শেয়ারবাজারে বড় উত্থান

ধীরে ধীরে চাঙ্গা হচ্ছে দেশের শেয়ারবাজার। এর ধারাবাহিকতায় গতকালও বড় উত্থানে শেষ হয়েছে শেয়ারবাজারের লেনদেন। এদিন উভয় শেয়ারবাজারের সব সূচক বেড়েছে। দেশের সবচেয়ে বড় শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) টাকার পরিমাণে লেনদেন কিছুটা কমলেও ২ হাজার কোটি টাকার ওপরেই রয়েছে। এদিন শুধু উত্থানই নয় ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) বাজার মূলধনে রেকর্ড গড়েছে। গতকাল ডিএসইতে বাজার মূলধন ডিএসই’র ইতিহাসে সর্বোচ্চ পর্যায়ে অর্থাৎ পাঁচ লাখ ১ হাজার কোটি টাকার ঘরে পৌঁছেছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই) সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, গতকাল ডিএসইর বাজার মূলধন ৫ লাখ ১ হাজার ৭০৯ কোটি ৬৪ লাখ ৮০ হাজার টাকা পৌঁছায় যা ডিএসই’র ইতিহাসে সর্বোচ্চ। গতকাল বাজার মূলধন ১১ হাজার ৩৯৩ কোটি ৩৭ লাখ ৫২ হাজার টাকা বেড়েছে। গত বুধবার ডিএসইতে বাজার মূলধন ছিল ৪ লাখ ৯০ হাজার ৩১৬ কোটি ৩৭ লাখ ৫২ হাজার টাকার। এর আগে ১২ জানুয়ারি বাজার মূলধন ১২ হাজার ৫০০ কোটি ৬ লাখ ৮৬ হাজার টাকা বেড়ে ৪ লাখ ৯৩ হাজার ৭৫১ কোটি ১২ লাখ ৯৪ হাজার টাকায় পৌঁছায়। এদিনটিও বাজার মূলধন রেকর্ড পরিমাণে অবস্থান করে। আগের দিন অর্থাৎ ১১ জানুয়ারি বাজার মূলধন ছিল ৪ লাখ ৮১ হাজার ২৫১ কোটি ৬ লাখ ৮ হাজার টাকায়।

জানা গেছে, গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ১৩৯.৩০ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ৯০৯.৩০ পয়েন্টে। ডিএসইর এই সূচকটি ১ বছর ১১ মাস ১৫ দিন বা সাড়ে ২৩ মাস বা ৪৩৩ কার্যদিবস পর ৫ হাজার ৯০০ পয়েন্ট অতিক্রম করল। এর আগে সর্বশেষ ২০১৯ সালের ২৯ জানুয়ারি সূচকটি ৫ হাজার ৯২৪ পয়েন্টে অবস্থান করছিল। ডিএসইর অপর সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ২১.৮৭ পয়েন্ট, ডিএসই-৩০ সূচক ৭৬.৮৯ পয়েন্ট এবং সিডিএসইটি সূচক ১২.১৮ বেড়ে দাড়িয়েছে যথাক্রমে ১৩২৩.৫০ পয়েন্টে, ২২৩৬.৭৭ পয়েন্টে এবং ১২৭৬.৩০ পয়েন্টে।

গতকাল ডিএসইতে ২ হাজার ৭০ কোটি ৮৫ লাখ টাকা লেনদেন হয়েছে যা আগের দিন থেকে ৩৭ কোটি ৬৪ লাখ টাকা কম। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ২ হাজার ১০৮ কোটি ৪৯ লাখ টাকার। ডিএসইতে গতকাল ৩৬২টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ১৫৯টির বা ৪৩.৯২ শতাংশের, শেয়ার দর কমেছে ১৩৩টির বা ৩৬.৭৪ শতাংশের এবং ৭০টির বা ১৯.৩৩ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর অপরিবর্তিত রয়েছে।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৪২২.৯০ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৭ হাজার ২১৯.৯৮ পয়েন্টে। সিএসইতে গতকাল ২৮৬টি প্রতিষ্ঠান লেনদেনে অংশ নিয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১৩৭টির দর বেড়েছে, কমেছে ১০৭টির আর ৪২টির দর অপরিবর্তিত রয়েছে। সিএসইতে ৮৩ কোটি ৭৭ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

গতকাল ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্লক মার্কেট ২৮টি প্রতিষ্ঠান লেনদেনে অংশ নিয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের সাড়ে ১৬ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর ৪৫ লাখ ৩০ হাজার ৩৯১টি শেয়ার ৭৩ বার হাত বদল হয়েছে। এর মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানগুলোর ১৬ কোটি ৫১ লাখ ৭২ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি অর্থাৎ ২ কোটি ২৩ লাখ ৯০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে এসএস স্টিলের। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২ কোটি ১১ লাখ ১২ হাজার টাকার সিঙ্গারবিডির এবং তৃতীয় সর্বোচ্চ ১ কোটি ৯৬ লাখ ৪৫ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে মতিন স্পিনিংয়ের।

এছাড়া অ্যাডভেন্ট ফার্মার ১৭ লাখ ৭০ হাজার টাকার, আমান ফিডের ১৬ লাখ ৫০ হাজার টাকার, অ্যাসাসিয়েটেড অক্সিজেনের ১৮ লাখ ২০ হাজার টাকার, এপেক্স ফুডসের ১০ লাখ ৮৮ হাজার টাকার, বিডি ফাইন্যান্সের ১ কোটি ৪৪ লাখ ৫৫ হাজার টাকার, বিডি থাইয়ের ২৮ লাখ ৪০ হাজার টাকার, বেক্সিমকোর ১ কোটি ১৫ লাখ ৮৫ হাজার টাকার, বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবলের ৫ লাখ ১০ হাজার টাকার, সিটি ব্যাংকের ৪৫ লাখ ৮০ হাজার টাকার, কনফিডেন্স সিমেন্টের ৫ লাখ ৯৯ হাজার টাকার, ডিবিএইচের ৫ লাখ টাকার, জিবিবি পাওয়ারের ৫ লাখ ২৭ হাজার টাকার, গ্রামীণফোনের ৪৪ লাখ ৬৫ হাজার টাকার, লংকাবাংলা ফাইন্যান্সের ৭৬ লাখ ৮ হাজার টাকার, এমএল ডাইংয়ের ১ কোটি ৮ লাখ ৮২ হাজার টাকার, এনসিসি ব্যাংকের ২৭ লাখ ৪০ হাজার টাকার, ন্যাশনাল পলিমারের ৪৩ লাখ ৩৩ হাজার টাকার, ফনিক্স ফাইন্যান্সের ৫৫ লাখ ৮০ হাজার টাকার, পপুলার লাইফ ইন্স্যুরেন্সের ৫ লাখ ৭ হাজার টাকার, রিপাবলিক ইন্স্যুরেন্সের ১০ লাখ ৩৬ হাজার টাকার, রবির ৮৪ লাখ ৪৭ হাজার টাকার, সাইফ পাওয়ারটেকের ১২ লাখ ২৫ হাজার টাকার, এসকে ট্রিমসের ৪৭ লাখ ৯৫ হাজার টাকার, সোনারগাঁও টেক্সটাইলের ৫ লাখ ৩৩ হাজার টাকার এবং ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকের ৭৯ লাখ ৫০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

শুক্রবার, ১৫ জানুয়ারী ২০২১ , ১ মাঘ ১৪২৭, ১ জমাদিউস সানি ১৪৪২

শেয়ারবাজারে বড় উত্থান

ধীরে ধীরে চাঙ্গা হচ্ছে দেশের শেয়ারবাজার। এর ধারাবাহিকতায় গতকালও বড় উত্থানে শেষ হয়েছে শেয়ারবাজারের লেনদেন। এদিন উভয় শেয়ারবাজারের সব সূচক বেড়েছে। দেশের সবচেয়ে বড় শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) টাকার পরিমাণে লেনদেন কিছুটা কমলেও ২ হাজার কোটি টাকার ওপরেই রয়েছে। এদিন শুধু উত্থানই নয় ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) বাজার মূলধনে রেকর্ড গড়েছে। গতকাল ডিএসইতে বাজার মূলধন ডিএসই’র ইতিহাসে সর্বোচ্চ পর্যায়ে অর্থাৎ পাঁচ লাখ ১ হাজার কোটি টাকার ঘরে পৌঁছেছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই) সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, গতকাল ডিএসইর বাজার মূলধন ৫ লাখ ১ হাজার ৭০৯ কোটি ৬৪ লাখ ৮০ হাজার টাকা পৌঁছায় যা ডিএসই’র ইতিহাসে সর্বোচ্চ। গতকাল বাজার মূলধন ১১ হাজার ৩৯৩ কোটি ৩৭ লাখ ৫২ হাজার টাকা বেড়েছে। গত বুধবার ডিএসইতে বাজার মূলধন ছিল ৪ লাখ ৯০ হাজার ৩১৬ কোটি ৩৭ লাখ ৫২ হাজার টাকার। এর আগে ১২ জানুয়ারি বাজার মূলধন ১২ হাজার ৫০০ কোটি ৬ লাখ ৮৬ হাজার টাকা বেড়ে ৪ লাখ ৯৩ হাজার ৭৫১ কোটি ১২ লাখ ৯৪ হাজার টাকায় পৌঁছায়। এদিনটিও বাজার মূলধন রেকর্ড পরিমাণে অবস্থান করে। আগের দিন অর্থাৎ ১১ জানুয়ারি বাজার মূলধন ছিল ৪ লাখ ৮১ হাজার ২৫১ কোটি ৬ লাখ ৮ হাজার টাকায়।

