দেশে আলু রপ্তানিতে স্থবিরতা

রপ্তানি উপযোগী আলুর জাতের অভাবে বিশ্ববাজারে বাংলাদেশি আলু রপ্তানি ব্যাহত হচ্ছে। দেশে উৎপাদিত আলুর প্রধান জাত ‘ডায়ামন্ট’ আলু খুবই ‘হলোহাট’ রোগ প্রবণ। বাহ্যিকভাবে অদৃশ্যমান অন্তঃস্থলের এই রোগের উপস্থিতির কারণে রপ্তানি বাজারে ডায়ামন্ট আলু অগ্রহণযোগ্য। রপ্তানি উপযোগী জাত না পেয়ে অনেক রপ্তানিকারকরা ডায়ামন্ট আলু রপ্তানি করে বিপুল আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন। একই কারণে তারা বিদেশি ক্রেতার সঙ্গে সম্পাদিত রপ্তানি চুক্তি মোতাবেক আলু রপ্তানি করে উঠতে পারছেন না যা বিদেশি ক্রেতাদের সঙ্গে রপ্তানিকারকদের সর্ম্পকের অবনতি ঘটাচ্ছে। বাংলাদেশ পটেটো এক্সপোর্ট অ্যাসোসিয়েশনের (বিপিইএ) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি থেকে এসব তথ্য জানা যায়।

বাংলাদেশ থেকে ২০১৩-১৪ সালে সর্বোচ্চ ১০২ টন আলু রপ্তানি হয়। তৎপরবর্ত্তীতে দেশের আলুর উৎপাদন দ্রুত বৃদ্ধি পেতে থাকলেও রপ্তানি উপযোগী জাতের অভাবে আলু রপ্তানি অর্ধেকে নেমে আসে। বর্তমান বসরেও আলু মোট রপ্তানি ৪১,০০০ টনে সীমিত রয়েছে। দেশের আলু উৎপাদনে রপ্তানি উপযোগী জাত সম্পৃক্ত করা না গেলে ভবিষ্যতেও আলু রপ্তানির স্থবিরতা কাটিয়ে উঠা সম্ভবনা নেই এবং সেজন্য বাংলাদেশি আলুর রপ্তানি বাজার প্রতিযোগী দেশের হাতে চলে যেতে পারে।

শনিবার, ০১ মে ২০২১ , ১৯ বৈশাখ ১৪২৮ ১৯ রমজান ১৪৪২

দেশে আলু রপ্তানিতে স্থবিরতা

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

image

রপ্তানি উপযোগী আলুর জাতের অভাবে বিশ্ববাজারে বাংলাদেশি আলু রপ্তানি ব্যাহত হচ্ছে। দেশে উৎপাদিত আলুর প্রধান জাত ‘ডায়ামন্ট’ আলু খুবই ‘হলোহাট’ রোগ প্রবণ। বাহ্যিকভাবে অদৃশ্যমান অন্তঃস্থলের এই রোগের উপস্থিতির কারণে রপ্তানি বাজারে ডায়ামন্ট আলু অগ্রহণযোগ্য। রপ্তানি উপযোগী জাত না পেয়ে অনেক রপ্তানিকারকরা ডায়ামন্ট আলু রপ্তানি করে বিপুল আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন। একই কারণে তারা বিদেশি ক্রেতার সঙ্গে সম্পাদিত রপ্তানি চুক্তি মোতাবেক আলু রপ্তানি করে উঠতে পারছেন না যা বিদেশি ক্রেতাদের সঙ্গে রপ্তানিকারকদের সর্ম্পকের অবনতি ঘটাচ্ছে। বাংলাদেশ পটেটো এক্সপোর্ট অ্যাসোসিয়েশনের (বিপিইএ) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি থেকে এসব তথ্য জানা যায়।

বাংলাদেশ থেকে ২০১৩-১৪ সালে সর্বোচ্চ ১০২ টন আলু রপ্তানি হয়। তৎপরবর্ত্তীতে দেশের আলুর উৎপাদন দ্রুত বৃদ্ধি পেতে থাকলেও রপ্তানি উপযোগী জাতের অভাবে আলু রপ্তানি অর্ধেকে নেমে আসে। বর্তমান বসরেও আলু মোট রপ্তানি ৪১,০০০ টনে সীমিত রয়েছে। দেশের আলু উৎপাদনে রপ্তানি উপযোগী জাত সম্পৃক্ত করা না গেলে ভবিষ্যতেও আলু রপ্তানির স্থবিরতা কাটিয়ে উঠা সম্ভবনা নেই এবং সেজন্য বাংলাদেশি আলুর রপ্তানি বাজার প্রতিযোগী দেশের হাতে চলে যেতে পারে।