দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির লাগাম টানতে হবে

বর্তমানে দ্রব্যমূল্য বেড়ে যাওয়ায় নিম্ন ও মধ্যবিত্ত মানুষদের শুরু হয়েছে বোবা কান্না। অনেকে পেটপুরে খাওয়া তো দূরের কথা, না খেয়েই দিনাতিপাত করছে। সামনের দিনগুলোতে এ দ্রব্যমূল্যের লাগাম টেনে না ধরলে নিম্ন ও মধ্যবিত্তের বোবা কান্না শেষ পর্যন্ত ক্ষোভের উদগিরণে রূপ নিতে পারে। স্বল্প আয়ের এসব মানুষের হাসি-কান্না অনেকটাই নির্ভর করে নিত্যপণ্যের মূল্যের ওপর। গত বছরের একই সময়ের তুলনায়ও বর্তমানে প্রায় সব ধরনের নিত্যপণ্য বাড়তি দরে বিক্রি হচ্ছে। করোনাকালে আয় কমায় ও ব্যয় বেড়ে যাওয়ায় ভোক্তারা দিশেহারা। এতে সবচেয়ে বেশি হিমশিম খাচ্ছেন নিম্ন আয় ও খেটে খাওয়া মানুষ।

তাই সরকারকে অধিক মুনাফালোভী ব্যবসায়ীদের কঠোর হাতে দমন করতে হবে। বাজারে মনিটরিং বাড়ানো, ভ্রাম্যমাণ আদালতের নিয়মিত অভিযান পরিচালনা, অনিয়ম প্রমাণিত হলে বিক্রেতা ও ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। যেসব ব্যবসায়ী অসৎ ও অনৈতিকভাবে দ্রব্যমূল্য বাড়ায় তাদের কাছ থেকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে শুধু জরিমানা আদায় নয়, ট্রেড লাইসেন্স বাতিলের মতো ব্যবস্থাও নিতে হবে। আশাকরি কর্তৃপক্ষ যথাযথ ব্যবস্থা নেবেন।

আবির হাসান সুজন

বুধবার, ০৬ অক্টোবর ২০২১ , ২১ আশ্বিন ১৪২৮ ২৭ সফর ১৪৪৩

দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির লাগাম টানতে হবে

image

বর্তমানে দ্রব্যমূল্য বেড়ে যাওয়ায় নিম্ন ও মধ্যবিত্ত মানুষদের শুরু হয়েছে বোবা কান্না। অনেকে পেটপুরে খাওয়া তো দূরের কথা, না খেয়েই দিনাতিপাত করছে। সামনের দিনগুলোতে এ দ্রব্যমূল্যের লাগাম টেনে না ধরলে নিম্ন ও মধ্যবিত্তের বোবা কান্না শেষ পর্যন্ত ক্ষোভের উদগিরণে রূপ নিতে পারে। স্বল্প আয়ের এসব মানুষের হাসি-কান্না অনেকটাই নির্ভর করে নিত্যপণ্যের মূল্যের ওপর। গত বছরের একই সময়ের তুলনায়ও বর্তমানে প্রায় সব ধরনের নিত্যপণ্য বাড়তি দরে বিক্রি হচ্ছে। করোনাকালে আয় কমায় ও ব্যয় বেড়ে যাওয়ায় ভোক্তারা দিশেহারা। এতে সবচেয়ে বেশি হিমশিম খাচ্ছেন নিম্ন আয় ও খেটে খাওয়া মানুষ।

তাই সরকারকে অধিক মুনাফালোভী ব্যবসায়ীদের কঠোর হাতে দমন করতে হবে। বাজারে মনিটরিং বাড়ানো, ভ্রাম্যমাণ আদালতের নিয়মিত অভিযান পরিচালনা, অনিয়ম প্রমাণিত হলে বিক্রেতা ও ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। যেসব ব্যবসায়ী অসৎ ও অনৈতিকভাবে দ্রব্যমূল্য বাড়ায় তাদের কাছ থেকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে শুধু জরিমানা আদায় নয়, ট্রেড লাইসেন্স বাতিলের মতো ব্যবস্থাও নিতে হবে। আশাকরি কর্তৃপক্ষ যথাযথ ব্যবস্থা নেবেন।

আবির হাসান সুজন