ইসরায়েলে বার্ড ফ্লুর প্রার্দুভাব, ৫ হাজারের বেশি পাখির মৃত্যু

ইসরায়েলের উত্তরাঞ্চলে বার্ড ফ্লুর প্রাদুর্ভাব মারাত্মক আকার ধারণ করেছে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৫ হাজারের বেশি পরিযায়ী সারস মারা গেছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে স্থানীয় খামারিদের জোরপূর্বক মুরগি মেরে ফেলতে বাধ্য করা হচ্ছে। একইসঙ্গে বর্তমান পরিস্থিতিকে দেশটির ইতিহাসে ‘সবচেয়ে মারাত্মক বন্যপ্রাণী বিপর্যয়’ বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। তবে ‘পরিস্থিতি এখনও নিয়ন্ত্রণের বাইরে’ বলে জানিয়েছেন উরি নাভি নামে ইসরায়েলের পার্ক ও প্রকৃতি কর্তৃপক্ষের এক জ্যেষ্ঠ বিজ্ঞানী। তিনি বলেন, পানির মাঝখানে অধিকাংশ পাখি মারা যাওয়ার কারণে সেখান থেকে সেগুলো পরিষ্কার করা কঠিন হয়ে যাচ্ছে। পরিবেশ সংরক্ষণমন্ত্রী তামার জান্দবার্গ ‘দেশের ইতিহাসে বন্যপ্রাণীর সবচেয়ে মারাত্মক ক্ষতি’ বলে উল্লেখ করেছেন।

হুলা লেক পার্কের মুখপাত্র ইয়ারন মাইকেলি বলেন, যেখানে সারস পাখিগুলো সবচেয়ে বেশি, সেখান থেকে পার্কের কর্মীরা যত তাড়াতাড়ি সম্ভব মরদেহগুলো সরিয়ে নিচ্ছেন। তবে ভয়ের বিষয় হচ্ছে এগুলো থেকে অন্যান্য বন্যপ্রাণীও সংক্রমিত হতে পারে। কৃষি মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ডাফনা ইউরিস্তা বলেন, রোগের বিস্তার ঠেকাতে এলাকার ৫০ লাখ মুরগি জবাই করা হচ্ছে। আফ্রিকা যাওয়ার পথে প্রতি বছর অন্তত ৫ লাখ সারস ইসরায়েল অতিক্রম করে জানিয়ে মাইকেলি বলেন, যার কিছু সংখ্যক এখানে অবস্থান করে।

এবারের শীত মৌসুমে ইসরায়েলে ৩০ হাজার সারস অবস্থান করতে পারে বলে মনে করেন তিনি। তবে বর্তমানে পরিস্থিতি আগের চেয়ে উন্নতির পথে বলেও জানান হুলা লেক পার্কের মুখপাত্র।

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেটের কার্যালয় জানিয়েছে, কৃষি, পরিবেশ ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছেন। মানুষের মধ্যে সংক্রমণ সম্পর্কে তাৎক্ষণিকভাবে কোনো তথ্য পাওয়া যায়নিও বলেও জানানো হয়েছে।

বুধবার, ২৯ ডিসেম্বর ২০২১ , ১৯ পৌষ ১৪২৮ ২৪ জমাদিউল আউয়াল

ইসরায়েলে বার্ড ফ্লুর প্রার্দুভাব, ৫ হাজারের বেশি পাখির মৃত্যু

ইসরায়েলের উত্তরাঞ্চলে বার্ড ফ্লুর প্রাদুর্ভাব মারাত্মক আকার ধারণ করেছে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৫ হাজারের বেশি পরিযায়ী সারস মারা গেছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে স্থানীয় খামারিদের জোরপূর্বক মুরগি মেরে ফেলতে বাধ্য করা হচ্ছে। একইসঙ্গে বর্তমান পরিস্থিতিকে দেশটির ইতিহাসে ‘সবচেয়ে মারাত্মক বন্যপ্রাণী বিপর্যয়’ বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। তবে ‘পরিস্থিতি এখনও নিয়ন্ত্রণের বাইরে’ বলে জানিয়েছেন উরি নাভি নামে ইসরায়েলের পার্ক ও প্রকৃতি কর্তৃপক্ষের এক জ্যেষ্ঠ বিজ্ঞানী। তিনি বলেন, পানির মাঝখানে অধিকাংশ পাখি মারা যাওয়ার কারণে সেখান থেকে সেগুলো পরিষ্কার করা কঠিন হয়ে যাচ্ছে। পরিবেশ সংরক্ষণমন্ত্রী তামার জান্দবার্গ ‘দেশের ইতিহাসে বন্যপ্রাণীর সবচেয়ে মারাত্মক ক্ষতি’ বলে উল্লেখ করেছেন।

হুলা লেক পার্কের মুখপাত্র ইয়ারন মাইকেলি বলেন, যেখানে সারস পাখিগুলো সবচেয়ে বেশি, সেখান থেকে পার্কের কর্মীরা যত তাড়াতাড়ি সম্ভব মরদেহগুলো সরিয়ে নিচ্ছেন। তবে ভয়ের বিষয় হচ্ছে এগুলো থেকে অন্যান্য বন্যপ্রাণীও সংক্রমিত হতে পারে। কৃষি মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ডাফনা ইউরিস্তা বলেন, রোগের বিস্তার ঠেকাতে এলাকার ৫০ লাখ মুরগি জবাই করা হচ্ছে। আফ্রিকা যাওয়ার পথে প্রতি বছর অন্তত ৫ লাখ সারস ইসরায়েল অতিক্রম করে জানিয়ে মাইকেলি বলেন, যার কিছু সংখ্যক এখানে অবস্থান করে।

এবারের শীত মৌসুমে ইসরায়েলে ৩০ হাজার সারস অবস্থান করতে পারে বলে মনে করেন তিনি। তবে বর্তমানে পরিস্থিতি আগের চেয়ে উন্নতির পথে বলেও জানান হুলা লেক পার্কের মুখপাত্র।

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেটের কার্যালয় জানিয়েছে, কৃষি, পরিবেশ ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছেন। মানুষের মধ্যে সংক্রমণ সম্পর্কে তাৎক্ষণিকভাবে কোনো তথ্য পাওয়া যায়নিও বলেও জানানো হয়েছে।