একাধিক হত্যা মামলার আসামির মরদেহ উদ্ধার

যশোরের মণিরামপুরে মাছের ঘের থেকে একাধিক হত্যা মামলার আসামি প্রকাশ চন্দ্র মল্লিক (৪৪) নামের এক ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে মাথার পেছনে আঘাত করে হত্যা করা হয়েছে বলে পুলিশ প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে। নিহত প্রকাশ মল্লিক পার্শ্ববর্তী অভয়নগর উপজেলার ফুলের গাতি গ্রামের প্রহ্লাদ মল্লিকের ছেলে। গত রোববার সকালে মনিরামপুর উপজেলার কালিবাড়ি বকুল মোড় নামকস্থানে এক মাছের ঘের থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহটি দুপুরে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

মণিরামপুরের নেহালপুর ফাড়ি ইনচার্জ এসআই আতিকুজ্জামান জানান, মরদেহের পরিহিত প্যান্টের পকেট থেকে তিনটি মোবাইল ফোন, মানিব্যাগ এবং জাতীয় পরিচয়পত্র পাওয়া যায়। তাকে মাথার পেছনে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করা হয়েছে। এতে দেড় ইঞ্চি গভীর ক্ষতের চিহ্ন রয়েছে। নিহত প্রকাশ ২০০১ সালে উপজেলার কুচলিয়া গ্রামে ৪ হত্যা ও একই জায়গায় রফিকুল হত্যাকা- মামলার আসামি ছিল বলে পুলিশ প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছে।

মঙ্গলবার, ২৩ নভেম্বর ২০২১ , ৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ ১৭ রবিউস সানি ১৪৪৩

একাধিক হত্যা মামলার আসামির মরদেহ উদ্ধার

যশোরের মণিরামপুরে মাছের ঘের থেকে একাধিক হত্যা মামলার আসামি প্রকাশ চন্দ্র মল্লিক (৪৪) নামের এক ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে মাথার পেছনে আঘাত করে হত্যা করা হয়েছে বলে পুলিশ প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে। নিহত প্রকাশ মল্লিক পার্শ্ববর্তী অভয়নগর উপজেলার ফুলের গাতি গ্রামের প্রহ্লাদ মল্লিকের ছেলে। গত রোববার সকালে মনিরামপুর উপজেলার কালিবাড়ি বকুল মোড় নামকস্থানে এক মাছের ঘের থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহটি দুপুরে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

মণিরামপুরের নেহালপুর ফাড়ি ইনচার্জ এসআই আতিকুজ্জামান জানান, মরদেহের পরিহিত প্যান্টের পকেট থেকে তিনটি মোবাইল ফোন, মানিব্যাগ এবং জাতীয় পরিচয়পত্র পাওয়া যায়। তাকে মাথার পেছনে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করা হয়েছে। এতে দেড় ইঞ্চি গভীর ক্ষতের চিহ্ন রয়েছে। নিহত প্রকাশ ২০০১ সালে উপজেলার কুচলিয়া গ্রামে ৪ হত্যা ও একই জায়গায় রফিকুল হত্যাকা- মামলার আসামি ছিল বলে পুলিশ প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছে।