চাঁদা না দেয়ায় হামলা, অর্থ লুট, মামলা দিয়ে গৃহবন্দী পরিবার, বিচার দাবি

রংপুর নগরীর ঠিকাদার পাড়া এলাকায় আসবাবপত্র ব্যবসায়ীর দোকানে হামলা চালিয়ে নগদ অর্থ লুট ও মারধর করে আহত করার ঘটনায় মামলা দায়ের করে পুরো পরিবার এখন গৃহবন্দী অবস্থায় দিনকাটাচ্ছে।

গতকাল দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন নগরীর ঠিকাদার পাড়া এলাকার আসবাবপত্র ব্যবসায়ী মৃত আবুল হোসেন হিরুর বিধবা স্ত্রী রওশনারা আক্তার। তিনি লিখিত অভিযোগে জানান চাঁদা না দেয়ায় নগরীর নুরপুর ঠিকাদার পাড়া এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী চাঁদাবাজ মেরাজ ও তার ভাই এজাজ তাদের সহযোগী নিয়ে আর এফএল গ্রুপের পরিবেশক ও লাকি ফার্নিচারের দোকানে হামলা চালিয়ে ব্যাংকে ডিডি করার ১ লাখ ৩০ হাজার টাকা লুট করে নেয়ার সময় বাঁধা দিলে তার ছেলে জাহাঙ্গীর ও নুর আলমকে ছোড়া রড দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করে জখম করে। এ ঘটনায় তার বড় ছেলে নুর আলম বাদী হয়ে রংপুর মেট্রোপলিটান কোতয়ালী থানায় মামলা দায়ের করে। করার পর থেকে সন্ত্রাসীরা মামলা তুলে নেয়ার জন্য বাড়িতে হামলা গালাগাল ও বাড়ির সামনে অস্ত্রের মহড়া দেয়। এ ঘটনায় পুরো পরিবার গৃহবন্দী অবস্থায় মানবেতর দিন কাটাচ্ছে। সংবাদ সম্মেলনে রওশন আরা বেগম তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার দাবি জানিয়ে বলেন তারা মিথ্যা মামলা দায়ের করে আমাদের উল্টো ফাঁসানোর পায়তারা করছে।

সোমবার, ০৫ জুলাই ২০২১ , ২১ আষাঢ় ১৪২৮ ২৩ জিলক্বদ ১৪৪২

রংপুরে

চাঁদা না দেয়ায় হামলা, অর্থ লুট, মামলা দিয়ে গৃহবন্দী পরিবার, বিচার দাবি

রংপুর নগরীর ঠিকাদার পাড়া এলাকায় আসবাবপত্র ব্যবসায়ীর দোকানে হামলা চালিয়ে নগদ অর্থ লুট ও মারধর করে আহত করার ঘটনায় মামলা দায়ের করে পুরো পরিবার এখন গৃহবন্দী অবস্থায় দিনকাটাচ্ছে।

গতকাল দুপুরে সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন নগরীর ঠিকাদার পাড়া এলাকার আসবাবপত্র ব্যবসায়ী মৃত আবুল হোসেন হিরুর বিধবা স্ত্রী রওশনারা আক্তার। তিনি লিখিত অভিযোগে জানান চাঁদা না দেয়ায় নগরীর নুরপুর ঠিকাদার পাড়া এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী চাঁদাবাজ মেরাজ ও তার ভাই এজাজ তাদের সহযোগী নিয়ে আর এফএল গ্রুপের পরিবেশক ও লাকি ফার্নিচারের দোকানে হামলা চালিয়ে ব্যাংকে ডিডি করার ১ লাখ ৩০ হাজার টাকা লুট করে নেয়ার সময় বাঁধা দিলে তার ছেলে জাহাঙ্গীর ও নুর আলমকে ছোড়া রড দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করে জখম করে। এ ঘটনায় তার বড় ছেলে নুর আলম বাদী হয়ে রংপুর মেট্রোপলিটান কোতয়ালী থানায় মামলা দায়ের করে। করার পর থেকে সন্ত্রাসীরা মামলা তুলে নেয়ার জন্য বাড়িতে হামলা গালাগাল ও বাড়ির সামনে অস্ত্রের মহড়া দেয়। এ ঘটনায় পুরো পরিবার গৃহবন্দী অবস্থায় মানবেতর দিন কাটাচ্ছে। সংবাদ সম্মেলনে রওশন আরা বেগম তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার দাবি জানিয়ে বলেন তারা মিথ্যা মামলা দায়ের করে আমাদের উল্টো ফাঁসানোর পায়তারা করছে।