করোনার ক্ষতি পোষাতে কাজের গতি বাড়ানোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

আগামী জুনে পদ্মা সেতু যান চলাচলের জন্য খুলছে

করোনা মহামারীতে দুই বছরে দেশের যে ক্ষতি হয়েছে তা পুষিয়ে নিতে সরকারি কাজের গতি অধিকতর বৃদ্ধির নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। করোনা সংক্রমণের কারণে দেশে দীর্ঘদিন ‘লকডাউন’ বা বিধিনিষেধ ছিল। মানুষ ও যান চলাচলের এই বিধিনিষেধে জরুরি পরিসেবা ছাড়া প্রায় সব ধরনের কাজই বন্ধ ছিল।

গতকাল মন্ত্রিসভার বৈঠকে মন্ত্রণালয় ও বিভাগগুলোর ২০২০-২১ অর্থবছরের কার্যাবলি সম্পর্কিত বার্ষিক প্রতিবেদন উত্থাপন করা হয়। সচিবালয়ে অনুষ্ঠিত এই বৈঠকে ভার্চুয়ালি যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী। বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম এক প্রেসব্রিফিংয়ে বিস্তারিত তুলে ধরেন।

এছাড়াও মন্ত্রিসভায় আগামী বছরের জুনে পদ্মা সেতু যান চলাচলের জন্য খুলে দেয়ার কথা জানানো হয়।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘যেহেতু করোনা সংক্রমণের দুই বছর হয়ে গেছে; সেজন্য আমাদের একটা প্রটোকলও ডেভেলপ হয়ে গেছে।’ সেজন্য সবাইকে আরেকটু গতি বাড়িয়ে কাজ করে উন্নয়নের গতি আগের মতো নিয়ে যাওয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

দেশে করোনা সংক্রমণ অনেকটাই কমে এসেছে- উল্লেখ করে সচিব বলেন, ‘শুধু উন্নয়ন কার্যক্রম না, সব ধরনের কাজকর্ম..... (গতি বাড়াতে হবে); যাতে আমাদের গ্রোথ রেটসহ সবকিছু কোভিডের আগের অবস্থায় ফিরে যায় এবং সেখান থেকে আবার প্রোগ্রেস করতে পারি।’

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের সময় দেয়া বিধিনিষেধ এখনও কিছু কিছু বলবৎ রয়েছে জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘বঙ্গভবনে এবার ১৬ ডিসেম্বরের প্রোগ্রাম হচ্ছে না। প্যারেড গ্রাউন্ডে প্রোগ্রাম হবে, কারণ সেখানে ফ্রি মিক্সিং হবে না। ফ্রি মিক্সিং টাইপের ম্যাসিং লেভেলের এগুলোকে ডিসকারেজ করা হচ্ছে।’

বিধিনিষেধ তুলে দেয়ার বিষয়ে তিনি আরও বলেন, ‘আমরা ইতোমধ্যে ৩২টি জেলার সঙ্গে মিটিং করেছি। তাদের বলেছি, কমফোর্ট ও রিল্যাক্স হওয়ার কোন স্কোপ নেই। সবাইকে এটেনটিভ থাকতে হবে। সোশ্যাল ডিসিটেন্সিংয়ের বিষয়ে কেয়ারফুল থাকতে হবে।’

জুনে পদ্মা সেতু যান চলাচলের জন্য খুলছে

বার্ষিক প্রতিবেদনের কথা উল্লেখ করে খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, ‘এখন পর্যন্ত পদ্মা সেতুর কাজের অগ্রগতি ৭৮ শতাংশ। আগামী বছর (২০২২ সাল) ৩০ জুন বা এর কাছাকাছি সময়ে পদ্মা সেতু যান চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হবে।’

প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০২১ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত দেশের জিডিপি দাঁড়িয়েছে ৫ দশমিক ৪৭ শতাংশ। এ সময়ে মাথাপিছু আয় দুই হাজার ২২৭ থেকে বেড়ে দাঁড়িয়েছে দুই হাজার ৫৫৪ মার্কিন ডলারে, রাজস্ব আয় বেড়েছে ২৩ দশমিক ৫৭ শতাংশ।

