ঘাটতি মোকাবিলায় বিদেশি ঋণের ওপর আশাবাদী : পরিকল্পনামন্ত্রী

ধারের বাজার এখন ভালো। সবাই আমাদের ধার দিতে চায় বলে মন্তব্য করেছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান। গতকাল ২০২১-২০২২ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট পরবর্তী ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন মন্ত্রী।

তিনি বলেন, আমরা বিদেশিদের কাছে ধার নিলেও নিয়মিতভাবে পরিশোধ করছি। ঋণ পরিশোধের রেকর্ডও আমাদের ভালো। আমরা ধার নিয়ে খেয়ে ফেলি না দেশের জন্য কাজে লাগাই।

বাজেট ব্যয়ের অর্থের সংস্থান প্রসঙ্গে এমএ মান্নান বলেন, আপনার সবাই জানেন টাকা কোথা থেকে আসে এটা চিরাচরিত প্রথা। বাজেটের অর্থ হয় অভ্যন্তরীণ খাত অথবা বিদেশ থেকে ধার নিতে হবে। এসব ক্ষেত্রে আমাদের সুনাম ভালো, ওভারঅল ভালো করেছি।

বাজেটে ঘাটতি প্রসঙ্গে পরিকল্পনামন্ত্রী আরও বলেন, আমরা উন্নয়নশীল দেশ, বাজেটে ঘাটতি হবেই। আমরা সবাই একটা অনুমানের জগতে আছি। গত ১০ বছরের বাজেটে ইতিবাচক ধারাবাহিকতা বজায় রেখেছি। অর্থের কোন সমস্যা হবে না। কোভিডের মধ্যেও মাথাপিছু আয় ও জিডিপি প্রবৃদ্ধিতে ভালো করছি।

শনিবার, ০৫ জুন ২০২১ , ২২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮ ২৩ শাওয়াল ১৪৪২

বাজেট প্রতিক্রিয়া

ঘাটতি মোকাবিলায় বিদেশি ঋণের ওপর আশাবাদী : পরিকল্পনামন্ত্রী

ধারের বাজার এখন ভালো। সবাই আমাদের ধার দিতে চায় বলে মন্তব্য করেছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান। গতকাল ২০২১-২০২২ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট পরবর্তী ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন মন্ত্রী।

তিনি বলেন, আমরা বিদেশিদের কাছে ধার নিলেও নিয়মিতভাবে পরিশোধ করছি। ঋণ পরিশোধের রেকর্ডও আমাদের ভালো। আমরা ধার নিয়ে খেয়ে ফেলি না দেশের জন্য কাজে লাগাই।

বাজেট ব্যয়ের অর্থের সংস্থান প্রসঙ্গে এমএ মান্নান বলেন, আপনার সবাই জানেন টাকা কোথা থেকে আসে এটা চিরাচরিত প্রথা। বাজেটের অর্থ হয় অভ্যন্তরীণ খাত অথবা বিদেশ থেকে ধার নিতে হবে। এসব ক্ষেত্রে আমাদের সুনাম ভালো, ওভারঅল ভালো করেছি।

বাজেটে ঘাটতি প্রসঙ্গে পরিকল্পনামন্ত্রী আরও বলেন, আমরা উন্নয়নশীল দেশ, বাজেটে ঘাটতি হবেই। আমরা সবাই একটা অনুমানের জগতে আছি। গত ১০ বছরের বাজেটে ইতিবাচক ধারাবাহিকতা বজায় রেখেছি। অর্থের কোন সমস্যা হবে না। কোভিডের মধ্যেও মাথাপিছু আয় ও জিডিপি প্রবৃদ্ধিতে ভালো করছি।