এই দুঃসময়ে দেশপ্রেমে উজ্জীবিত হতে হবে

সারা বিশ্ব এক অদৃশ্য মহামারির সঙ্গে যুদ্ধ করছে। গতবছর মহামারীর প্রথম ঢেউ আঘাত হানার পর এ বছর দ্বিতীয় ঢেউ আবারও সবকিছু তছনছ করে দিচ্ছে। আমরাও এর থেকে বিচ্ছিন্ন না। আমরা দেখতে পাই পৃথিবীর অনেক দেশের স্বাস্থ্যকর্মীরা প্রবল উৎসাহ ও ঝুঁকি নিয়ে লড়াই করে যাচ্ছেন। শুধু স্বাস্থ্যকর্মীরা নয়, করোনা যুদ্ধের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট আরও অনেকে। সৈনিক, পুলিশ, সমাজকর্মী, সেচ্ছাসেবী ও আরও অনেকে। তাদেরও স্বাস্থ্য সুরক্ষার উপাদানের যথেষ্ট অভাব থাকার পরও তারা থেমে যাননি, তারা দমে যাননি, তারা আরও দেশপ্রেমের উদ্দীপনা নিয়ে স্বাস্থ্য সেবা দিয়ে যাচ্ছেন। অনেকে বীরের মতো মৃত্যুকে আলিঙ্গন করেছেন, কিন্তু তারপরও তাদের মতো অন্যরা দমে যাননি। তাদের কাজ থেমে যায়নি।

আমি মহান মুক্তিযুদ্ধ দেখিনি, কিন্তু যখন এর সম্মুখযুদ্ধের কাহিনী পড়ি, শরীর শিউরে উঠে। মনে হয়, তখন কেন আমার জন্ম হয়নি। আমি ব্যাংকের সামান্য কর্মী। যুদ্ধে যেতে পারিনি, কিন্তু এখন সময় এসেছে। সরকারের নির্দেশে সামান্য সেবা যতটুকু পারি দিয়ে যাচ্ছি। অনেকের ব্যাংক খোলা নিয়ে প্রবল আপত্তি আছে, সেটা নানা কারণে হতে পারে। তাই বলে গা বাঁচিয়ে চলা ঠিক নয়। দেশ আমাদের অনেক কিছু দিয়েছে, তার প্রতিদান দেয়ার এখনই উপযুক্ত সময়। সবার স্বতঃস্ফূর্ত সহযোগিতা, শক্তি ও সাহসীই পারে এ অদৃশ্য শক্তিকে পরাভূত করতে। আসুন আমরা সবাই দেশকে ভালোবাসি, অন্যকে উৎসাহিত করি। সবাই সাবধানে থাকুন, নিরাপদে থাকুন, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন।

জিল্লুর রহমান

বুধবার, ২১ এপ্রিল ২০২১ , ৮ বৈশাখ ১৪২৮ ৮ রমজান ১৪৪২

এই দুঃসময়ে দেশপ্রেমে উজ্জীবিত হতে হবে

সারা বিশ্ব এক অদৃশ্য মহামারির সঙ্গে যুদ্ধ করছে। গতবছর মহামারীর প্রথম ঢেউ আঘাত হানার পর এ বছর দ্বিতীয় ঢেউ আবারও সবকিছু তছনছ করে দিচ্ছে। আমরাও এর থেকে বিচ্ছিন্ন না। আমরা দেখতে পাই পৃথিবীর অনেক দেশের স্বাস্থ্যকর্মীরা প্রবল উৎসাহ ও ঝুঁকি নিয়ে লড়াই করে যাচ্ছেন। শুধু স্বাস্থ্যকর্মীরা নয়, করোনা যুদ্ধের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট আরও অনেকে। সৈনিক, পুলিশ, সমাজকর্মী, সেচ্ছাসেবী ও আরও অনেকে। তাদেরও স্বাস্থ্য সুরক্ষার উপাদানের যথেষ্ট অভাব থাকার পরও তারা থেমে যাননি, তারা দমে যাননি, তারা আরও দেশপ্রেমের উদ্দীপনা নিয়ে স্বাস্থ্য সেবা দিয়ে যাচ্ছেন। অনেকে বীরের মতো মৃত্যুকে আলিঙ্গন করেছেন, কিন্তু তারপরও তাদের মতো অন্যরা দমে যাননি। তাদের কাজ থেমে যায়নি।

আমি মহান মুক্তিযুদ্ধ দেখিনি, কিন্তু যখন এর সম্মুখযুদ্ধের কাহিনী পড়ি, শরীর শিউরে উঠে। মনে হয়, তখন কেন আমার জন্ম হয়নি। আমি ব্যাংকের সামান্য কর্মী। যুদ্ধে যেতে পারিনি, কিন্তু এখন সময় এসেছে। সরকারের নির্দেশে সামান্য সেবা যতটুকু পারি দিয়ে যাচ্ছি। অনেকের ব্যাংক খোলা নিয়ে প্রবল আপত্তি আছে, সেটা নানা কারণে হতে পারে। তাই বলে গা বাঁচিয়ে চলা ঠিক নয়। দেশ আমাদের অনেক কিছু দিয়েছে, তার প্রতিদান দেয়ার এখনই উপযুক্ত সময়। সবার স্বতঃস্ফূর্ত সহযোগিতা, শক্তি ও সাহসীই পারে এ অদৃশ্য শক্তিকে পরাভূত করতে। আসুন আমরা সবাই দেশকে ভালোবাসি, অন্যকে উৎসাহিত করি। সবাই সাবধানে থাকুন, নিরাপদে থাকুন, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন।

জিল্লুর রহমান