চলতি বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত সরকারিভাবে ১৪ লাখ ৩৮ হাজার মেট্রিক টন খাদ্য মজুত করা হয়েছে জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘গত বছর একই সময় ছিল ছয় লাখ মেট্রিক টনের কিছু বেশি; যেটা ছিল উদ্বেগজনক। এবারের খাদ্যের মজুত অত্যন্ত স্বস্তিদায়ক।’

সরকার স্বাধীনতার ৫০ বছর উদযাপনের জন্য বছরব্যাপী অনুষ্ঠান করার উদ্যোগ নিয়েছিল। করোনা পরিস্থিতিতে অনেক আয়োজনই সংক্ষিপ্ত করা হয়েছে। সেই আয়োজনের মেয়াদ বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

এ বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান, স্বাধীনতার ৫০ বছর উদযাপনের অনুষ্ঠান আগামী বছরের (২০২২ সাল) মার্চ পর্যন্ত বাড়বে। তবে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে ঘোষিত মুজিববর্ষের মেয়াদ বৃদ্ধির বিষয়ে কোনও আলোচনা হয়নি।

এছাড়াও একাদশ জাতীয় সংসদের পঞ্চদশ অধিবেশনে রাষ্ট্রপতি কর্তৃক ভাষণের খসড়া অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। এর আগে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী বিষয়ে ভাষণ দেন রাষ্ট্রপতি। আগামী বছর প্রথম অধিবেশনে রাষ্ট্রপতির ভাষণে বিষয়বস্তু ‘স্বাধীনতার ৫০ বছর’ থাকবে বলে জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব।

image
আরও খবর
২৩ হাজার কোটি টাকা ঋণ দিচ্ছে জাপান
হাতি হত্যা বন্ধে অবিলম্বে পদক্ষেপ নিতে হাইকোর্টের নির্দেশ
বাসে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় বন্ধ হয়নি
নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান অস্ত্রসহ আটক
৫৩টি ফেরির মধ্যে ৫০টিরই ফিটনেস সনদ নেই
দুই বিচারপতির যশোরে বদলি ঠেকাতে মাঠে নেমেছেন আইনজীবীরা
সেই অজ্ঞাত বৃদ্ধের চিকিৎসার ব্যবস্থা করলো র‌্যাব
আমিনবাজারে ছয় ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যা, রায় ২ ডিসেম্বর
অদম্য মেধাবী মোবারক
ড্যান্স ক্লাবে চাকরির কথা বলে শতাধিক তরুণীকে দুবাই পাচার
স্বতন্ত্র প্রার্থীদের প্রচারণায় এমপি টুকু বাধা দিচ্ছেন কিনা, জানতে চায় হাইকোর্ট
বিএনপির সাবেক এমপি মোমিন তালুকদারের রায় কাল

মঙ্গলবার, ২৩ নভেম্বর ২০২১ , ৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ ১৭ রবিউস সানি ১৪৪৩

করোনার ক্ষতি পোষাতে কাজের গতি বাড়ানোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

আগামী জুনে পদ্মা সেতু যান চলাচলের জন্য খুলছে
image

করোনা মহামারীতে দুই বছরে দেশের যে ক্ষতি হয়েছে তা পুষিয়ে নিতে সরকারি কাজের গতি অধিকতর বৃদ্ধির নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। করোনা সংক্রমণের কারণে দেশে দীর্ঘদিন ‘লকডাউন’ বা বিধিনিষেধ ছিল। মানুষ ও যান চলাচলের এই বিধিনিষেধে জরুরি পরিসেবা ছাড়া প্রায় সব ধরনের কাজই বন্ধ ছিল।

গতকাল মন্ত্রিসভার বৈঠকে মন্ত্রণালয় ও বিভাগগুলোর ২০২০-২১ অর্থবছরের কার্যাবলি সম্পর্কিত বার্ষিক প্রতিবেদন উত্থাপন করা হয়। সচিবালয়ে অনুষ্ঠিত এই বৈঠকে ভার্চুয়ালি যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী। বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম এক প্রেসব্রিফিংয়ে বিস্তারিত তুলে ধরেন।

এছাড়াও মন্ত্রিসভায় আগামী বছরের জুনে পদ্মা সেতু যান চলাচলের জন্য খুলে দেয়ার কথা জানানো হয়।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘যেহেতু করোনা সংক্রমণের দুই বছর হয়ে গেছে; সেজন্য আমাদের একটা প্রটোকলও ডেভেলপ হয়ে গেছে।’ সেজন্য সবাইকে আরেকটু গতি বাড়িয়ে কাজ করে উন্নয়নের গতি আগের মতো নিয়ে যাওয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

