রুবেল-দিয়ার রুপা জয়

‘বুলস আই’য়ে তির বিদ্ধ করে প্রতিবারই ১০ কিংবা ৯ স্কোর করে চলেছেন দক্ষিণ কোরিয়ার রিও সু জং ও অলিম্পিক সোনা জয়ী লি সিয়ুং উন। কিন্তু সেই তুলনায় তাদের খুব একটা ধারে কাছেও যাচ্ছিলেন না বাংলাদেশের দুই আরচার হাকিম আহমেদ রুবেল ও দিয়া সিদ্দিকী। কিন্তু তারপরও পেছন থেকে উৎসাহ দিয়ে যাচ্ছিলেন জার্মান কোচ মার্টিন ফ্রেডরিখ। শেষ পর্যন্ত সেরাদের সঙ্গে আর পেরে উঠেননি লাল সবুজের আরচাররা। ফাইনালে হেরে জিতলেন রুপা।

এশিয়ান আরচারি কে ব্রোঞ্জ এসেছে আগেই। এবার এলো রুপা। শুক্রবার আর্মি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত রিকার্ভ মিশ্র দলগতের ফাইনালে দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা গড়েও ৫-১ সেটে হেরে গেছেন রুবেল ও দিয়া। ফলে রুপা নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে তাদের। এবারের এশিয়ান আরচারিতে প্রথমবারের মতো একটি রুপা ও দু’টি ব্রোঞ্জপদক জিতেছে বাংলাদেশ। ২০০৩ সাল কে এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে এই প্রথম পদক জিতল বাংলাদেশ। স্বর্ণ জিতে ইতিহাস গড়া হল না রুবেল দিয়ার। তারপরও শিষ্যদের পারফরম্যান্সে খুশী কোচ ফ্রেডরিখ, ‘আমি ওদের পারফরম্যান্সে খুশি। ওরা সবাই ভালো খেলেছে। এখানে আমরা হয়তো সোনা জিততে পারিনি। রুপা জিতেছি। এটা আসলে ফাইনালের মঞ্চ। এখানে পারফর্ম করতে আরো সময় লাগবে ওদের। তবে শেষ সেট ওরা বেশ ভালো তির ছুড়েছে।’ দিয়ার কথা, ‘ পুরো টুর্নামেন্টেই আমরা ভালো খেলেছি। ফাইনালেও চেষ্টা করেছি ভালো খেলার। আজ (গতকাল) প্রথম দিকে হয়তো তির লক্ষ্যভেদ করতে পারিনি। তবে শেষ দিকে এসে ভালো খেলেছি। এখানকার বাতাসটা বুঝতে পারিনি প্রথম সেটে। আর দ্বিতীয় সেটে আমার তির আটকে গেছিল। ওরা আসলে একই ধারবাহিকতায় তীর ছোড়ে। আমাদের আত্মবিশ্বাসটা ওই রকম পর্যায়ে পৌঁছাতে হবে।’ রুবেল বলেন, ‘এই হার কে অনেক কিছু শেখার আছে আমাদের। এখানে কিছু ভুল বুঝতে পেরেছি। যা শুধরে পরবর্তীতে আরো ভালো খেলার চেষ্টা করব আমি। তারপরও আমার নিজের পারফরম্যান্স নিয়ে অনেক খুশি। এ পর্যন্ত যত আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে খেলেছি, এবারেরটাই আমার সেরা স্কোর।’

শনিবার, ২০ নভেম্বর ২০২১ , ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ ১৪ রবিউস সানি ১৪৪৩

রুবেল-দিয়ার রুপা জয়

image

‘বুলস আই’য়ে তির বিদ্ধ করে প্রতিবারই ১০ কিংবা ৯ স্কোর করে চলেছেন দক্ষিণ কোরিয়ার রিও সু জং ও অলিম্পিক সোনা জয়ী লি সিয়ুং উন। কিন্তু সেই তুলনায় তাদের খুব একটা ধারে কাছেও যাচ্ছিলেন না বাংলাদেশের দুই আরচার হাকিম আহমেদ রুবেল ও দিয়া সিদ্দিকী। কিন্তু তারপরও পেছন থেকে উৎসাহ দিয়ে যাচ্ছিলেন জার্মান কোচ মার্টিন ফ্রেডরিখ। শেষ পর্যন্ত সেরাদের সঙ্গে আর পেরে উঠেননি লাল সবুজের আরচাররা। ফাইনালে হেরে জিতলেন রুপা।

এশিয়ান আরচারি কে ব্রোঞ্জ এসেছে আগেই। এবার এলো রুপা। শুক্রবার আর্মি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত রিকার্ভ মিশ্র দলগতের ফাইনালে দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা গড়েও ৫-১ সেটে হেরে গেছেন রুবেল ও দিয়া। ফলে রুপা নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে তাদের। এবারের এশিয়ান আরচারিতে প্রথমবারের মতো একটি রুপা ও দু’টি ব্রোঞ্জপদক জিতেছে বাংলাদেশ। ২০০৩ সাল কে এই প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে এই প্রথম পদক জিতল বাংলাদেশ। স্বর্ণ জিতে ইতিহাস গড়া হল না রুবেল দিয়ার। তারপরও শিষ্যদের পারফরম্যান্সে খুশী কোচ ফ্রেডরিখ, ‘আমি ওদের পারফরম্যান্সে খুশি। ওরা সবাই ভালো খেলেছে। এখানে আমরা হয়তো সোনা জিততে পারিনি। রুপা জিতেছি। এটা আসলে ফাইনালের মঞ্চ। এখানে পারফর্ম করতে আরো সময় লাগবে ওদের। তবে শেষ সেট ওরা বেশ ভালো তির ছুড়েছে।’ দিয়ার কথা, ‘ পুরো টুর্নামেন্টেই আমরা ভালো খেলেছি। ফাইনালেও চেষ্টা করেছি ভালো খেলার। আজ (গতকাল) প্রথম দিকে হয়তো তির লক্ষ্যভেদ করতে পারিনি। তবে শেষ দিকে এসে ভালো খেলেছি। এখানকার বাতাসটা বুঝতে পারিনি প্রথম সেটে। আর দ্বিতীয় সেটে আমার তির আটকে গেছিল। ওরা আসলে একই ধারবাহিকতায় তীর ছোড়ে। আমাদের আত্মবিশ্বাসটা ওই রকম পর্যায়ে পৌঁছাতে হবে।’ রুবেল বলেন, ‘এই হার কে অনেক কিছু শেখার আছে আমাদের। এখানে কিছু ভুল বুঝতে পেরেছি। যা শুধরে পরবর্তীতে আরো ভালো খেলার চেষ্টা করব আমি। তারপরও আমার নিজের পারফরম্যান্স নিয়ে অনেক খুশি। এ পর্যন্ত যত আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে খেলেছি, এবারেরটাই আমার সেরা স্কোর।’