‘চোকার্স’ তকমা মুছতে চায় নিউজিল্যান্ড

প্রতিবার তীরে এসে ডোবে তরী। এখনও অধরা রয়ে গিয়েছে বিশ্বজয়ের খেতাব। ২০১৫ হোক বা ২০১৯ বিশ্বকাপ, বারবার স্বপ্ন দেখেও আশাহত হতে হয়েছে সমর্থকদের। বিশ্বমঞ্চে কেবলই জুটেছে চোকার্স তকমা। তবে চলতি বছর আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ট্রফি নতুন করে তাতিয়ে দিয়েছে দলকে। টি-২০ বিশ্বকাপ জয়েরও অন্যতম দাবিদার হয়ে উঠেছে তারা। তারা নিউজিল্যান্ড। সৌভাগ্যক্রমে যারা এবার গ্রুপ পর্বে তুলনামূলক সহজ গ্রুপেই জায়গা পেয়েছে। ভারত-পাকিস্তান-আফগানিস্তানকে টক্কর দিতে কীভাবে ঘর গোছাচ্ছেন কেন উইলিয়ামসন?

শক্তি : ব্ল্যাক ক্যাপসের টপ অর্ডারই তাদের সবচেয়ে বড় শক্তি। মার্টিন গাপটিল পাওয়ার হিটার। অধিনায়ক উইলিয়ামসনের পারফরম্যান্স সমালোচনার ঊর্ধ্বে। খাদের ধার থেকে দলকে টেনে তুলে আনেন তিনি। ভরসাযোগ্য ব্যাটসম্যান কনওয়েও। লোয়ার অর্ডারে দলকে ভরসা দিতে পারেন গ্লেন ও নিশাম। বোলিং বিভাগে নজর দিলে দেখা যাবে জেমিসনস ফার্গুসন, সাউদি, বোল্টের মতো উইকেটে আগুন ধরানো তারকারা রয়েছেন। স্পিন বিভাগও খুব একটা মন্দ নয়। সোধি ও স্যান্টনাররা বিপক্ষকে বড় রান করা থেকে আটকে দিতে সক্ষম।

দুর্বলতা : কিউইদের সবচেয়ে বেশি যে বিষয়টি চিন্তায় রাখবে, তা হলো আমিরাতের পরিবেশ ও আবহাওয়া। দুবাইয়ের পরিবেশের সঙ্গে নিজেদের কতখানি মানিয়ে নিতে পারবেন তারা, সেটাই প্রশ্ন। আরও একটা চিন্তার কারণ হলো উইলিয়ামসনকে বাদ দিলে স্পিনের বিরুদ্ধে কোন ব্যাটসম্যানই সেভাবে ঝলসে উঠতে পারেন না। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ওয়ার্ম আপ ম্যাচেও সে প্রমাণ মিলেছে। তাছাড়া ডেথ ওভারে অতিরিক্ত রান দিয়ে দেয়ার রোগ রয়েছে ফার্গুসনদের।

এদিকে, বিশ্বকাপ শুরুর ঠিক আগে সাবেক পাক পেসার শোয়েব আখতার তোপ দেখেছেন নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে। বলেছেন, ভারত নয়, পাকিস্তানের সবচেয়ে বড় শত্রু উইলিয়ামসনরা। আসলে নিরাপত্তাহীনতার কারণ দেখিয়ে শেষ মুহূর্তে পাকভূমে সীমিত ওভারের সিরিজ বাতিল করে নিউজিল্যান্ড। সেই কারণেই কিউয়িদের ওপর ক্ষুব্ধ পাকিস্তানিরা। আখতার বলেছেন, বিশ্বকাপের ২২ গজে বাবর আজমরা ওই ঘটনার মোক্ষম জবাব দেবে। তাই কাঁটায় মোড়া পথ পেরিয়ে নিউজিল্যান্ড টুর্নামেন্টে কতটা এগোতে পারে, সেটাই দেখার।

নিউজিল্যান্ড দল

কেন উইলিয়ামসন (অধিনায়ক), টোড অ্যাসলে, ট্রেন্ট বোল্ট, মার্ক চ্যাপম্যান, ডেভন কনওয়ে, লকি ফার্গুসন, মার্টিন গাপটিল, কেইল জেমিসন, ড্যারিল মিশেল, জিমি নিশাম, গ্লেন ফিলিপস, মিচেল স্যান্টনার, টিম সেইফার্ট (উইকেটকিপার), ইশ সোধি, টিম সাউদি, অ্যাডাম মিলনে (স্ট্যান্ড-বাই)।

রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১ , ০৮ কার্তিক ১৪২৮ ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

