ভারতে সেরামে আগুনে মৃত্যু ৫ উৎপাদনে কোন ক্ষতি হয়নি

ভারতের ভ্যাকসিন উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান সেরাম ইনস্টিটিউটের কাছাকাছি ভবনে লাগা আগুনে ৫ জন মারা গেছেন। বৃহস্পতিবার দেশটির পুনেতে অবস্থিত এই প্রতিষ্ঠানের নির্মাণাধীন একটি ভবনে এই অগ্নিকা-ের ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে এনডিটিভি। তবে কোভিশিল্ড টিকা উৎপাদনের কোন ক্ষতি হয়নি। সেরামের তরফে জানানো হয়েছে, যেখানে আগুন লেগেছে, সেখান থেকে অনেকটা দূরে করোনাভাইরাস টিকা তৈরি করার পাশাপাশি মজুত রাখা হয়।

গতকাল দুপুরের দিকে সেরামের মঞ্জরির কারখানার পঞ্চম তলায় আগুন লাগে। ঘন কালো ধোঁয়া বেরোতে থাকে। ধোঁয়ায় ঢেকে যায় আশপাশের এলাকা। সেই খবর ছড়িয়ে পড়তেই স্বভাবতই আতঙ্ক তৈরি হয়। একটি টুইট বার্তায় সেরাম ইনস্টিটিউটের প্রধান কর্মকর্তা আদর পুনাওয়ালা জানান, আগুনে কয়েকটি ফ্লোর ভস্মীভূত হয়ে গেছে।

তিনি বলেন, সরকার এবং মানুষকে আমি আশ্বস্ত করতে চাইছি যে একাধিক কারখানার জন্য কোভিশিল্ডের উৎপাদনের ক্ষেত্রে কোনও ক্ষতি হবে না। এরকম পরিস্থিতি সামলানোর জন্য সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়ায় আরও কয়েকটি সংরক্ষণ স্থান প্রস্তুত রেখেছিলাম। অক্সফোর্ড ও অ্যাস্ট্রাজেনকার উদ্ভাবিত করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন উৎপাদন করছে সেরাম ইনস্টিটিউট। অগ্নিকা-ের ঘটনায় ভ্যাকসিন উৎপাদনে কোন ব্যাঘাত ঘটবে না বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। এনডিটিভি বলছে, বৃহৎ এই প্রতিষ্ঠানটি ১০০ একর জায়গার ওপর তৈরি। নির্মাণাধীন একটি ভবনে এই আগুনের ঘটনাটি ঘটেছে। ওই ভবনের কাছেই চলছে করোনা ভ্যাকসিন উৎপাদনের কাজ। এই ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোন হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। ভারতের বিভিন্ন গণমাধ্যমের ভিডিওতে দেখা গেছে, কালো ধোঁয়ায় আকাশ ছেয়ে আছে। দমকল কর্মীরা দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার তৎপরতার শুরু করেন। ঐ ভবনে আটকেপড়া পাঁচজনকে উদ্ধার করা হয়েছে। পুনেতে বিশ্বের সবচেয়ে বড় এই টিকা উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানটিতে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে ব্যাপক প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে বলে জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম।

শুক্রবার, ২২ জানুয়ারী ২০২১ , ৮ মাঘ ১৪২৭, ৮ জমাদিউস সানি ১৪৪২

ভারতে সেরামে আগুনে মৃত্যু ৫ উৎপাদনে কোন ক্ষতি হয়নি

ভারতের ভ্যাকসিন উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান সেরাম ইনস্টিটিউটের কাছাকাছি ভবনে লাগা আগুনে ৫ জন মারা গেছেন। বৃহস্পতিবার দেশটির পুনেতে অবস্থিত এই প্রতিষ্ঠানের নির্মাণাধীন একটি ভবনে এই অগ্নিকা-ের ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে এনডিটিভি। তবে কোভিশিল্ড টিকা উৎপাদনের কোন ক্ষতি হয়নি। সেরামের তরফে জানানো হয়েছে, যেখানে আগুন লেগেছে, সেখান থেকে অনেকটা দূরে করোনাভাইরাস টিকা তৈরি করার পাশাপাশি মজুত রাখা হয়।

গতকাল দুপুরের দিকে সেরামের মঞ্জরির কারখানার পঞ্চম তলায় আগুন লাগে। ঘন কালো ধোঁয়া বেরোতে থাকে। ধোঁয়ায় ঢেকে যায় আশপাশের এলাকা। সেই খবর ছড়িয়ে পড়তেই স্বভাবতই আতঙ্ক তৈরি হয়। একটি টুইট বার্তায় সেরাম ইনস্টিটিউটের প্রধান কর্মকর্তা আদর পুনাওয়ালা জানান, আগুনে কয়েকটি ফ্লোর ভস্মীভূত হয়ে গেছে।

তিনি বলেন, সরকার এবং মানুষকে আমি আশ্বস্ত করতে চাইছি যে একাধিক কারখানার জন্য কোভিশিল্ডের উৎপাদনের ক্ষেত্রে কোনও ক্ষতি হবে না। এরকম পরিস্থিতি সামলানোর জন্য সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়ায় আরও কয়েকটি সংরক্ষণ স্থান প্রস্তুত রেখেছিলাম। অক্সফোর্ড ও অ্যাস্ট্রাজেনকার উদ্ভাবিত করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন উৎপাদন করছে সেরাম ইনস্টিটিউট। অগ্নিকা-ের ঘটনায় ভ্যাকসিন উৎপাদনে কোন ব্যাঘাত ঘটবে না বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। এনডিটিভি বলছে, বৃহৎ এই প্রতিষ্ঠানটি ১০০ একর জায়গার ওপর তৈরি। নির্মাণাধীন একটি ভবনে এই আগুনের ঘটনাটি ঘটেছে। ওই ভবনের কাছেই চলছে করোনা ভ্যাকসিন উৎপাদনের কাজ। এই ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোন হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। ভারতের বিভিন্ন গণমাধ্যমের ভিডিওতে দেখা গেছে, কালো ধোঁয়ায় আকাশ ছেয়ে আছে। দমকল কর্মীরা দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার তৎপরতার শুরু করেন। ঐ ভবনে আটকেপড়া পাঁচজনকে উদ্ধার করা হয়েছে। পুনেতে বিশ্বের সবচেয়ে বড় এই টিকা উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানটিতে লাগা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে ব্যাপক প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে বলে জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম।