প্রধান কোচ রাহুল দ্রাবিড়। তিনি বলেন, আমাদের পা মাটিতে রাখতে হবে, জয়ের ব্যাপারে বাস্তববাদী হতে হবে।

কানপুর টেস্ট দিয়ে আবারো ক্রিকেটে ফিরছেন নিউজিল্যান্ডের অভিজ্ঞ ব্যাটার রস টেইলর। পাঁচ মাস আগে হওয়া বিশ^ টেস্ট ফাইনালের পর প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরেছেন তিনি। তার মতে, টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের মুকুট ধরে রাখা চ্যালেঞ্জিং হবে।

ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে টেইলর বলেন, আমরা দীর্ঘদিন ধরে আন্ডারডগ ছিলাম, কিন্তু এখন আমরা চ্যাম্পিয়ন দল।

৩৭ বছর বয়সী টেইলর আরও বলেন,  কিন্তু ভারতের মাঠে খেলার সময়ে নিজেদের আন্ডারডগই ভাবতে হয়, তা র‌্যাংকিংয়ে এক নম্বর বা আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে কোনো সফরকারী দলের যে অবস্থানই হোক না কেনো। ভারত বেশ কিছু খেলোয়াড়কে বিশ্রামে দিয়েছে, তারপরও তারা শক্তিশালী দল। এই অবস্থায় তারা সত্যিই ভালোভাবে জানে।