‘চোকার্স’ তকমা মুছতে চায় নিউজিল্যান্ড

সংবাদ স্পোর্টস ডেস্ক

image

প্রতিবার তীরে এসে ডোবে তরী। এখনও অধরা রয়ে গিয়েছে বিশ্বজয়ের খেতাব। ২০১৫ হোক বা ২০১৯ বিশ্বকাপ, বারবার স্বপ্ন দেখেও আশাহত হতে হয়েছে সমর্থকদের। বিশ্বমঞ্চে কেবলই জুটেছে চোকার্স তকমা। তবে চলতি বছর আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ট্রফি নতুন করে তাতিয়ে দিয়েছে দলকে। টি-২০ বিশ্বকাপ জয়েরও অন্যতম দাবিদার হয়ে উঠেছে তারা। তারা নিউজিল্যান্ড। সৌভাগ্যক্রমে যারা এবার গ্রুপ পর্বে তুলনামূলক সহজ গ্রুপেই জায়গা পেয়েছে। ভারত-পাকিস্তান-আফগানিস্তানকে টক্কর দিতে কীভাবে ঘর গোছাচ্ছেন কেন উইলিয়ামসন?

শক্তি : ব্ল্যাক ক্যাপসের টপ অর্ডারই তাদের সবচেয়ে বড় শক্তি। মার্টিন গাপটিল পাওয়ার হিটার। অধিনায়ক উইলিয়ামসনের পারফরম্যান্স সমালোচনার ঊর্ধ্বে। খাদের ধার থেকে দলকে টেনে তুলে আনেন তিনি। ভরসাযোগ্য ব্যাটসম্যান কনওয়েও। লোয়ার অর্ডারে দলকে ভরসা দিতে পারেন গ্লেন ও নিশাম। বোলিং বিভাগে নজর দিলে দেখা যাবে জেমিসনস ফার্গুসন, সাউদি, বোল্টের মতো উইকেটে আগুন ধরানো তারকারা রয়েছেন। স্পিন বিভাগও খুব একটা মন্দ নয়। সোধি ও স্যান্টনাররা বিপক্ষকে বড় রান করা থেকে আটকে দিতে সক্ষম।

দুর্বলতা : কিউইদের সবচেয়ে বেশি যে বিষয়টি চিন্তায় রাখবে, তা হলো আমিরাতের পরিবেশ ও আবহাওয়া। দুবাইয়ের পরিবেশের সঙ্গে নিজেদের কতখানি মানিয়ে নিতে পারবেন তারা, সেটাই প্রশ্ন। আরও একটা চিন্তার কারণ হলো উইলিয়ামসনকে বাদ দিলে স্পিনের বিরুদ্ধে কোন ব্যাটসম্যানই সেভাবে ঝলসে উঠতে পারেন না। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ওয়ার্ম আপ ম্যাচেও সে প্রমাণ মিলেছে। তাছাড়া ডেথ ওভারে অতিরিক্ত রান দিয়ে দেয়ার রোগ রয়েছে ফার্গুসনদের।

এদিকে, বিশ্বকাপ শুরুর ঠিক আগে সাবেক পাক পেসার শোয়েব আখতার তোপ দেখেছেন নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে। বলেছেন, ভারত নয়, পাকিস্তানের সবচেয়ে বড় শত্রু উইলিয়ামসনরা। আসলে নিরাপত্তাহীনতার কারণ দেখিয়ে শেষ মুহূর্তে পাকভূমে সীমিত ওভারের সিরিজ বাতিল করে নিউজিল্যান্ড। সেই কারণেই কিউয়িদের ওপর ক্ষুব্ধ পাকিস্তানিরা। আখতার বলেছেন, বিশ্বকাপের ২২ গজে বাবর আজমরা ওই ঘটনার মোক্ষম জবাব দেবে। তাই কাঁটায় মোড়া পথ পেরিয়ে নিউজিল্যান্ড টুর্নামেন্টে কতটা এগোতে পারে, সেটাই দেখার।

নিউজিল্যান্ড দল

কেন উইলিয়ামসন (অধিনায়ক), টোড অ্যাসলে, ট্রেন্ট বোল্ট, মার্ক চ্যাপম্যান, ডেভন কনওয়ে, লকি ফার্গুসন, মার্টিন গাপটিল, কেইল জেমিসন, ড্যারিল মিশেল, জিমি নিশাম, গ্লেন ফিলিপস, মিচেল স্যান্টনার, টিম সেইফার্ট (উইকেটকিপার), ইশ সোধি, টিম সাউদি, অ্যাডাম মিলনে (স্ট্যান্ড-বাই)।