ভাণ্ডারিয়ার ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থীর অফিসে অগ্নিসংযোগ

পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়া উপজেলার ভিটাবাড়ীয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন ২১ জুন। এ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা ও চারবার নির্বাচিত চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা খান এনায়েত করিম আনারস প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন। গত সোমবার গভীররাতে দুর্বৃত্তরা খান এনায়েত করিমের মঞ্জু মার্কেটে অবস্থিত প্রধান নির্বাচনী অফিসে অগ্নিসংযোগ করে পুড়িয়ে দেয়। এতে কোন হতাহত না হলেও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি, ৭০টি চেয়ার, ৩টি টেবিল, ১টি টেলিভিশন, নির্বাচনী পোস্টার, লিফলেটসহ বিভিন্ন জিনিসপত্র পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এ সময় পার্শ্ববর্তী জাহাঙ্গীর মাঝির ১টি চায়ের দোকানও পুড়ে যায়। এ ঘটনায় খান এনায়েত করিম বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের আসামি করে ভাণ্ডারিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

নির্বাচনী রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা শিক্ষা অফিসার নাসির উদ্দিন খলিফা জানান, অফিস পোড়ানোর মৌখিকভাবে অভিযোগ পেয়েছি, লিখিত অভিযোগ পেলে বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা নেয়া হবে। ভাণ্ডারিয়া থানার ওসি মো. মাসুমুর রহমান বিশ্বাস জানান, এ ঘটনায় খান এনায়েত করিম বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের আসামি করে ভাণ্ডারিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন ।

উল্লেখ্য, খান এনায়েত করিম ছাড়াও তার আপন ছোট ভাই বর্তামান ইউপি চেয়ারম্যান উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি খান এনামুল করিম পান্না নৌকা প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এছাড়াও জাতীয় পার্টি জেপি মনোনীত মতিউর রহমান বুলবুল (বাই সাইকেল), মো. হাফিজুর রহমান মৃধা স্বতন্ত্র প্রার্থী অটোরিক্সা প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এদিকে নির্বাচনী অফিস পুড়িয়ে ফেলার ঘটনায় ভোটারদের মধ্যে আতঙ্ক ও এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

image

ভা-ারিয়া (পিরোজপুর) : ভিটাবাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী খান এনায়েত করিম এর নির্বাচনী কার্যালয় পুড়ে ছাই -সংবাদ

আরও খবর
নওগাঁর হাসপাতালগুলোতে অক্সিজেন সংকট চরমে
জেলায় জেলায় বাড়ছে সংক্রমণ ও মৃত্যু হার
ভৈরবে জমি বিবাদে হত ১, আহত ১০

বুধবার, ১৬ জুন ২০২১ , ২ আষাড় ১৪২৮ ৪ জিলকদ ১৪৪২

ভাণ্ডারিয়ার ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থীর অফিসে অগ্নিসংযোগ

image

ভা-ারিয়া (পিরোজপুর) : ভিটাবাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী খান এনায়েত করিম এর নির্বাচনী কার্যালয় পুড়ে ছাই -সংবাদ

পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়া উপজেলার ভিটাবাড়ীয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন ২১ জুন। এ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা ও চারবার নির্বাচিত চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা খান এনায়েত করিম আনারস প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন। গত সোমবার গভীররাতে দুর্বৃত্তরা খান এনায়েত করিমের মঞ্জু মার্কেটে অবস্থিত প্রধান নির্বাচনী অফিসে অগ্নিসংযোগ করে পুড়িয়ে দেয়। এতে কোন হতাহত না হলেও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি, ৭০টি চেয়ার, ৩টি টেবিল, ১টি টেলিভিশন, নির্বাচনী পোস্টার, লিফলেটসহ বিভিন্ন জিনিসপত্র পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এ সময় পার্শ্ববর্তী জাহাঙ্গীর মাঝির ১টি চায়ের দোকানও পুড়ে যায়। এ ঘটনায় খান এনায়েত করিম বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের আসামি করে ভাণ্ডারিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

নির্বাচনী রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা শিক্ষা অফিসার নাসির উদ্দিন খলিফা জানান, অফিস পোড়ানোর মৌখিকভাবে অভিযোগ পেয়েছি, লিখিত অভিযোগ পেলে বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা নেয়া হবে। ভাণ্ডারিয়া থানার ওসি মো. মাসুমুর রহমান বিশ্বাস জানান, এ ঘটনায় খান এনায়েত করিম বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের আসামি করে ভাণ্ডারিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন ।

উল্লেখ্য, খান এনায়েত করিম ছাড়াও তার আপন ছোট ভাই বর্তামান ইউপি চেয়ারম্যান উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি খান এনামুল করিম পান্না নৌকা প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এছাড়াও জাতীয় পার্টি জেপি মনোনীত মতিউর রহমান বুলবুল (বাই সাইকেল), মো. হাফিজুর রহমান মৃধা স্বতন্ত্র প্রার্থী অটোরিক্সা প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এদিকে নির্বাচনী অফিস পুড়িয়ে ফেলার ঘটনায় ভোটারদের মধ্যে আতঙ্ক ও এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।