জানা গেছে, গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ১৩৯.৩০ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ৯০৯.৩০ পয়েন্টে। ডিএসইর এই সূচকটি ১ বছর ১১ মাস ১৫ দিন বা সাড়ে ২৩ মাস বা ৪৩৩ কার্যদিবস পর ৫ হাজার ৯০০ পয়েন্ট অতিক্রম করল। এর আগে সর্বশেষ ২০১৯ সালের ২৯ জানুয়ারি সূচকটি ৫ হাজার ৯২৪ পয়েন্টে অবস্থান করছিল। ডিএসইর অপর সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ২১.৮৭ পয়েন্ট, ডিএসই-৩০ সূচক ৭৬.৮৯ পয়েন্ট এবং সিডিএসইটি সূচক ১২.১৮ বেড়ে দাড়িয়েছে যথাক্রমে ১৩২৩.৫০ পয়েন্টে, ২২৩৬.৭৭ পয়েন্টে এবং ১২৭৬.৩০ পয়েন্টে।

গতকাল ডিএসইতে ২ হাজার ৭০ কোটি ৮৫ লাখ টাকা লেনদেন হয়েছে যা আগের দিন থেকে ৩৭ কোটি ৬৪ লাখ টাকা কম। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ২ হাজার ১০৮ কোটি ৪৯ লাখ টাকার। ডিএসইতে গতকাল ৩৬২টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ১৫৯টির বা ৪৩.৯২ শতাংশের, শেয়ার দর কমেছে ১৩৩টির বা ৩৬.৭৪ শতাংশের এবং ৭০টির বা ১৯.৩৩ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর অপরিবর্তিত রয়েছে।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৪২২.৯০ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৭ হাজার ২১৯.৯৮ পয়েন্টে। সিএসইতে গতকাল ২৮৬টি প্রতিষ্ঠান লেনদেনে অংশ নিয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১৩৭টির দর বেড়েছে, কমেছে ১০৭টির আর ৪২টির দর অপরিবর্তিত রয়েছে। সিএসইতে ৮৩ কোটি ৭৭ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

গতকাল ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্লক মার্কেট ২৮টি প্রতিষ্ঠান লেনদেনে অংশ নিয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের সাড়ে ১৬ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর ৪৫ লাখ ৩০ হাজার ৩৯১টি শেয়ার ৭৩ বার হাত বদল হয়েছে। এর মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানগুলোর ১৬ কোটি ৫১ লাখ ৭২ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি অর্থাৎ ২ কোটি ২৩ লাখ ৯০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে এসএস স্টিলের। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২ কোটি ১১ লাখ ১২ হাজার টাকার সিঙ্গারবিডির এবং তৃতীয় সর্বোচ্চ ১ কোটি ৯৬ লাখ ৪৫ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে মতিন স্পিনিংয়ের।

এছাড়া অ্যাডভেন্ট ফার্মার ১৭ লাখ ৭০ হাজার টাকার, আমান ফিডের ১৬ লাখ ৫০ হাজার টাকার, অ্যাসাসিয়েটেড অক্সিজেনের ১৮ লাখ ২০ হাজার টাকার, এপেক্স ফুডসের ১০ লাখ ৮৮ হাজার টাকার, বিডি ফাইন্যান্সের ১ কোটি ৪৪ লাখ ৫৫ হাজার টাকার, বিডি থাইয়ের ২৮ লাখ ৪০ হাজার টাকার, বেক্সিমকোর ১ কোটি ১৫ লাখ ৮৫ হাজার টাকার, বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবলের ৫ লাখ ১০ হাজার টাকার, সিটি ব্যাংকের ৪৫ লাখ ৮০ হাজার টাকার, কনফিডেন্স সিমেন্টের ৫ লাখ ৯৯ হাজার টাকার, ডিবিএইচের ৫ লাখ টাকার, জিবিবি পাওয়ারের ৫ লাখ ২৭ হাজার টাকার, গ্রামীণফোনের ৪৪ লাখ ৬৫ হাজার টাকার, লংকাবাংলা ফাইন্যান্সের ৭৬ লাখ ৮ হাজার টাকার, এমএল ডাইংয়ের ১ কোটি ৮ লাখ ৮২ হাজার টাকার, এনসিসি ব্যাংকের ২৭ লাখ ৪০ হাজার টাকার, ন্যাশনাল পলিমারের ৪৩ লাখ ৩৩ হাজার টাকার, ফনিক্স ফাইন্যান্সের ৫৫ লাখ ৮০ হাজার টাকার, পপুলার লাইফ ইন্স্যুরেন্সের ৫ লাখ ৭ হাজার টাকার, রিপাবলিক ইন্স্যুরেন্সের ১০ লাখ ৩৬ হাজার টাকার, রবির ৮৪ লাখ ৪৭ হাজার টাকার, সাইফ পাওয়ারটেকের ১২ লাখ ২৫ হাজার টাকার, এসকে ট্রিমসের ৪৭ লাখ ৯৫ হাজার টাকার, সোনারগাঁও টেক্সটাইলের ৫ লাখ ৩৩ হাজার টাকার এবং ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকের ৭৯ লাখ ৫০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।