পিস কমিটির নেতার পুত্রকে মনোনয়ন আ’লীগের বিক্ষোভ

রংপুরের পীরগাছা উপজেলার তাম্বুলপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন দিয়ে আবার সেই মনোনয়ন বাতিল করে পিস কমিটির নেতার পুত্রকে মনোনয়ন দেয়ার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ ঘটনা নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

শুক্রবার গভীর রাত পর্যন্ত অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সমাবেশে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতারা অভিযোগ করেন- গত ৭ অক্টোবর আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা স্বাক্ষরিত পত্রে তাম্বুলপুর ইউনিয়নে বিদ্যুৎ কুমার রায়কে আওয়ামী লীগ প্রার্থী হিসেবে নৌকা প্রতীকের মনোনয়ন দেয়া হয়। কিন্তু হঠাৎ করে ১৪ অক্টোবর গণমাধ্যমে খবর আসে তার প্রার্থিতা বাতিল করে শাহীন সরদার নামের একজনকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। বক্তাদের অভিযোগ, আওয়ামী লীগের একজন পরীক্ষিত নেতাকে বাদ দিয়ে ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা যুদ্ধ চলাকালে তাম্বুলপুর ইউনিয়ন পিস কমিটির সাধারণ সম্পাদক প্রয়াত মতিয়ার রহমানের পুত্র শাহীন সরদারকে নৌকার মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। যদি সত্যি সত্যি এটা করা হয় তাহলে যে কোন মূল্যে তাকে প্রতিহত করা হবে। এর আগে এলাকার শত শত মানুষ বিক্ষোভ মিছিল করে বিভিন্ন এলাকা প্রদক্ষিণ করে। পরে স্থানীয় নেকমামুদ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আবদুল কুদ্দুস মিয়ার সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন বীর মুক্তিযোদ্ধা শফি মিয়া, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক জসিম উদ্দিন, ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি রমেশ চন্দ্র রায় ও সাধারণ সম্পাদক শামীম ইসলাম, যুবলীগের সাবেক সভাপতি মোহাম্মদ আলী, হিন্দু বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্যপরিষদের উপজেলা সভাপতি ভবেশ চন্দ্র প্রমুখ।

এ ব্যাপারে আওয়ামী লীগ নেতা শাহিন সরদার সাংবাদিকদের জানান, বিগত ১২ বছর ধরে তিনি তাম্বুলপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি দীর্ঘদিন ধরে আওয়ামী রাজনীতির সঙ্গে জড়িত আছেন, উড়ে এসে জুড়ে বসা রাজনৈতিক নেতা নন। স্থানীয় পর্যায়ের সব নেতাকর্মী তার প্রতি ঐক্যবদ্ধ এবং তাকেই সমর্থন করেছে। বরং এর আগে যাকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছিল তাকে এলাকার মানুষ ভালোভাবে চেনে না। তবে পাল্টাপাল্টি দুই পক্ষই তাদের সমর্থনে শোডাউন করায় যে কোন সময় বড় ধরনের সহিংস ঘটনার আশঙ্কা করছে এলাকাবাসী।

উল্লেখ্য, আগামী ১১ নভেম্বর পীরগাছা উপজেলার ৮টি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আজ মনোনয়ন দাখিলের শেষ দিন। ইতোমধ্যে ৮টি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ তাদের দলীয় প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করেছে।

রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১ , ০১ কার্তিক ১৪২৮ ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

পীরগাছা ইউপি

পিস কমিটির নেতার পুত্রকে মনোনয়ন আ’লীগের বিক্ষোভ

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক, রংপুর

রংপুরের পীরগাছা উপজেলার তাম্বুলপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন দিয়ে আবার সেই মনোনয়ন বাতিল করে পিস কমিটির নেতার পুত্রকে মনোনয়ন দেয়ার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ ঘটনা নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

শুক্রবার গভীর রাত পর্যন্ত অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সমাবেশে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতারা অভিযোগ করেন- গত ৭ অক্টোবর আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা স্বাক্ষরিত পত্রে তাম্বুলপুর ইউনিয়নে বিদ্যুৎ কুমার রায়কে আওয়ামী লীগ প্রার্থী হিসেবে নৌকা প্রতীকের মনোনয়ন দেয়া হয়। কিন্তু হঠাৎ করে ১৪ অক্টোবর গণমাধ্যমে খবর আসে তার প্রার্থিতা বাতিল করে শাহীন সরদার নামের একজনকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। বক্তাদের অভিযোগ, আওয়ামী লীগের একজন পরীক্ষিত নেতাকে বাদ দিয়ে ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা যুদ্ধ চলাকালে তাম্বুলপুর ইউনিয়ন পিস কমিটির সাধারণ সম্পাদক প্রয়াত মতিয়ার রহমানের পুত্র শাহীন সরদারকে নৌকার মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। যদি সত্যি সত্যি এটা করা হয় তাহলে যে কোন মূল্যে তাকে প্রতিহত করা হবে। এর আগে এলাকার শত শত মানুষ বিক্ষোভ মিছিল করে বিভিন্ন এলাকা প্রদক্ষিণ করে। পরে স্থানীয় নেকমামুদ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আবদুল কুদ্দুস মিয়ার সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন বীর মুক্তিযোদ্ধা শফি মিয়া, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক জসিম উদ্দিন, ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি রমেশ চন্দ্র রায় ও সাধারণ সম্পাদক শামীম ইসলাম, যুবলীগের সাবেক সভাপতি মোহাম্মদ আলী, হিন্দু বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্যপরিষদের উপজেলা সভাপতি ভবেশ চন্দ্র প্রমুখ।

এ ব্যাপারে আওয়ামী লীগ নেতা শাহিন সরদার সাংবাদিকদের জানান, বিগত ১২ বছর ধরে তিনি তাম্বুলপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি দীর্ঘদিন ধরে আওয়ামী রাজনীতির সঙ্গে জড়িত আছেন, উড়ে এসে জুড়ে বসা রাজনৈতিক নেতা নন। স্থানীয় পর্যায়ের সব নেতাকর্মী তার প্রতি ঐক্যবদ্ধ এবং তাকেই সমর্থন করেছে। বরং এর আগে যাকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছিল তাকে এলাকার মানুষ ভালোভাবে চেনে না। তবে পাল্টাপাল্টি দুই পক্ষই তাদের সমর্থনে শোডাউন করায় যে কোন সময় বড় ধরনের সহিংস ঘটনার আশঙ্কা করছে এলাকাবাসী।

উল্লেখ্য, আগামী ১১ নভেম্বর পীরগাছা উপজেলার ৮টি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আজ মনোনয়ন দাখিলের শেষ দিন। ইতোমধ্যে ৮টি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ তাদের দলীয় প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করেছে।