দুর্নীতি ও যৌন হয়রানির অভিযোগে অধ্যক্ষ সাময়িক বরখাস্ত

অর্থ আত্মসাত, অনিয়ম, দুর্নীতি ও যৌন হয়রানীর অভিযোগে সিরাজগঞ্জ জেলা সদরের এসবি রেলওয়ে কলোনী স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ মো. আশরাফুল ইসলামকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। গত শনিবার প্রতিষ্ঠান পরিচালনা পরিষদের সভাপতি আজহার আলী স্বাক্ষরিত এক নোটিশে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। এর আগে কমিটির সভায় সাময়িক বরখাস্তের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

সভাপতি নোটিশে উল্লেখ করেন যে, অধ্যক্ষ আশরাফুল ইসলামের বিরুদ্ধে ছাত্রী ও অভিভাবকদের যৌন হয়রানির অভিযোগ রয়েছে। তিনি বিনা অনুমতিতে ছুটি ছাড়া এমনকি কাউকে দায়িত্ব না দিয়ে দিনের পর দিন প্রতিষ্ঠানে অনুপস্থিত। অধ্যক্ষকে ২০২০-২১ অর্থ বছরের আয়-ব্যয় হিসাব দাখিলের কথা বলা হলেও দীর্ঘ তিন মাসেও হিসাব দাখিল করেননি।

কমিটির অনুমতি ছাড়াই এককভাবে পুরাতন বই, খাতা ইত্যাদি বিক্রি করে টাকা নিজে আত্মসাত করেছেন। তাছাড়া ছাত্রী ও অভিভাবকরা লিখিতভাবে যৌন হয়রানীর অভিযোগ করেছেন। বিষয়টি ইতোপূর্বে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। এর আগে শিক্ষক নিয়োগ বাণিজ্যের অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। এসব ঘটনায় তাকে দুই দফায় কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছিল। কিন্তু জবাব সন্তোষজনক না হওয়ায় তাকে পরিচালনা কমিটির সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১ , ০৩ কার্তিক ১৪২৮ ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

সিরাজগঞ্জে

দুর্নীতি ও যৌন হয়রানির অভিযোগে অধ্যক্ষ সাময়িক বরখাস্ত

জেলা বার্তা পরিবেশক, সিরাজগঞ্জ

অর্থ আত্মসাত, অনিয়ম, দুর্নীতি ও যৌন হয়রানীর অভিযোগে সিরাজগঞ্জ জেলা সদরের এসবি রেলওয়ে কলোনী স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ মো. আশরাফুল ইসলামকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। গত শনিবার প্রতিষ্ঠান পরিচালনা পরিষদের সভাপতি আজহার আলী স্বাক্ষরিত এক নোটিশে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। এর আগে কমিটির সভায় সাময়িক বরখাস্তের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

সভাপতি নোটিশে উল্লেখ করেন যে, অধ্যক্ষ আশরাফুল ইসলামের বিরুদ্ধে ছাত্রী ও অভিভাবকদের যৌন হয়রানির অভিযোগ রয়েছে। তিনি বিনা অনুমতিতে ছুটি ছাড়া এমনকি কাউকে দায়িত্ব না দিয়ে দিনের পর দিন প্রতিষ্ঠানে অনুপস্থিত। অধ্যক্ষকে ২০২০-২১ অর্থ বছরের আয়-ব্যয় হিসাব দাখিলের কথা বলা হলেও দীর্ঘ তিন মাসেও হিসাব দাখিল করেননি।

কমিটির অনুমতি ছাড়াই এককভাবে পুরাতন বই, খাতা ইত্যাদি বিক্রি করে টাকা নিজে আত্মসাত করেছেন। তাছাড়া ছাত্রী ও অভিভাবকরা লিখিতভাবে যৌন হয়রানীর অভিযোগ করেছেন। বিষয়টি ইতোপূর্বে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। এর আগে শিক্ষক নিয়োগ বাণিজ্যের অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। এসব ঘটনায় তাকে দুই দফায় কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছিল। কিন্তু জবাব সন্তোষজনক না হওয়ায় তাকে পরিচালনা কমিটির সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।