৬ হাজার পয়েন্ট ধরে রাখতে পারলো না ডিএসইএক্স

আগের কার্যদিবসে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ছয় হাজার পয়েন্টের ঘরে পৌঁছায়। তবে গতকাল পতনের কারণে ডিএসইএক্স ছয় হাজার পয়েন্টের ঘর থেকে নিচে নেমে আসে।

এদিন সূচকের সঙ্গে বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর এবং টাকার পরিমাণে লেনদেন কমেছে। ডিএসই ও সিএসই সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

এদিন ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ১৭.৭০ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ৯৯০.৯৮ পয়েন্টে। গতকাল ডিএসইর অন্য সূচকগুলোর মধ্যে ডিএসই-৩০ সূচক ২.৪৬ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ২ হাজার ২০৫.৮১ পয়েন্টে। তবে শরিয়াহ সূচক ০.৩১ পয়েন্ট বেড়েছে। গতকাল ডিএসইতে ১ হাজার ৭৩৬ কোটি ৩৩ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে যা আগের দিন থেকে ৪১২ কোটি ৮৮ লাখ টাকা কম। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ২ হাজার ১৪৯ কোটি ২১ লাখ টাকার।

ডিএসইতে গতকাল ৩৫৯টি কোম্পানি লেনদেনে অংশ নিয়েছে। এর মধ্যে ১০২টির বা ২৮.৪১ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর বেড়েছে। শেয়ার দর কমেছে ২০৩টির বা ৫৬.৫৫ শতাংশের এবং বাকি ৫৪টির বা ১৫.০৪ শতাংশের দর অপরিবর্তিত রয়েছে।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ১৯.৭৭ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৭ হাজার ৩৫৯.৫৭ পয়েন্টে। সিএসইতে গতকাল ২৯৭টি প্রতিষ্ঠান লেনদেনে অংশ নিয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৮৯টির দর বেড়েছে, কমেছে ১৬৯টির আর ৩৯টির দর অপরিবর্তিত রয়েছে। সিএসইতে ৫৮ কোটি ৯৩ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

গতকাল ডিএসই ব্লক মার্কেটে লেনদেনে অংশ নেয়া ৩৯টি কোম্পানির ১০০ কোটি টাকার লেনদেন হয়েছে। কোম্পানিগুলোর ১ কোটি ৬৭ লাখ ২৪ হাজার ৪৭১টি শেয়ার ৮৩ বার হাত বদল হয়েছে। এর মাধ্যমে কোম্পানিগুলোর ১০০ কোটি ২৬ লাখ ৭৬ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে। কোম্পানিগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি অর্থাৎ ৪৮ কোটি ৩০ লাখ ২ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে আইডিএলসির। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৩ কোটি ২৭ লাখ ৪৫ হাজার টাকার জেনেক্সের এবং তৃতীয় সর্বোচ্চ ৯ কোটি ৪৩ লাখ ৩৩ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে পাইওনিয়ার ইন্স্যুরেন্সের।

