পূর্বধলা মডেল প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৩ বছর ধরে প্রধান শিক্ষক নেই

নেত্রকোনা জেলার পূর্বধলা উপজেলা সদরে’র প্রাণ কেন্দ্রের পূর্বধলা সদরের মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৩ বছর ধরে প্রধান শিক্ষক পদটি শূন্য রয়েছে ১ বছর আগে দপ্তরী মারা যাওয়ায় এ পদটিও শূন্য রয়েছে। প্রধান শিক্ষক না থাকায় শিক্ষার্থীদের প্রতিষ্ঠানে পাঠদানসহ প্রশাসনিক কাজ মারাত্মকভাবে ব্যাহত হচ্ছে।

সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, পূর্বধলা মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি ১৯৫৮ খ্রিঃ স্থাপিত হয়েছে। যার শিক্ষার্থী সংখ্যা প্রায় ৫শত জন, সহকারী শিক্ষক রয়েছেন ১০ জন। গত ২১ সেপ্টম্বর ২০১৯ইং তারিখে প্রধান শিক্ষক’র অবসর জনিত কারণে পদটি শূন্য হয় এবং ২৬ এপ্রিল ২০২০ইং তারিখে দপ্তরি আ. মোতালেব এর মৃত্যুজনিত কারণে পদটি শূন্য হয়। ইতোমধ্যে অত্র বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক পদে দায়িত্ব নিতে উপজেলার বিভিন্ন প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে প্রধান শিক্ষক গণ আবেদন করলেও অজানা কারণে পদটি শূন্য রয়েছে। স্থানীয় শিক্ষার্থীর অভিভাবক মো. ফজলুল হক বলেন, পূর্বধলা মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় উপজেলা সদরের একটি অন্যতম বিদ্যাপিঠ। তাই উক্ত প্রতিষ্ঠানে প্রধান শিক্ষক না থাকায় প্রশাসনিক কাজের ব্যাপক সমস্যা হচ্ছে । শূন্য পদে শিক্ষক নিয়োগ দিয়ে এ সঙ্কট দূর করা উচিত।

জেলা শিক্ষা অফিসার ওবায়দুল্লাহ বলেন, সিনিয়র ৮ জন আবেদন কারি শিক্ষকদের তালিকা করে অধিদপ্তরে পাঠানো হয়েছে আনেক আগেই কিন্তু এখনো কাওকে নিয়োগ দেয়নি তবে ২০২২ সনের জানুয়ারি মাসে এ সমস্যার সমাধান সম্ভব এর আগে নতুন করে আবেদন নেয়া বা বদলির কোন সুযোগ নেই। দপ্তরি নিয়োগের বিষয়টি মামলাজনিত কারণে আটকে আছে তাই আপাতত নিয়োগ দেয়া সম্ভব হচ্ছে না।

মঙ্গলবার, ২৩ নভেম্বর ২০২১ , ৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ ১৭ রবিউস সানি ১৪৪৩

পূর্বধলা মডেল প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৩ বছর ধরে প্রধান শিক্ষক নেই

নেত্রকোনা জেলার পূর্বধলা উপজেলা সদরে’র প্রাণ কেন্দ্রের পূর্বধলা সদরের মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৩ বছর ধরে প্রধান শিক্ষক পদটি শূন্য রয়েছে ১ বছর আগে দপ্তরী মারা যাওয়ায় এ পদটিও শূন্য রয়েছে। প্রধান শিক্ষক না থাকায় শিক্ষার্থীদের প্রতিষ্ঠানে পাঠদানসহ প্রশাসনিক কাজ মারাত্মকভাবে ব্যাহত হচ্ছে।

সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, পূর্বধলা মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি ১৯৫৮ খ্রিঃ স্থাপিত হয়েছে। যার শিক্ষার্থী সংখ্যা প্রায় ৫শত জন, সহকারী শিক্ষক রয়েছেন ১০ জন। গত ২১ সেপ্টম্বর ২০১৯ইং তারিখে প্রধান শিক্ষক’র অবসর জনিত কারণে পদটি শূন্য হয় এবং ২৬ এপ্রিল ২০২০ইং তারিখে দপ্তরি আ. মোতালেব এর মৃত্যুজনিত কারণে পদটি শূন্য হয়। ইতোমধ্যে অত্র বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক পদে দায়িত্ব নিতে উপজেলার বিভিন্ন প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে প্রধান শিক্ষক গণ আবেদন করলেও অজানা কারণে পদটি শূন্য রয়েছে। স্থানীয় শিক্ষার্থীর অভিভাবক মো. ফজলুল হক বলেন, পূর্বধলা মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় উপজেলা সদরের একটি অন্যতম বিদ্যাপিঠ। তাই উক্ত প্রতিষ্ঠানে প্রধান শিক্ষক না থাকায় প্রশাসনিক কাজের ব্যাপক সমস্যা হচ্ছে । শূন্য পদে শিক্ষক নিয়োগ দিয়ে এ সঙ্কট দূর করা উচিত।

জেলা শিক্ষা অফিসার ওবায়দুল্লাহ বলেন, সিনিয়র ৮ জন আবেদন কারি শিক্ষকদের তালিকা করে অধিদপ্তরে পাঠানো হয়েছে আনেক আগেই কিন্তু এখনো কাওকে নিয়োগ দেয়নি তবে ২০২২ সনের জানুয়ারি মাসে এ সমস্যার সমাধান সম্ভব এর আগে নতুন করে আবেদন নেয়া বা বদলির কোন সুযোগ নেই। দপ্তরি নিয়োগের বিষয়টি মামলাজনিত কারণে আটকে আছে তাই আপাতত নিয়োগ দেয়া সম্ভব হচ্ছে না।