দ্রুতই স্কুলে ফিরবে আফগান মেয়েরা : তালেবান

আফগানিস্তানে মেয়েরা খুব শিগগিরই স্কুলে ফিরবে বলে নিশ্চয়তা দিয়েছে তালেবান। আফগান শিক্ষা মন্ত্রণালয় দ্রুতই মেয়েদের সেকেন্ডারি স্কুল ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ফেরার সময় ঘোষণা করবে বলে জানিয়েছেন গোষ্ঠীটির এক জ্যেষ্ঠ নেতা।

আফগান স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র কারি সায়িদ খোসতি আলজাজিরাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, আমার জানামতেÑ সব বিশ্ববিদ্যালয় ও স্কুল খুব শিগগিরই খুলে দেওয়া হবে। সব মেয়েই স্কুলে যাবে এবং নারীরা শিক্ষকতার চাকরি ফিরে পাবেন।

গত আগস্টে তালেবান আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখলের পর কিশোরীদের স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দেয়। নিরাপদ শিক্ষা ব্যবস্থা গড়ে না ওঠা পর্যন্ত তাদের ঘরে থাকার নির্দেশ দেয় সশস্ত্র গোষ্ঠীটি। তবে সব শ্রেণীর ছেলে ও প্রাথমিকের মেয়েদের স্কুলে যাওয়ার অনুমতি রয়েছে।

কিন্তু বয়সে তুলনামূলক বড় মেয়েদের স্কুলে যাওয়া অনিশ্চিত হয়ে পড়ায় অনেকেই আশঙ্কা করছেন, তালেবান হয়তো তাদের নব্বই দশকের কট্টর শাসন ব্যবস্থাই ফিরিয়ে আনতে চলেছে। যদিও কাবুলের নতুন শাসকদের পক্ষ থেকে বারবার আশ্বস্ত করা হয়েছেÑ উপযুক্ত পর্দা ব্যবস্থা নিশ্চিত হলেই আফগান মেয়েরা স্কুল-বিশ্ববিদ্যালয়ে ফিরবে। কাবুল থেকে আলজাজিরার সংবাদদাতা বলেছেন, সেকেন্ডারি স্কুলের সব মেয়ে ও তাদের নারী শিক্ষকদের খুব শিগগিরই স্কুলে ফেরা নিশ্চিতÑ এমনটাই ইঙ্গিত দিয়েছেন কারি সায়িদ খোসতি।

তিনি বলেন, ক্ষমতা গ্রহণের পর থেকেই তালেবানের মুখে আমরা এ ধরনের কথা শুনে আসছি। হ্যাঁ, তারা (মেয়ে) ফিরছে। কিন্তু এতে সময় লাগবে। আর অবশ্যই, এটি অনেক মেয়ের ওপর প্রভাব ফেলছে। মেয়েরা স্কুলে ফিরতে ও পড়াশোনা চালিয়ে যেতে চায়।

মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১ , ০৩ কার্তিক ১৪২৮ ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

দ্রুতই স্কুলে ফিরবে আফগান মেয়েরা : তালেবান

image

গত আগস্টে আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখলের পর কিশোরীদের স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দেয় তালেবান

আফগানিস্তানে মেয়েরা খুব শিগগিরই স্কুলে ফিরবে বলে নিশ্চয়তা দিয়েছে তালেবান। আফগান শিক্ষা মন্ত্রণালয় দ্রুতই মেয়েদের সেকেন্ডারি স্কুল ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ফেরার সময় ঘোষণা করবে বলে জানিয়েছেন গোষ্ঠীটির এক জ্যেষ্ঠ নেতা।

আফগান স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র কারি সায়িদ খোসতি আলজাজিরাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, আমার জানামতেÑ সব বিশ্ববিদ্যালয় ও স্কুল খুব শিগগিরই খুলে দেওয়া হবে। সব মেয়েই স্কুলে যাবে এবং নারীরা শিক্ষকতার চাকরি ফিরে পাবেন।

গত আগস্টে তালেবান আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখলের পর কিশোরীদের স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দেয়। নিরাপদ শিক্ষা ব্যবস্থা গড়ে না ওঠা পর্যন্ত তাদের ঘরে থাকার নির্দেশ দেয় সশস্ত্র গোষ্ঠীটি। তবে সব শ্রেণীর ছেলে ও প্রাথমিকের মেয়েদের স্কুলে যাওয়ার অনুমতি রয়েছে।

কিন্তু বয়সে তুলনামূলক বড় মেয়েদের স্কুলে যাওয়া অনিশ্চিত হয়ে পড়ায় অনেকেই আশঙ্কা করছেন, তালেবান হয়তো তাদের নব্বই দশকের কট্টর শাসন ব্যবস্থাই ফিরিয়ে আনতে চলেছে। যদিও কাবুলের নতুন শাসকদের পক্ষ থেকে বারবার আশ্বস্ত করা হয়েছেÑ উপযুক্ত পর্দা ব্যবস্থা নিশ্চিত হলেই আফগান মেয়েরা স্কুল-বিশ্ববিদ্যালয়ে ফিরবে। কাবুল থেকে আলজাজিরার সংবাদদাতা বলেছেন, সেকেন্ডারি স্কুলের সব মেয়ে ও তাদের নারী শিক্ষকদের খুব শিগগিরই স্কুলে ফেরা নিশ্চিতÑ এমনটাই ইঙ্গিত দিয়েছেন কারি সায়িদ খোসতি।

তিনি বলেন, ক্ষমতা গ্রহণের পর থেকেই তালেবানের মুখে আমরা এ ধরনের কথা শুনে আসছি। হ্যাঁ, তারা (মেয়ে) ফিরছে। কিন্তু এতে সময় লাগবে। আর অবশ্যই, এটি অনেক মেয়ের ওপর প্রভাব ফেলছে। মেয়েরা স্কুলে ফিরতে ও পড়াশোনা চালিয়ে যেতে চায়।