সুপার টুয়েলভ

আজ জয়ে শুরু করতে চায় আফগানিস্তান ও স্কটল্যান্ড

আজ টি-২০ বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে মুখোমুখি হচ্ছে আফগানিস্তান ও স্কটল্যান্ড। তাই জয় দিয়ে সুপার টুয়েলভ শুরু করতে চায় আফগানিস্তান ও স্কটল্যান্ড দুই দলই। বাছাই পর্বে গ্রুপ ‘বি’র চ্যাম্পিয়ন হয়ে সুপার টুয়েলভে স্কটল্যান্ড।

শারজাহ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে (রাত ৮টায়) শুরু হবে আফগানিস্তান ও স্কটল্যান্ডের ম্যাচটি।

২০১০ সালে প্রথম টি-২০ বিশ্বকাপে প্রথম খেলার যোগ্যতা অর্জন করে আফগানিস্তান। এরপর ২০১২ ও ২০১৪ সালেও অংশ নিয়েছিল দলটি। নিজেদের প্রথম তিন আসরে প্রথম রাউন্ড থেকেই বিদায় নেয় আফগানরা। ২০১৬ সালের আসরে দ্বিতীয় রাউন্ডে খেলতে পারে আফগানিস্তান। আর এবার র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষ আট দলের মধ্যে থাকায় সুপার টুয়েলভে সরাসরি খেলার সুযোগ হয় আফগানদের। তাই সুপার টুয়েলভ দিয়ে সপ্তম বিশ্বকাপে যাত্রা শুরু করছে রশিদ-নবীরা। আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে বিশ্বকাপ শুরু করছে আফগানিস্তান। অফিসিয়াল দুই ম্যাচের একটিতে জয় ও পরাজিত হয় দলটি। ২০১৮ সালের জুন থেকে আটটি দ্বিপাক্ষীক সিরিজের সাতটিতেই জিতেছে আফগানরা।

একটি সিরিজ সমতায় শেষ করে তারা। তাই ভালো অবস্থায় থেকেই বিশ্বকাপ শুরু করতে পারছে আফগানরা।

অথচ এই বিশ্বকাপে আফগানিস্তানের খেলা নিয়ে ছিল সংশয়। কারণ, গত ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান দখল করে তালেবানরা। এরপর বিভিন্ন বিধি-নিষেধের মুখে পড়ে দেশটির ক্রীড়াঙ্গন। নারীদের ক্রিকেট নিষিদ্ধ করে দেয় তালেবানরা। তবে শেষ পর্যন্ত বিশ্বকাপ মঞ্চে নামছে আফগানিস্তান ক্রিকেট দল। ২০০৭ সালে টি-২০ বিশ্বকাপের প্রথম আসরেই খেলেছিল স্কটল্যান্ড। এরপর ২০০৯ সালে খেললেও, পরের তিন আসরে জায়গা পায়নি তারা। ২০১৬ সালে আবারও বিশ্বকাপের মঞ্চে দেখা যায় তাদের। তিন বিশ্বকাপেই প্রথম রাউন্ড থেকে বিদায় নেয় স্কটিশরা।

এবারই প্রথম সুপার টুয়েলভে তারা। বিশ্বকাপের শুরুতেই চমক দেখায় স্কটল্যান্ড। ফেভারিট বাংলাদেশকে ৬ রানে হারায় তারা। এরপর পাপুয়া নিউ গিনিকে ১৭ রানে ও ওমানকে ৮ উইকেটে হারিয়ে সুপার টুয়েলভে জায়গা করে নেয় স্কটিশরা। ৪ বিশ্বকাপে অংশ নিয়ে ১৪ ম্যাচে ৫ জয়-৯ হার রয়েছে আফগানিস্তানের। স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে এখন পর্যন্ত ৬টি ম্যাচ খেলেছে আফগানরা। সবগুলোই জিতেছে আফগানিস্তান। তাই স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে স্পষ্টভাবেই ফেভারিট আফগানরা। তবে আফগানিস্তানকেও চমকে দেয়ার সামর্থ্য রাখে স্কটল্যান্ড।

সোমবার, ২৫ অক্টোবর ২০২১ , ০৯ কার্তিক ১৪২৮ ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

সুপার টুয়েলভ

আজ জয়ে শুরু করতে চায় আফগানিস্তান ও স্কটল্যান্ড

সংবাদ স্পোর্টস ডেস্ক

image

আজ টি-২০ বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে মুখোমুখি হচ্ছে আফগানিস্তান ও স্কটল্যান্ড। তাই জয় দিয়ে সুপার টুয়েলভ শুরু করতে চায় আফগানিস্তান ও স্কটল্যান্ড দুই দলই। বাছাই পর্বে গ্রুপ ‘বি’র চ্যাম্পিয়ন হয়ে সুপার টুয়েলভে স্কটল্যান্ড।

শারজাহ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে (রাত ৮টায়) শুরু হবে আফগানিস্তান ও স্কটল্যান্ডের ম্যাচটি।

২০১০ সালে প্রথম টি-২০ বিশ্বকাপে প্রথম খেলার যোগ্যতা অর্জন করে আফগানিস্তান। এরপর ২০১২ ও ২০১৪ সালেও অংশ নিয়েছিল দলটি। নিজেদের প্রথম তিন আসরে প্রথম রাউন্ড থেকেই বিদায় নেয় আফগানরা। ২০১৬ সালের আসরে দ্বিতীয় রাউন্ডে খেলতে পারে আফগানিস্তান। আর এবার র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষ আট দলের মধ্যে থাকায় সুপার টুয়েলভে সরাসরি খেলার সুযোগ হয় আফগানদের। তাই সুপার টুয়েলভ দিয়ে সপ্তম বিশ্বকাপে যাত্রা শুরু করছে রশিদ-নবীরা। আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে বিশ্বকাপ শুরু করছে আফগানিস্তান। অফিসিয়াল দুই ম্যাচের একটিতে জয় ও পরাজিত হয় দলটি। ২০১৮ সালের জুন থেকে আটটি দ্বিপাক্ষীক সিরিজের সাতটিতেই জিতেছে আফগানরা।

একটি সিরিজ সমতায় শেষ করে তারা। তাই ভালো অবস্থায় থেকেই বিশ্বকাপ শুরু করতে পারছে আফগানরা।

অথচ এই বিশ্বকাপে আফগানিস্তানের খেলা নিয়ে ছিল সংশয়। কারণ, গত ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান দখল করে তালেবানরা। এরপর বিভিন্ন বিধি-নিষেধের মুখে পড়ে দেশটির ক্রীড়াঙ্গন। নারীদের ক্রিকেট নিষিদ্ধ করে দেয় তালেবানরা। তবে শেষ পর্যন্ত বিশ্বকাপ মঞ্চে নামছে আফগানিস্তান ক্রিকেট দল। ২০০৭ সালে টি-২০ বিশ্বকাপের প্রথম আসরেই খেলেছিল স্কটল্যান্ড। এরপর ২০০৯ সালে খেললেও, পরের তিন আসরে জায়গা পায়নি তারা। ২০১৬ সালে আবারও বিশ্বকাপের মঞ্চে দেখা যায় তাদের। তিন বিশ্বকাপেই প্রথম রাউন্ড থেকে বিদায় নেয় স্কটিশরা।

এবারই প্রথম সুপার টুয়েলভে তারা। বিশ্বকাপের শুরুতেই চমক দেখায় স্কটল্যান্ড। ফেভারিট বাংলাদেশকে ৬ রানে হারায় তারা। এরপর পাপুয়া নিউ গিনিকে ১৭ রানে ও ওমানকে ৮ উইকেটে হারিয়ে সুপার টুয়েলভে জায়গা করে নেয় স্কটিশরা। ৪ বিশ্বকাপে অংশ নিয়ে ১৪ ম্যাচে ৫ জয়-৯ হার রয়েছে আফগানিস্তানের। স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে এখন পর্যন্ত ৬টি ম্যাচ খেলেছে আফগানরা। সবগুলোই জিতেছে আফগানিস্তান। তাই স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে স্পষ্টভাবেই ফেভারিট আফগানরা। তবে আফগানিস্তানকেও চমকে দেয়ার সামর্থ্য রাখে স্কটল্যান্ড।