দেশে করোনা সংক্রমণ অনেকটাই কমে এসেছে- উল্লেখ করে সচিব বলেন, ‘শুধু উন্নয়ন কার্যক্রম না, সব ধরনের কাজকর্ম..... (গতি বাড়াতে হবে); যাতে আমাদের গ্রোথ রেটসহ সবকিছু কোভিডের আগের অবস্থায় ফিরে যায় এবং সেখান থেকে আবার প্রোগ্রেস করতে পারি।’

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের সময় দেয়া বিধিনিষেধ এখনও কিছু কিছু বলবৎ রয়েছে জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘বঙ্গভবনে এবার ১৬ ডিসেম্বরের প্রোগ্রাম হচ্ছে না। প্যারেড গ্রাউন্ডে প্রোগ্রাম হবে, কারণ সেখানে ফ্রি মিক্সিং হবে না। ফ্রি মিক্সিং টাইপের ম্যাসিং লেভেলের এগুলোকে ডিসকারেজ করা হচ্ছে।’

বিধিনিষেধ তুলে দেয়ার বিষয়ে তিনি আরও বলেন, ‘আমরা ইতোমধ্যে ৩২টি জেলার সঙ্গে মিটিং করেছি। তাদের বলেছি, কমফোর্ট ও রিল্যাক্স হওয়ার কোন স্কোপ নেই। সবাইকে এটেনটিভ থাকতে হবে। সোশ্যাল ডিসিটেন্সিংয়ের বিষয়ে কেয়ারফুল থাকতে হবে।’

জুনে পদ্মা সেতু যান চলাচলের জন্য খুলছে

বার্ষিক প্রতিবেদনের কথা উল্লেখ করে খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, ‘এখন পর্যন্ত পদ্মা সেতুর কাজের অগ্রগতি ৭৮ শতাংশ। আগামী বছর (২০২২ সাল) ৩০ জুন বা এর কাছাকাছি সময়ে পদ্মা সেতু যান চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হবে।’

প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০২১ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত দেশের জিডিপি দাঁড়িয়েছে ৫ দশমিক ৪৭ শতাংশ। এ সময়ে মাথাপিছু আয় দুই হাজার ২২৭ থেকে বেড়ে দাঁড়িয়েছে দুই হাজার ৫৫৪ মার্কিন ডলারে, রাজস্ব আয় বেড়েছে ২৩ দশমিক ৫৭ শতাংশ।

চলতি বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত সরকারিভাবে ১৪ লাখ ৩৮ হাজার মেট্রিক টন খাদ্য মজুত করা হয়েছে জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘গত বছর একই সময় ছিল ছয় লাখ মেট্রিক টনের কিছু বেশি; যেটা ছিল উদ্বেগজনক। এবারের খাদ্যের মজুত অত্যন্ত স্বস্তিদায়ক।’

সরকার স্বাধীনতার ৫০ বছর উদযাপনের জন্য বছরব্যাপী অনুষ্ঠান করার উদ্যোগ নিয়েছিল। করোনা পরিস্থিতিতে অনেক আয়োজনই সংক্ষিপ্ত করা হয়েছে। সেই আয়োজনের মেয়াদ বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

এ বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান, স্বাধীনতার ৫০ বছর উদযাপনের অনুষ্ঠান আগামী বছরের (২০২২ সাল) মার্চ পর্যন্ত বাড়বে। তবে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে ঘোষিত মুজিববর্ষের মেয়াদ বৃদ্ধির বিষয়ে কোনও আলোচনা হয়নি।

এছাড়াও একাদশ জাতীয় সংসদের পঞ্চদশ অধিবেশনে রাষ্ট্রপতি কর্তৃক ভাষণের খসড়া অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। এর আগে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী বিষয়ে ভাষণ দেন রাষ্ট্রপতি। আগামী বছর প্রথম অধিবেশনে রাষ্ট্রপতির ভাষণে বিষয়বস্তু ‘স্বাধীনতার ৫০ বছর’ থাকবে বলে জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব।