আইসিসি বাংলাদেশের নতুন কার্যালয় উদ্বোধন

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি গতকাল রাজধানীর গুলশানে ইন্টারন্যাশনাল চেম্বার অব কমার্স বাংলাদেশের (আইসিসিবি) নতুন কার্যালয় উদ্বোধন করেছেন। তিনি দেশের সার্বিক উন্নয়নে ব্যবসায়ী সম্প্রদায়ের ভূমিকার ভূয়সী প্রশংসা করেন। তিনি আশা প্রকাশ করেন, বাংলাদেশকে উন্নত অর্থনীতিতে পরিণত করতে ব্যবসায়ী সম্প্রদায় সরকারের সঙ্গে একযোগে কাজ করবে।

অনুষ্ঠানে টিপু মুনশি আইসিসিবি বিজনেস ডিরেক্টরি উদ্বোধন করেন। এতে বাংলাদেশ সম্পর্কে প্রাথমিক তথ্য, বাণিজ্য ও বিনিয়োগের তথ্য ও এফডিআই সম্পর্কে বিশদ বিবরণ আছে। প্রথম ডিরেক্টরি ২০০৮ সালে প্রকাশিত হয়। এক বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

আইসিসি বাংলাদেশের সভাপতি মাহবুবুর রহমান স্বাগত বক্তব্যে বলেন, আইসিসি বাংলাদেশ ডিসিসিআই প্রাঙ্গণে অবস্থিত একটি ছোট কার্যালয়ে ১৭ জন সদস্য নিয়ে যাত্রা শুরু করে।

বর্তমানে আইসিসি বাংলাদেশের আওতায় ১০টি চেম্বার ও ব্যবসায়িক সমিতি আছে। মাহবুবুর রহমান আইসিসিবির প্রতিষ্ঠাতা সহসভাপতি মরহুম লতিফুর রহমান, এ কে আজাদ, কুতুবউদ্দিন আহমেদ, আনোয়ার উল আলম চৌধুরী, তপন চৌধুরী, এ এস এম কাসেম ও মো. ফজলুল হকের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন, যারা নতুন কার্যালয় স্থাপনে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন।

সোমবার, ২২ নভেম্বর ২০২১ , ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ ১৬ রবিউস সানি ১৪৪৩

আইসিসি বাংলাদেশের নতুন কার্যালয় উদ্বোধন

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি গতকাল রাজধানীর গুলশানে ইন্টারন্যাশনাল চেম্বার অব কমার্স বাংলাদেশের (আইসিসিবি) নতুন কার্যালয় উদ্বোধন করেছেন। তিনি দেশের সার্বিক উন্নয়নে ব্যবসায়ী সম্প্রদায়ের ভূমিকার ভূয়সী প্রশংসা করেন। তিনি আশা প্রকাশ করেন, বাংলাদেশকে উন্নত অর্থনীতিতে পরিণত করতে ব্যবসায়ী সম্প্রদায় সরকারের সঙ্গে একযোগে কাজ করবে।

অনুষ্ঠানে টিপু মুনশি আইসিসিবি বিজনেস ডিরেক্টরি উদ্বোধন করেন। এতে বাংলাদেশ সম্পর্কে প্রাথমিক তথ্য, বাণিজ্য ও বিনিয়োগের তথ্য ও এফডিআই সম্পর্কে বিশদ বিবরণ আছে। প্রথম ডিরেক্টরি ২০০৮ সালে প্রকাশিত হয়। এক বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

আইসিসি বাংলাদেশের সভাপতি মাহবুবুর রহমান স্বাগত বক্তব্যে বলেন, আইসিসি বাংলাদেশ ডিসিসিআই প্রাঙ্গণে অবস্থিত একটি ছোট কার্যালয়ে ১৭ জন সদস্য নিয়ে যাত্রা শুরু করে।

বর্তমানে আইসিসি বাংলাদেশের আওতায় ১০টি চেম্বার ও ব্যবসায়িক সমিতি আছে। মাহবুবুর রহমান আইসিসিবির প্রতিষ্ঠাতা সহসভাপতি মরহুম লতিফুর রহমান, এ কে আজাদ, কুতুবউদ্দিন আহমেদ, আনোয়ার উল আলম চৌধুরী, তপন চৌধুরী, এ এস এম কাসেম ও মো. ফজলুল হকের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন, যারা নতুন কার্যালয় স্থাপনে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছেন।