বিশ্ববিদ্যালয়ের গুচ্ছভর্তি পরীক্ষা : ‘এ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা সম্পন্ন

শিক্ষার্থীদের ভোগান্তি কমাতে প্রথমবারের মতো ২৯টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে গুচ্ছভাবে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল দেশের মোট ২০টি সাধারণ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘এ’ ইউনিটের (বিজ্ঞান শাখা) ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ভর্তি পরীক্ষায় ১ লাখ ৩১ হাজার ৯০৫ জন শিক্ষার্থী অংশ নেন।

এক ঘণ্টার ভর্তি পরীক্ষায় ১০০ নম্বরের এমসিকিউ প্রশ্নের উত্তর দিতে হয়েছে পরীক্ষার্থীদের। এ পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে প্রকাশিত হবে মেধাতালিকা। গুচ্ছে থাকা বিশ্ববিদ্যালয়গুলো সেই মেধাতালিকা থেকে নিজেদের শর্ত পূরণ সাপেক্ষে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক প্রথমবর্ষে শিক্ষার্থী ভর্তি করবে।

প্রথমবারের মতো গুচ্ছ পদ্ধতিতে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে (খুবি) অনুষ্ঠিত ভর্তি পরীক্ষার হল প্রদর্শন শেষে উপাচার্য প্রফেসর ড. মাহমুদ হোসেন বলেন, গুচ্ছভর্তি পরীক্ষার ফলে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের এবার বহুলাংশে ভোগান্তি কমেছে। এবার বৃহত্তর পরিসরের এ পরীক্ষার সাফল্যের ওপর নির্ভর করে ভবিষ্যতে আরও অনেক সিদ্ধান্ত হতে পারে। তিনি বলেন, আমরা শতভাগ সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে এ পরীক্ষা নিয়েছি। সার্বিক ব্যবস্থাপনায় আমরা সন্তুষ্ট।

গুচ্ছ পরীক্ষা কমিটির সদস্য সচিব ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যলয়ের রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী ওহিদুজ্জামান জানান, মহামারী পরিস্থিতি বিবেচনায় সারা দেশে ২৮টি কেন্দ্রে এই পরীক্ষা নেয়া হয়েছে। একইভাবে আগামী ২৪ অক্টোবর মানবিক বিভাগ এবং ১ নভেম্বর বাণিজ্য বিভাগের ভর্তি পরীক্ষা হবে।

জানা যায়, গুচ্ছভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে সব মিলিয়ে ৩ লাখ ৬১ হাজার ৪০৬ জন শিক্ষার্থী প্রাথমিকভাবে আবেদন করেন। এর মধ্যে বিজ্ঞান বিভাগে ১ লাখ ৯৪ হাজার ৮৪১, মানবিক বিভাগে ১ লাখ ৭ হাজার ৯৩৩ এবং বাণিজ্য বিভাগে ৫৮ হাজার ৬৩২ জন শিক্ষার্থী আবেদন করেছেন। তবে বিজ্ঞান বিভাগের ১ লাখ ৩১ হাজার ৯০৫ জন এবং মানবিক ও বাণিজ্যের সব শিক্ষার্থী চূড়ান্ত আবেদনের সুযোগ পেয়েছেন।

বর্তমানে দেশে মোট ৫১টি অনুমোদিত পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে। তার মধ্যে ৩৯টি বিশ্ববিদ্যালয়ে সরাসরি শিক্ষার্থী ভর্তি করা হয়। বেশ কয়েকবছর ধরেই গুচ্ছ পরীক্ষা নেয়ার জন্য আলোচনা চলে আসছিল, এবারই প্রথমবারের মতন ২৯টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে গুচ্ছভাবে ভর্তি পরীক্ষা নেয়া হচ্ছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়সহ (বুয়েট) কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ে আলাদাভাবে ভর্তি পরীক্ষা নেয়া হচ্ছে।

আরও খবর
আজ শেখ রাসেল দিবস
অর্থ পাচার, আট মামলার প্রতিবেদন হাইকোর্টে
‘বাংলাদেশের অপার সম্ভাবনা বিশ্বে তুলে ধরতে হবে’
ক্লাসে ফিরেছেন ঢাবি শিক্ষার্থীরা
কুমিল্লার ঘটনায় দুষ্কৃতকারীদের সন্ধানে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী
ঈদে মিলাদুন্নবীর ছুটি পুনঃনির্ধারণ ২০ অক্টোবর
রেলওয়ের অবসরপ্রাপ্ত কমান্ড্যান্ট এম এ মান্নানের মৃত্যু
চট্টগ্রামে গ্যাস লাইন বিস্ফোরণে নিহত ১
রাজধানীর কিছু এলাকায় আজ ৮ ঘণ্টা গ্যাস বন্ধ থাকবে
রাজধানীতে দুই মরদেহ উদ্ধার
ক্যাসিনো সেলিমের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন ৩১ অক্টোবর
জি বাংলার পর দেশে স্টার জলসাও সম্প্রচারে
ফের বাড়ছে সয়াবিন তেলের দাম
করোনায় মৃত্যু বেড়ে ১৬, শনাক্তের হার ১.৭৪
জাতীয়করণকৃত প্রাথমিক শিক্ষক মহাজোটের ৩ দাবি

সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১ , ০২ কার্তিক ১৪২৮ ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

বিশ্ববিদ্যালয়ের গুচ্ছভর্তি পরীক্ষা : ‘এ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা সম্পন্ন

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

শিক্ষার্থীদের ভোগান্তি কমাতে প্রথমবারের মতো ২৯টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে গুচ্ছভাবে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল দেশের মোট ২০টি সাধারণ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘এ’ ইউনিটের (বিজ্ঞান শাখা) ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ভর্তি পরীক্ষায় ১ লাখ ৩১ হাজার ৯০৫ জন শিক্ষার্থী অংশ নেন।

এক ঘণ্টার ভর্তি পরীক্ষায় ১০০ নম্বরের এমসিকিউ প্রশ্নের উত্তর দিতে হয়েছে পরীক্ষার্থীদের। এ পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে প্রকাশিত হবে মেধাতালিকা। গুচ্ছে থাকা বিশ্ববিদ্যালয়গুলো সেই মেধাতালিকা থেকে নিজেদের শর্ত পূরণ সাপেক্ষে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক প্রথমবর্ষে শিক্ষার্থী ভর্তি করবে।

প্রথমবারের মতো গুচ্ছ পদ্ধতিতে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে (খুবি) অনুষ্ঠিত ভর্তি পরীক্ষার হল প্রদর্শন শেষে উপাচার্য প্রফেসর ড. মাহমুদ হোসেন বলেন, গুচ্ছভর্তি পরীক্ষার ফলে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের এবার বহুলাংশে ভোগান্তি কমেছে। এবার বৃহত্তর পরিসরের এ পরীক্ষার সাফল্যের ওপর নির্ভর করে ভবিষ্যতে আরও অনেক সিদ্ধান্ত হতে পারে। তিনি বলেন, আমরা শতভাগ সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে এ পরীক্ষা নিয়েছি। সার্বিক ব্যবস্থাপনায় আমরা সন্তুষ্ট।

গুচ্ছ পরীক্ষা কমিটির সদস্য সচিব ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যলয়ের রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী ওহিদুজ্জামান জানান, মহামারী পরিস্থিতি বিবেচনায় সারা দেশে ২৮টি কেন্দ্রে এই পরীক্ষা নেয়া হয়েছে। একইভাবে আগামী ২৪ অক্টোবর মানবিক বিভাগ এবং ১ নভেম্বর বাণিজ্য বিভাগের ভর্তি পরীক্ষা হবে।

জানা যায়, গুচ্ছভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে সব মিলিয়ে ৩ লাখ ৬১ হাজার ৪০৬ জন শিক্ষার্থী প্রাথমিকভাবে আবেদন করেন। এর মধ্যে বিজ্ঞান বিভাগে ১ লাখ ৯৪ হাজার ৮৪১, মানবিক বিভাগে ১ লাখ ৭ হাজার ৯৩৩ এবং বাণিজ্য বিভাগে ৫৮ হাজার ৬৩২ জন শিক্ষার্থী আবেদন করেছেন। তবে বিজ্ঞান বিভাগের ১ লাখ ৩১ হাজার ৯০৫ জন এবং মানবিক ও বাণিজ্যের সব শিক্ষার্থী চূড়ান্ত আবেদনের সুযোগ পেয়েছেন।

বর্তমানে দেশে মোট ৫১টি অনুমোদিত পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে। তার মধ্যে ৩৯টি বিশ্ববিদ্যালয়ে সরাসরি শিক্ষার্থী ভর্তি করা হয়। বেশ কয়েকবছর ধরেই গুচ্ছ পরীক্ষা নেয়ার জন্য আলোচনা চলে আসছিল, এবারই প্রথমবারের মতন ২৯টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে গুচ্ছভাবে ভর্তি পরীক্ষা নেয়া হচ্ছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়সহ (বুয়েট) কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ে আলাদাভাবে ভর্তি পরীক্ষা নেয়া হচ্ছে।