ঢালাই কারখানার বিষাক্ত ধোঁয়ায় হুমকিতে জনস্বাস্থ্য-পরিবেশ

শ্রীনগর উপজেলার ষোলঘর এলাকার উত্তর উমপাড়া লোকালয়ে অবৈধভাবে গড়ে ওঠে এসকে স্বপন মেটাল নামে একটি ঢালাই কারখানা। ওই কারখানার বিষাক্ত ধোয়ায় পরিবেশ দূষণ হচ্ছে। ওই কারখানার আশপাশে বসবাসকারীরা চরম স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে রয়েছেন।

সরেজমিনে দেখা গেছে, ঢাকা-মাওয়া এক্সপ্রেসওয়ে সংলগ্ন উপজেলার ষোলঘরের উত্তর উমপাড়ায় ঢালাই কারখানাটি গড়ে তুলেন স্বপন নামে এক ঢাকার ব্যবসায়ী। ঢালাই কারখানায় বিভিন্ন ধাতব চুল্লিতে পুড়িয়ে শিশার প্লেট তৈরী করা হচ্ছে। এতে করে চুল্লি থেকে বিষাক্ত ধোঁয়া ও ধুলা ময়লায় পরিবেশ দূষিত হচ্ছে। লক্ষ্য করা গেছে, ছাড়পত্রবিহীন কারখানায় ৮/১০ জন শ্রমিক মাস্ক ছাড়া ও ময়লা জামা কাপড় পড়ে চুল্লিতে বিভিন্ন ধাতব পুড়ানোর কাজ করছে। বিষাক্ত ধোঁয়া ও ধুলা বালির জন্য কারখানার কাছে দাড়ানো প্রায় অসম্ভব হয়ে পড়ে।

এসময় রুবেল নামে একজন কারখানা মালিকের ভাগিনা পরিচয় দিয়ে বলেন, মালিকের বাড়ি ঢাকায়। প্রায় ৫/৬ মাস যাবত কারখানাটি এখানে দেওয়া হয়েছে। কারখানাটির বৈধ কোনও কাগজপত্র রয়েছে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে রুবেল বলেন, আপনাদের কিছু জানার থাকলে মালিকের সঙ্গে ফোনে কথা বলেন। এলাকাবাসী জানায়, কারখানার ধোঁয়ায় আশ পাশে অন্ধকার হয়ে যায়। এতে করে তাদের শ্বাস কষ্টে থাকতে হচ্ছে।

কারখানা সংলগ্ন আবাসিক বাড়ির নাসরিন বেগম অভিযোগ করে বলেন, দিন রাত ২৪ ঘণ্টাই কারখানায় কাজ চলে। টুং টাং শব্দে ও দুর্গন্ধযুক্ত বিষাক্ত ধোঁয়ার কারণে আমরা ঘরে ঘুমাতে পারিনা। শিশু বাচ্চাদের নিয়ে স্বাস্থ্য ঝুঁকির মধ্যে রয়েছি।

কারখানাটির মালিক মো. স্বপন মিয়াকে একাধিকবার ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করেও কথা বলা সম্ভব হয়নি।

এ ব্যাপারে শ্রীনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রণব কুমার ঘোষ বলেন, কারখানাটির বিষয়ে আমি অবগত নই। তবে পরিবেশের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মঙ্গলবার, ০৮ জুন ২০২১ , ২৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮ ২৬ শাওয়াল ১৪৪২

ঢালাই কারখানার বিষাক্ত ধোঁয়ায় হুমকিতে জনস্বাস্থ্য-পরিবেশ

শ্রীনগর উপজেলার ষোলঘর এলাকার উত্তর উমপাড়া লোকালয়ে অবৈধভাবে গড়ে ওঠে এসকে স্বপন মেটাল নামে একটি ঢালাই কারখানা। ওই কারখানার বিষাক্ত ধোয়ায় পরিবেশ দূষণ হচ্ছে। ওই কারখানার আশপাশে বসবাসকারীরা চরম স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে রয়েছেন।

সরেজমিনে দেখা গেছে, ঢাকা-মাওয়া এক্সপ্রেসওয়ে সংলগ্ন উপজেলার ষোলঘরের উত্তর উমপাড়ায় ঢালাই কারখানাটি গড়ে তুলেন স্বপন নামে এক ঢাকার ব্যবসায়ী। ঢালাই কারখানায় বিভিন্ন ধাতব চুল্লিতে পুড়িয়ে শিশার প্লেট তৈরী করা হচ্ছে। এতে করে চুল্লি থেকে বিষাক্ত ধোঁয়া ও ধুলা ময়লায় পরিবেশ দূষিত হচ্ছে। লক্ষ্য করা গেছে, ছাড়পত্রবিহীন কারখানায় ৮/১০ জন শ্রমিক মাস্ক ছাড়া ও ময়লা জামা কাপড় পড়ে চুল্লিতে বিভিন্ন ধাতব পুড়ানোর কাজ করছে। বিষাক্ত ধোঁয়া ও ধুলা বালির জন্য কারখানার কাছে দাড়ানো প্রায় অসম্ভব হয়ে পড়ে।

এসময় রুবেল নামে একজন কারখানা মালিকের ভাগিনা পরিচয় দিয়ে বলেন, মালিকের বাড়ি ঢাকায়। প্রায় ৫/৬ মাস যাবত কারখানাটি এখানে দেওয়া হয়েছে। কারখানাটির বৈধ কোনও কাগজপত্র রয়েছে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে রুবেল বলেন, আপনাদের কিছু জানার থাকলে মালিকের সঙ্গে ফোনে কথা বলেন। এলাকাবাসী জানায়, কারখানার ধোঁয়ায় আশ পাশে অন্ধকার হয়ে যায়। এতে করে তাদের শ্বাস কষ্টে থাকতে হচ্ছে।

কারখানা সংলগ্ন আবাসিক বাড়ির নাসরিন বেগম অভিযোগ করে বলেন, দিন রাত ২৪ ঘণ্টাই কারখানায় কাজ চলে। টুং টাং শব্দে ও দুর্গন্ধযুক্ত বিষাক্ত ধোঁয়ার কারণে আমরা ঘরে ঘুমাতে পারিনা। শিশু বাচ্চাদের নিয়ে স্বাস্থ্য ঝুঁকির মধ্যে রয়েছি।

কারখানাটির মালিক মো. স্বপন মিয়াকে একাধিকবার ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করেও কথা বলা সম্ভব হয়নি।

এ ব্যাপারে শ্রীনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রণব কুমার ঘোষ বলেন, কারখানাটির বিষয়ে আমি অবগত নই। তবে পরিবেশের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।