বছরের শেষ কার্যদিবসে শেয়ারবাজারে উত্থান

চলতি বছর ও সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস শেয়ারবাজারের সব সূচকই বেড়েছে। গতকাল সূচকের সঙ্গে লেনদেনে অংশ নেয়া বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর এবং টাকার পরিমাণে লেনদেনও বেড়েছে।

জানা গেছে, প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ২৫.৫০ পয়েন্ট বা ০.৩৭ শতাংশ বেড়ে ছয় হাজার ৭৫৬.৬৫৪ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। ডিএসইর অন্য সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ৩.৮৪ পয়েন্ট বা ০.২৬ শতাংশ এবং ডিএসই-৩০ সূচক ১০.২৬ পয়েন্ট বা ০.৪০ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে এক হাজার ৪৩১.১২ পয়েন্ট এবং দুই হাজার ৫৩২.৫৮ পয়েন্টে। ডিএসইতে ৯২১ কোটি ৮১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যা আগের কার্যদিবস থেকে ১৮৬ কোটি ৪৪ লাখ টাকা বেশি। আগের কার্যদিবস লেনদেন হয়েছিল ৭৩৫ কোটি ৩৭ লাখ টাকার।

ডিএসইতে ৩৭৭টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১৭৮টির বা ৪২.২১ শতাংশ শেয়ার ও ইউনিটের দর বেড়েছে। দর কমেছে ১৪৯টির বা ৩৯.৫২ শতাংশের এবং ৫০টি বা ১৩.২৭ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর অপরিবর্তিত রয়েছে।

অন্য শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই এদিন ৪৪.৫৬ পয়েন্ট বা ০.২২ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৯ হাজার ৬৬৬.০৭ পয়েন্টে। এদিন সিএসইতে হাত বদল হওয়া ৩০৬টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ১২৯টির, কমেছে ১৩৬টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪১টির দর। সিএসইতে ৫৮ কোটি ৬১ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

আগ্রহের শীর্ষে আরএসআরএম স্টিল। লেনদেন হওয়া কোম্পানিগুলোর মধ্যে ১৭৮টির বা ৪২.২১ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর বেড়েছে।

শুক্রবার, ৩১ ডিসেম্বর ২০২১ , ১৬ পৌষ ১৪২৮ ২৬ জমাদিউল আউয়াল

বছরের শেষ কার্যদিবসে শেয়ারবাজারে উত্থান

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

চলতি বছর ও সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস শেয়ারবাজারের সব সূচকই বেড়েছে। গতকাল সূচকের সঙ্গে লেনদেনে অংশ নেয়া বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর এবং টাকার পরিমাণে লেনদেনও বেড়েছে।

জানা গেছে, প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ২৫.৫০ পয়েন্ট বা ০.৩৭ শতাংশ বেড়ে ছয় হাজার ৭৫৬.৬৫৪ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। ডিএসইর অন্য সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ৩.৮৪ পয়েন্ট বা ০.২৬ শতাংশ এবং ডিএসই-৩০ সূচক ১০.২৬ পয়েন্ট বা ০.৪০ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে এক হাজার ৪৩১.১২ পয়েন্ট এবং দুই হাজার ৫৩২.৫৮ পয়েন্টে। ডিএসইতে ৯২১ কোটি ৮১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যা আগের কার্যদিবস থেকে ১৮৬ কোটি ৪৪ লাখ টাকা বেশি। আগের কার্যদিবস লেনদেন হয়েছিল ৭৩৫ কোটি ৩৭ লাখ টাকার।

ডিএসইতে ৩৭৭টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১৭৮টির বা ৪২.২১ শতাংশ শেয়ার ও ইউনিটের দর বেড়েছে। দর কমেছে ১৪৯টির বা ৩৯.৫২ শতাংশের এবং ৫০টি বা ১৩.২৭ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর অপরিবর্তিত রয়েছে।

অন্য শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই এদিন ৪৪.৫৬ পয়েন্ট বা ০.২২ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৯ হাজার ৬৬৬.০৭ পয়েন্টে। এদিন সিএসইতে হাত বদল হওয়া ৩০৬টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ১২৯টির, কমেছে ১৩৬টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪১টির দর। সিএসইতে ৫৮ কোটি ৬১ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

আগ্রহের শীর্ষে আরএসআরএম স্টিল। লেনদেন হওয়া কোম্পানিগুলোর মধ্যে ১৭৮টির বা ৪২.২১ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর বেড়েছে।