পানের ভাঁজে ভাঁজে ইয়াবার প্যাকেট

পান ব্যবসার আড়ালে মাদক ব্যবসায়ীরা (ছদ্মবেশী) এখন ইয়াবার ব্যবসা করছে। তারা অভিনব কৌশলে পানের ভাঁজে ভাঁজে ইয়াবার প্যাকেট ঢুকিয়ে ঢাকায় এনে ইয়াবা বিক্রি করছে।

এমন গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-১০ বিশেষ টিম রাজধানীর শ্যামপুর পোস্তগোলা অভিযান চালিয়ে প্রায় দুই কোটি টাকা মূল্যের ৬৫ হাজারেরও বেশি ইয়াবা উদ্ধার করছে। ঘটনায় জড়িত ৩ মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করেছে। গত শনিবার গভীররাতে অভিযান চালিয়ে এ মাদক উদ্ধার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃত মাদক ব্যবসায়ীরা হলো- মো. আইয়ূব, আবদুস শুক্কুর ও আমির হোসেন। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী বলে স্বীকার করেছে। তারা দীর্ঘদিন ধরে কক্সবাজার থেকে ইয়াবা ট্যাবলেটসহ অন্য মাদকদ্রব্য সংগ্রহ করে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সরবরাহ করছে। অভিযুক্ত মাদক ব্যবসায়ী আবদুস শুক্কুরের নামে পতেঙ্গা থানায় মামলাও রয়েছে।

র‌্যাব জানায়, উদ্ধারকৃত ইয়াবার মূল্য ১ কোটি ৯৫ লাখ ৩১ হাজার ৫শ’ টাকা মূল্যের ৬৫ হাজার ১০৫ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাব জানায়, সংঘবদ্ধ মাদক ব্যবসায়ীরা দীর্ঘদিন ধরে সীমান্তবর্তী জেলা কক্সবাজার থেকে পানের ডালায় করে ইয়াবার চালান নিয়ে শ্যামপুর পোস্তগোলা ফায়ার সার্ভিস অফিস সংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে। এমন তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-১০ সদস্যরা গত শনিবার রাত ১২টার পর থেকে টানা সাড়ে ৩ ঘণ্টার বেশি সময় ধরে অভিযান চালিয়ে ইয়াবা উদ্ধার করছে।

ছদ্মবেশী অভিযুক্তরা র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে পালানোর চেষ্টা করলে র‌্যাব ৩ জনকে হাতেনাতে গ্রেপ্তার করে। তাদের দেয়া তথ্য মতে, পানের ডালা তল্লাশি করে পানের ভাঁজে ভাঁজে ৩২৬টি প্যাকেটে ইয়াবা ছিল। এ চক্রে জড়িত পলাতকদেরকে ধরতে র‌্যাবের তৎপরতা অব্যাহত আছে।

এছাড়াও র‌্যাব সদস্যরা রাজধানীর শাহজাহানপুরে অভিযান চালিয়ে ১০ হাজার ৩শ’ পিস ইয়াবাসহ একটি প্রাইভেটকার জব্দ করা হয়েছে। ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে এক মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

র‌্যাব-৩ সদস্যরা গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে জানতে পারে, মাদক ব্যবসায়ী চক্রের সদস্যরা একটি প্রাইভেটকার যোগে ইয়াবা ট্যাবলেটের একটি চালান বিক্রয়ের উদ্দেশে বহন করে ঢাকায় নিয়ে আসছে। এমন খবরের ভিত্তিতে র‌্যাব-৩ টিম শাহজাহানপুর এলাকায় চেকপোস্ট স্থাপন করে তল্লাশির সময় মাদক ব্যবসায়ী শিশির হোসেন(৩২), পিতা- মৃত শাহ আলম, সাং- মল্লিকপুর গুচ্ছ গ্রাম, থানা- ঝিগরগাছা, জেলা-যশোরকে গ্রেপ্তার করেছে।

গ্রেপ্তারকৃত মাদক ব্যবসায়ীর ব্যবহৃত প্রাইভেটকারে শপিং ব্যাগের ভিতর পলিথিনে মোড়ানো প্যাকেট থেকে ১০ হাজার ৩শ’ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধারসহ প্রাইভেটকারটি জব্দ করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে উক্ত গ্রেপ্তারকৃত আসামী তার কৃতকর্মের বিষয়টি স্বীকার করে এবং দীর্ঘদিন যাবৎ মাদক ব্যবসা করে আসছে বলে জানায়। তার বিরুদ্ধে শাহজাহানপুর থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সোমবার, ১৫ নভেম্বর ২০২১ , ৩০ কার্তিক ১৪২৮ ৯ রবিউস সানি ১৪৪৩