এছাড়া আমান ফিডের ১২ লাখ ২৬ হাজার টাকার, বিবিএস কেবলসের ২৯ লাখ ৭০ হাজার টাকার, বিডি অটোকার্সের ৬ লাখ ৩৩ হাজার টাকার, বিকন ফার্মার ৮ লাখ ৫০ হাজার টাকার, বেক্সিমকোর ৬ কোটি ৮২ লাখ ২৯ হাজার টাকার, ব্র্যাক ব্যাংকের ৮৯ লাখ ৮৬ হাজার টাকার, বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবলের ৭ লাখ ৭ হাজার টাকার, কনফিডেন্স সিমেন্টের ৩২ লাখ ৫১ হাজার টাকার, ডিবিএইচের ৭ লাখ ২৭ হাজার টাকার, দেশ জেনারেল ইন্স্যুরেন্সের ৫ লাখ টাকার, ঢাকা ইন্স্যুরেন্সের ৫ লাখ ৪০ হাজার টাকার, ডাচ-বাংলা ব্যাংকের ৫৭ লাখ ১৫ হাজার টাকার, ইস্টার্ন ইন্স্যুরেন্সের ৫০ লাখ টাকার, ইস্টার্ন কেবলসের ৫ লাখ টাকার, জিপিএইচ ইস্পাতের ৫ লাখ ১৯ হাজার টাকার, লংকাবাংলা ফাইন্যান্সের ২৫ লাখ ১৮ হাজার টাকার, ম্যাকসন্স স্পিনিংয়ের ৯ লাখ ২২ হাজার টাকার, ম্যারিকোর ১ কোটি ৭৫ লাখ ৮২ হাজার টাকার, মেট্রো স্পিনিংয়ের ৬ লাখ ৩২ হাজার টাকার, ন্যাশনাল ফিডের ১৫ লাখ ৬২ হাজার টাকার, ন্যাশনাল হাউজিং ফাইন্যান্সের ৪০ লাখ ৬৭ হাজার টাকার, নর্দান ইসলামী ইন্স্যুরেন্সের ১ কোটি ৩১ লাখ ১৪ হাজার টাকার, ন্যাশনাল পলিমারের ৭৩ লাখ ৭৫ হাজার টাকার, ন্যাশনাল টিউবসের ৬ লাখ ৩১ হাজার টাকার, ওয়াইম্যাক্সের ৬ লাখ ৬০ হাজার টাকার, ওরিয়ন ইনফিউশনের ৪৫ লাখ ১৯ হাজার টাকার, ওরিয়ন ফার্মার ৩ কোটি ৮৯ লাখ ১২ হাজার টাকার, প্রগতি ইন্স্যুরেন্সের ১৮ লাখ ২৭ হাজার টাকার, প্রাইম লাইফ ইন্স্যুরেন্সের ৫০ লাখ ২৫ হাজার টাকার, প্রগ্রেসিভ লাইফ ইন্স্যুরেন্সের ৭ লাখ ৮ হাজার টাকার, প্রভাতী ইন্স্যুরেন্সের ৩৭ লাখ ৬০ হাজার টাকার, প্যারামাউন্ট টেক্সটাইলের ৫ লাখ ৫ হাজার টাকার, সালভো কেমিক্যালের ৬ লাখ ৮১ হাজার টাকার, সিলকো ফার্মার ৪ কোটি ৯০ লাখ ৬৯ হাজার টাকার, স্কয়ার ফার্মার ১ কোটি ৬ লাখ ৫০ হাজার টাকার এবং ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকের ২ কোটি ৭৫ লাখ ২৩ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে।

গতকাল ডিএসই লেনদেনে অংশ নেয়া প্রতিষ্ঠানগুলো মধ্যে ২০৩টির বা ৫৬.৫৫ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর কমেছে।

মঙ্গলবার, ০১ জুন ২০২১ , ১৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮ ১৯ শাওয়াল ১৪৪২

৬ হাজার পয়েন্ট ধরে রাখতে পারলো না ডিএসইএক্স

আগের কার্যদিবসে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ছয় হাজার পয়েন্টের ঘরে পৌঁছায়। তবে গতকাল পতনের কারণে ডিএসইএক্স ছয় হাজার পয়েন্টের ঘর থেকে নিচে নেমে আসে।

এদিন সূচকের সঙ্গে বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর এবং টাকার পরিমাণে লেনদেন কমেছে। ডিএসই ও সিএসই সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

এদিন ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ১৭.৭০ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ৯৯০.৯৮ পয়েন্টে। গতকাল ডিএসইর অন্য সূচকগুলোর মধ্যে ডিএসই-৩০ সূচক ২.৪৬ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ২ হাজার ২০৫.৮১ পয়েন্টে। তবে শরিয়াহ সূচক ০.৩১ পয়েন্ট বেড়েছে। গতকাল ডিএসইতে ১ হাজার ৭৩৬ কোটি ৩৩ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে যা আগের দিন থেকে ৪১২ কোটি ৮৮ লাখ টাকা কম। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ২ হাজার ১৪৯ কোটি ২১ লাখ টাকার।

ডিএসইতে গতকাল ৩৫৯টি কোম্পানি লেনদেনে অংশ নিয়েছে। এর মধ্যে ১০২টির বা ২৮.৪১ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর বেড়েছে। শেয়ার দর কমেছে ২০৩টির বা ৫৬.৫৫ শতাংশের এবং বাকি ৫৪টির বা ১৫.০৪ শতাংশের দর অপরিবর্তিত রয়েছে।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ১৯.৭৭ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৭ হাজার ৩৫৯.৫৭ পয়েন্টে। সিএসইতে গতকাল ২৯৭টি প্রতিষ্ঠান লেনদেনে অংশ নিয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৮৯টির দর বেড়েছে, কমেছে ১৬৯টির আর ৩৯টির দর অপরিবর্তিত রয়েছে। সিএসইতে ৫৮ কোটি ৯৩ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

