একদিনে ফের ১৭ পদের নিয়োগ পরীক্ষা

আবারও একই দিনে ১০ প্রতিষ্ঠানের ১৭ পদের নিয়োগ পরীক্ষার সূচি প্রকাশিত হয়েছে। আগামী ২২ অক্টোবর এসব পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরেরই আট পদের নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

করোনার কারণে দীর্ঘ দেড় বছর প্রায় সব ধরনের চাকরির পরীক্ষা বন্ধ ছিল। এখন অনেক পরীক্ষা একই দিনে, একই সময়ে হওয়াতে চাকরিপ্রার্থীরা বিপদে পড়েছেন। কোনটা রেখে কোন পরীক্ষা দেবেন। প্রতিটা পরীক্ষার নিবন্ধনের জন্য আবেদন করতে হয় টাকা দিয়ে। এখন আবেদন করেও সব পরীক্ষা দিতে পারছেন না অনেকেই।

এর আগে গত ১৭ সেপ্টেম্বর কথা হয়োছিল শেরে বাংলা বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ে পরীক্ষার্থী আমিনুল ইসলামের সঙ্গে। সেদিন তিনি বলেছিলেন, একদিনে পাঁচটি পরীক্ষার তারিখ পড়েছে। এখন চাইলেও দুটি পরীক্ষায় অংশ নেয়া যাচ্ছে না। বাধ্য হয়ে ওয়াচার কনস্টেবল পদে পরীক্ষা দিচ্ছি। একই সময়ে শুরু হওয়া দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের কম্পিউটার অপারেটর পদের পরীক্ষাটি বাদ দিতে হচ্ছে। একইভাবে বিকেল ৩টা ও সাড়ে ৩টায় রয়েছে আরও দুটি পরীক্ষা। বিকেলের শিফটে সাড়ে ৩টার পরীক্ষায় অংশ নেয়ার প্রস্তুতি থাকলেও বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের মিটার টেস্টার পদের নিয়োগ পরীক্ষায় অংশ নেয়া যাচ্ছে না সেদিন অনেকেই বলেছিলেন, পরীক্ষা আয়োজনের ক্ষেত্রে সমন্বয় থাকা উচিত। সমন্বয়হীনতার কারণে ঢাকার বাইরে থেকে এসেও সব পরীক্ষায় অংশ নিতে পারছি না। চাকরি প্রার্থীরা নিয়োগ পরীক্ষায় অংশ নিতে গিয়ে চরম বিপাকে পড়ছেন।

একই দিনে একাধিক সরকারি প্রতিষ্ঠান নিয়োগ পরীক্ষার আয়োজন করায় চাকরিপ্রত্যাশীরা এসব পরীক্ষায় অংশ নিতে পারছেন না। এতে তাদের মৌলিক অধিকার ক্ষুণœœ হচ্ছে বলে মনে করছেন আইনজ্ঞরা। চাকরিপ্রার্থী ও তাদের অভিভাবকরা বলছেন, চাকরিদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর সমন্বয়হীনতার কারণেই এই সমস্যা তৈরি হয়েছে। এতে প্রার্থীর অর্থ ও শ্রম উভয়ই নষ্ট হচ্ছে।

চাকরিপ্রত্যাশীদের এই সমস্যা সমাধানের উদ্যোগ নেয়ার কথা জানিয়েছিলেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন। তিনি বলেছিলেন, চাকরিপ্রার্থীদের কথা বিবেচনা করে ভবিষ্যতে যাতে এরকম একসঙ্গে পরীক্ষাগুলো না পড়ে এবং সমন্বয় করে তারিখ ঘোষণা করা হয়, সেজন্য আমরা একটি সার্কুলার দেব। কিন্তু তার এ আশ্বাসের কোন প্রতিফলন এবারও দেখা গেল না। আবারও আগামী ২২ অক্টোবর একই দিনে ১০ প্রতিষ্ঠানের ১৭ পদের নিয়োগ পরীক্ষার সূচি প্রকাশিত হয়েছে।

বাংলাদেশ কন্ট্রোলার অ্যান্ড অডিটর জেনারেল, বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য অধিদপ্তর, অর্থ মন্ত্রণালয়, জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর, বাংলাদেশ ব্যাংক, শিল্প মন্ত্রণালয়, সিভিল এভিয়েশন অথরিটি, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো, স্থানীয় সরকার বিভাগ ২২ অক্টোবর নিয়োগ পরীক্ষার সময় সূচি দিয়েছে। এছাড়া মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের (মাউশি) আট ক্যাটাগরিতে নিয়োগ পরীক্ষার (লিখিত) তারিখ প্রকাশিত হয়েছে। ২২ অক্টোবর বিকেল ৩টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১ , ০১ কার্তিক ১৪২৮ ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

একদিনে ফের ১৭ পদের নিয়োগ পরীক্ষা

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

আবারও একই দিনে ১০ প্রতিষ্ঠানের ১৭ পদের নিয়োগ পরীক্ষার সূচি প্রকাশিত হয়েছে। আগামী ২২ অক্টোবর এসব পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এর মধ্যে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরেরই আট পদের নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

করোনার কারণে দীর্ঘ দেড় বছর প্রায় সব ধরনের চাকরির পরীক্ষা বন্ধ ছিল। এখন অনেক পরীক্ষা একই দিনে, একই সময়ে হওয়াতে চাকরিপ্রার্থীরা বিপদে পড়েছেন। কোনটা রেখে কোন পরীক্ষা দেবেন। প্রতিটা পরীক্ষার নিবন্ধনের জন্য আবেদন করতে হয় টাকা দিয়ে। এখন আবেদন করেও সব পরীক্ষা দিতে পারছেন না অনেকেই।

এর আগে গত ১৭ সেপ্টেম্বর কথা হয়োছিল শেরে বাংলা বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ে পরীক্ষার্থী আমিনুল ইসলামের সঙ্গে। সেদিন তিনি বলেছিলেন, একদিনে পাঁচটি পরীক্ষার তারিখ পড়েছে। এখন চাইলেও দুটি পরীক্ষায় অংশ নেয়া যাচ্ছে না। বাধ্য হয়ে ওয়াচার কনস্টেবল পদে পরীক্ষা দিচ্ছি। একই সময়ে শুরু হওয়া দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের কম্পিউটার অপারেটর পদের পরীক্ষাটি বাদ দিতে হচ্ছে। একইভাবে বিকেল ৩টা ও সাড়ে ৩টায় রয়েছে আরও দুটি পরীক্ষা। বিকেলের শিফটে সাড়ে ৩টার পরীক্ষায় অংশ নেয়ার প্রস্তুতি থাকলেও বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের মিটার টেস্টার পদের নিয়োগ পরীক্ষায় অংশ নেয়া যাচ্ছে না সেদিন অনেকেই বলেছিলেন, পরীক্ষা আয়োজনের ক্ষেত্রে সমন্বয় থাকা উচিত। সমন্বয়হীনতার কারণে ঢাকার বাইরে থেকে এসেও সব পরীক্ষায় অংশ নিতে পারছি না। চাকরি প্রার্থীরা নিয়োগ পরীক্ষায় অংশ নিতে গিয়ে চরম বিপাকে পড়ছেন।

একই দিনে একাধিক সরকারি প্রতিষ্ঠান নিয়োগ পরীক্ষার আয়োজন করায় চাকরিপ্রত্যাশীরা এসব পরীক্ষায় অংশ নিতে পারছেন না। এতে তাদের মৌলিক অধিকার ক্ষুণœœ হচ্ছে বলে মনে করছেন আইনজ্ঞরা। চাকরিপ্রার্থী ও তাদের অভিভাবকরা বলছেন, চাকরিদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোর সমন্বয়হীনতার কারণেই এই সমস্যা তৈরি হয়েছে। এতে প্রার্থীর অর্থ ও শ্রম উভয়ই নষ্ট হচ্ছে।

চাকরিপ্রত্যাশীদের এই সমস্যা সমাধানের উদ্যোগ নেয়ার কথা জানিয়েছিলেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন। তিনি বলেছিলেন, চাকরিপ্রার্থীদের কথা বিবেচনা করে ভবিষ্যতে যাতে এরকম একসঙ্গে পরীক্ষাগুলো না পড়ে এবং সমন্বয় করে তারিখ ঘোষণা করা হয়, সেজন্য আমরা একটি সার্কুলার দেব। কিন্তু তার এ আশ্বাসের কোন প্রতিফলন এবারও দেখা গেল না। আবারও আগামী ২২ অক্টোবর একই দিনে ১০ প্রতিষ্ঠানের ১৭ পদের নিয়োগ পরীক্ষার সূচি প্রকাশিত হয়েছে।

বাংলাদেশ কন্ট্রোলার অ্যান্ড অডিটর জেনারেল, বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য অধিদপ্তর, অর্থ মন্ত্রণালয়, জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর, বাংলাদেশ ব্যাংক, শিল্প মন্ত্রণালয়, সিভিল এভিয়েশন অথরিটি, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো, স্থানীয় সরকার বিভাগ ২২ অক্টোবর নিয়োগ পরীক্ষার সময় সূচি দিয়েছে। এছাড়া মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের (মাউশি) আট ক্যাটাগরিতে নিয়োগ পরীক্ষার (লিখিত) তারিখ প্রকাশিত হয়েছে। ২২ অক্টোবর বিকেল ৩টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।