পানের ভাঁজে ভাঁজে ইয়াবার প্যাকেট

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

পানের সঙ্গে ইয়াবা -সংবাদ

পান ব্যবসার আড়ালে মাদক ব্যবসায়ীরা (ছদ্মবেশী) এখন ইয়াবার ব্যবসা করছে। তারা অভিনব কৌশলে পানের ভাঁজে ভাঁজে ইয়াবার প্যাকেট ঢুকিয়ে ঢাকায় এনে ইয়াবা বিক্রি করছে।

এমন গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-১০ বিশেষ টিম রাজধানীর শ্যামপুর পোস্তগোলা অভিযান চালিয়ে প্রায় দুই কোটি টাকা মূল্যের ৬৫ হাজারেরও বেশি ইয়াবা উদ্ধার করছে। ঘটনায় জড়িত ৩ মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করেছে। গত শনিবার গভীররাতে অভিযান চালিয়ে এ মাদক উদ্ধার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃত মাদক ব্যবসায়ীরা হলো- মো. আইয়ূব, আবদুস শুক্কুর ও আমির হোসেন। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী বলে স্বীকার করেছে। তারা দীর্ঘদিন ধরে কক্সবাজার থেকে ইয়াবা ট্যাবলেটসহ অন্য মাদকদ্রব্য সংগ্রহ করে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সরবরাহ করছে। অভিযুক্ত মাদক ব্যবসায়ী আবদুস শুক্কুরের নামে পতেঙ্গা থানায় মামলাও রয়েছে।

র‌্যাব জানায়, উদ্ধারকৃত ইয়াবার মূল্য ১ কোটি ৯৫ লাখ ৩১ হাজার ৫শ’ টাকা মূল্যের ৬৫ হাজার ১০৫ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়।

র‌্যাব জানায়, সংঘবদ্ধ মাদক ব্যবসায়ীরা দীর্ঘদিন ধরে সীমান্তবর্তী জেলা কক্সবাজার থেকে পানের ডালায় করে ইয়াবার চালান নিয়ে শ্যামপুর পোস্তগোলা ফায়ার সার্ভিস অফিস সংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে। এমন তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-১০ সদস্যরা গত শনিবার রাত ১২টার পর থেকে টানা সাড়ে ৩ ঘণ্টার বেশি সময় ধরে অভিযান চালিয়ে ইয়াবা উদ্ধার করছে।

ছদ্মবেশী অভিযুক্তরা র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে পালানোর চেষ্টা করলে র‌্যাব ৩ জনকে হাতেনাতে গ্রেপ্তার করে। তাদের দেয়া তথ্য মতে, পানের ডালা তল্লাশি করে পানের ভাঁজে ভাঁজে ৩২৬টি প্যাকেটে ইয়াবা ছিল। এ চক্রে জড়িত পলাতকদেরকে ধরতে র‌্যাবের তৎপরতা অব্যাহত আছে।

এছাড়াও র‌্যাব সদস্যরা রাজধানীর শাহজাহানপুরে অভিযান চালিয়ে ১০ হাজার ৩শ’ পিস ইয়াবাসহ একটি প্রাইভেটকার জব্দ করা হয়েছে। ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে এক মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

র‌্যাব-৩ সদস্যরা গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে জানতে পারে, মাদক ব্যবসায়ী চক্রের সদস্যরা একটি প্রাইভেটকার যোগে ইয়াবা ট্যাবলেটের একটি চালান বিক্রয়ের উদ্দেশে বহন করে ঢাকায় নিয়ে আসছে। এমন খবরের ভিত্তিতে র‌্যাব-৩ টিম শাহজাহানপুর এলাকায় চেকপোস্ট স্থাপন করে তল্লাশির সময় মাদক ব্যবসায়ী শিশির হোসেন(৩২), পিতা- মৃত শাহ আলম, সাং- মল্লিকপুর গুচ্ছ গ্রাম, থানা- ঝিগরগাছা, জেলা-যশোরকে গ্রেপ্তার করেছে।

গ্রেপ্তারকৃত মাদক ব্যবসায়ীর ব্যবহৃত প্রাইভেটকারে শপিং ব্যাগের ভিতর পলিথিনে মোড়ানো প্যাকেট থেকে ১০ হাজার ৩শ’ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধারসহ প্রাইভেটকারটি জব্দ করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে উক্ত গ্রেপ্তারকৃত আসামী তার কৃতকর্মের বিষয়টি স্বীকার করে এবং দীর্ঘদিন যাবৎ মাদক ব্যবসা করে আসছে বলে জানায়। তার বিরুদ্ধে শাহজাহানপুর থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।