সিরিয়ায় ১৪ সেনা নিহতের প্রতিশোধ নিতে ১২ জনকে হত্যা

সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কে সামরিক বাসে হামলা চালিয়ে ১৪ সেনা সদস্য নিহতের প্রতিশোধে চালানো পাল্টা হামলায় ১২ জন নিহত হয়েছেন। দেশটির উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত ইদলিবে সরকারি বাহিনী বুধবার (২০ অক্টোবর) এই হামলা চালায়। নিহতদের মধ্যে শিক্ষক ও শিশু শিক্ষার্থীসহ বেসামরিক মানুষও রয়েছেন। এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে দামেস্কে সরকারি বাহিনীর ওপর চালানো এই হামলাটি ছিল সবচেয়ে রক্তক্ষয়ী।

সরকারি সংবাদ মাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়, সেনা সদস্যদের বহনকারী একটি বাস সকালের দিকে দামেস্ক শহরের কেন্দ্রস্থলে হাফিজ আল আসাদ সেতুর কাছে পৌঁছানোর পর দুটি সামরিক বাসে পৃথক দুটি শক্তিশালী বোমা বিস্ফোরিত হয়। এতে ঘটনাস্থলেই নিহত হয় ১৪ সরকারি সেনা।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, মোট তিনটি বাসে ৩টি বোমা রাখা হয়েছিল। তার মধ্যে দুটি বিস্ফোরিত হয়েছে এবং অন্যটি হয়নি। অবিস্ফোরিত বোমাটিকে সামরিক বাহিনীর প্রকৌশলীরা নিষ্ক্রিয় করেন।

রয়টার্স বলছে, এই হামলার প্রায় ঘণ্টাখানেক পরই সিরিয়ার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত ইদলিবের আরিহায় ব্যাপক হামলা করে দেশটির সরকারি বাহিনী। দেশটির এ অঞ্চলটি আসাদ সরকারের বিরোধীরা এখনও নিজেদের দখলে রেখেছে।

শুক্রবার, ২২ অক্টোবর ২০২১ , ০৬ কার্তিক ১৪২৮ ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

সিরিয়ায় ১৪ সেনা নিহতের প্রতিশোধ নিতে ১২ জনকে হত্যা

সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কে সামরিক বাসে হামলা চালিয়ে ১৪ সেনা সদস্য নিহতের প্রতিশোধে চালানো পাল্টা হামলায় ১২ জন নিহত হয়েছেন। দেশটির উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত ইদলিবে সরকারি বাহিনী বুধবার (২০ অক্টোবর) এই হামলা চালায়। নিহতদের মধ্যে শিক্ষক ও শিশু শিক্ষার্থীসহ বেসামরিক মানুষও রয়েছেন। এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে দামেস্কে সরকারি বাহিনীর ওপর চালানো এই হামলাটি ছিল সবচেয়ে রক্তক্ষয়ী।

সরকারি সংবাদ মাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়, সেনা সদস্যদের বহনকারী একটি বাস সকালের দিকে দামেস্ক শহরের কেন্দ্রস্থলে হাফিজ আল আসাদ সেতুর কাছে পৌঁছানোর পর দুটি সামরিক বাসে পৃথক দুটি শক্তিশালী বোমা বিস্ফোরিত হয়। এতে ঘটনাস্থলেই নিহত হয় ১৪ সরকারি সেনা।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, মোট তিনটি বাসে ৩টি বোমা রাখা হয়েছিল। তার মধ্যে দুটি বিস্ফোরিত হয়েছে এবং অন্যটি হয়নি। অবিস্ফোরিত বোমাটিকে সামরিক বাহিনীর প্রকৌশলীরা নিষ্ক্রিয় করেন।

রয়টার্স বলছে, এই হামলার প্রায় ঘণ্টাখানেক পরই সিরিয়ার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত ইদলিবের আরিহায় ব্যাপক হামলা করে দেশটির সরকারি বাহিনী। দেশটির এ অঞ্চলটি আসাদ সরকারের বিরোধীরা এখনও নিজেদের দখলে রেখেছে।