গতকাল ডিএসই ব্লক মার্কেটে লেনদেনে অংশ নেয়া ৩৯টি কোম্পানির ১০০ কোটি টাকার লেনদেন হয়েছে। কোম্পানিগুলোর ১ কোটি ৬৭ লাখ ২৪ হাজার ৪৭১টি শেয়ার ৮৩ বার হাত বদল হয়েছে। এর মাধ্যমে কোম্পানিগুলোর ১০০ কোটি ২৬ লাখ ৭৬ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে। কোম্পানিগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি অর্থাৎ ৪৮ কোটি ৩০ লাখ ২ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে আইডিএলসির। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৩ কোটি ২৭ লাখ ৪৫ হাজার টাকার জেনেক্সের এবং তৃতীয় সর্বোচ্চ ৯ কোটি ৪৩ লাখ ৩৩ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে পাইওনিয়ার ইন্স্যুরেন্সের।

এছাড়া আমান ফিডের ১২ লাখ ২৬ হাজার টাকার, বিবিএস কেবলসের ২৯ লাখ ৭০ হাজার টাকার, বিডি অটোকার্সের ৬ লাখ ৩৩ হাজার টাকার, বিকন ফার্মার ৮ লাখ ৫০ হাজার টাকার, বেক্সিমকোর ৬ কোটি ৮২ লাখ ২৯ হাজার টাকার, ব্র্যাক ব্যাংকের ৮৯ লাখ ৮৬ হাজার টাকার, বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবলের ৭ লাখ ৭ হাজার টাকার, কনফিডেন্স সিমেন্টের ৩২ লাখ ৫১ হাজার টাকার, ডিবিএইচের ৭ লাখ ২৭ হাজার টাকার, দেশ জেনারেল ইন্স্যুরেন্সের ৫ লাখ টাকার, ঢাকা ইন্স্যুরেন্সের ৫ লাখ ৪০ হাজার টাকার, ডাচ-বাংলা ব্যাংকের ৫৭ লাখ ১৫ হাজার টাকার, ইস্টার্ন ইন্স্যুরেন্সের ৫০ লাখ টাকার, ইস্টার্ন কেবলসের ৫ লাখ টাকার, জিপিএইচ ইস্পাতের ৫ লাখ ১৯ হাজার টাকার, লংকাবাংলা ফাইন্যান্সের ২৫ লাখ ১৮ হাজার টাকার, ম্যাকসন্স স্পিনিংয়ের ৯ লাখ ২২ হাজার টাকার, ম্যারিকোর ১ কোটি ৭৫ লাখ ৮২ হাজার টাকার, মেট্রো স্পিনিংয়ের ৬ লাখ ৩২ হাজার টাকার, ন্যাশনাল ফিডের ১৫ লাখ ৬২ হাজার টাকার, ন্যাশনাল হাউজিং ফাইন্যান্সের ৪০ লাখ ৬৭ হাজার টাকার, নর্দান ইসলামী ইন্স্যুরেন্সের ১ কোটি ৩১ লাখ ১৪ হাজার টাকার, ন্যাশনাল পলিমারের ৭৩ লাখ ৭৫ হাজার টাকার, ন্যাশনাল টিউবসের ৬ লাখ ৩১ হাজার টাকার, ওয়াইম্যাক্সের ৬ লাখ ৬০ হাজার টাকার, ওরিয়ন ইনফিউশনের ৪৫ লাখ ১৯ হাজার টাকার, ওরিয়ন ফার্মার ৩ কোটি ৮৯ লাখ ১২ হাজার টাকার, প্রগতি ইন্স্যুরেন্সের ১৮ লাখ ২৭ হাজার টাকার, প্রাইম লাইফ ইন্স্যুরেন্সের ৫০ লাখ ২৫ হাজার টাকার, প্রগ্রেসিভ লাইফ ইন্স্যুরেন্সের ৭ লাখ ৮ হাজার টাকার, প্রভাতী ইন্স্যুরেন্সের ৩৭ লাখ ৬০ হাজার টাকার, প্যারামাউন্ট টেক্সটাইলের ৫ লাখ ৫ হাজার টাকার, সালভো কেমিক্যালের ৬ লাখ ৮১ হাজার টাকার, সিলকো ফার্মার ৪ কোটি ৯০ লাখ ৬৯ হাজার টাকার, স্কয়ার ফার্মার ১ কোটি ৬ লাখ ৫০ হাজার টাকার এবং ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকের ২ কোটি ৭৫ লাখ ২৩ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে।

গতকাল ডিএসই লেনদেনে অংশ নেয়া প্রতিষ্ঠানগুলো মধ্যে ২০৩টির বা ৫৬.৫৫ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর কমেছে।