জব্ধ করা বাসটি চালাচ্ছিলেন পুলিশ, প্রাণ গেল ২ জনের

এবার পুলিশ সদস্যের চালনায় বাস চাপায় দুইজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও দুইজন। গতকাল বিকেল ৩টার দিকে গুলিস্তান-কাঁচপুর-মদনপুর রুটে চলাচলকারী শ্রাবণ পরিবহনের একটি বাস গুলিস্তান জিপিও মোড়ের সড়ক বিভাজকের ওপরে উঠে এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- আমেরিকা প্রবাসী শুকুর মাহমুদ (৫৮) ও গার্মেন্টস ব্যবসায়ী তুষার (৩৫)। এ ঘটনায় আনোয়ার হোসেন (৩৩) ও আবদুর রশীদ (৬৫) নামে আরও দুইজন আহত হয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, বাসে কোন যাত্রী ছিল না। বাসটি জব্দ করে ডাম্পিংয়ে নিয়ে যাচ্ছিল পুলিশ। বাসটি চালাচ্ছিলেনও এক পুলিশ সদস্য। তখনই দুর্ঘটনাটি ঘটে। পুলিশও বলছে, বাসটি ডাম্পিংয়ে নেয়ার সময় এ ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনার সময় বাসটির চালকের আসনে ছিলেন এক পুলিশ সদস্য। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বাসটি বেশ জোরে আসছিল। বাসটি প্রথমে কয়েকটি রিকশাকে ধাক্কা দেয়। এরপর দাঁড়িয়ে থাকা মোটরসাইকেল এবং পথচারীদের ধাক্কা দিয়ে উঠে সড়কের মাঝের ডিভাইডারে। তবে বাসে কোন যাত্রী ছিল না।

এ ঘটনায় আহত হন ভাড়ায়চালিত মোটরবাইক চালক আবুল কালাম আজাদ। তিনি বলেন, যাত্রীর অপেক্ষায় বাইক নিয়ে দাঁড়িয়েছিলাম। এ সময় শ্রাবণ পরিবহনের একটি বাস কয়েকটা রিক্সাকে ধাক্কা দেয়। এরপর আমাদের বাইক ও পথচারীদের ওপর তুলে দেয়। পুলিশের মতিঝিল বিভাগের ডিসি আ. আহাদ জানান, দুপুরের পরপরই শ্রাবণ পরিবহনের বাসটি হানিফ ফ্লাইওভারের উপর একটি দুর্ঘটনা ঘটায়। এ সময় একজন পুলিশ সদস্য আহত হন। তাকে উদ্ধার করে মিটফোর্ড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। দুর্ঘটনার পরপরই বাসের চালক ও হেলপার পালিয়ে যায়। তখন আহাদ পুলিশ বক্সের এএসআই এমাদুল বাসটি চালিয়ে জিপিও মোড় হয়ে ডাম্পিংয়ে নিচ্ছিল। এ সময় ব্রেক ফেল হয়ে বাসটি জিপিও এলাকার ডিভাইডারের উপর উঠে যায় এবং দুইজন নিহত হয়। এ ঘটনায় এএসআই এমাদুলকে আটক করা হয়েছে। আর প্রথম দুর্ঘটনার ঘটনায় বাসটির চালক-হেলপারকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ক্যাম্পের সহকারী ইনচার্জ (এএসআই) আবদুল খান জানান, দুর্ঘটনার পরপর চারজনকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। তখন চিকিৎসক একজনকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে তার নাম শুকুর মাহমুদ (৫৮) বলে জানা যায়। তিনি আমেরিকা প্রবাসী। থাকেন নারায়ণগঞ্জের ভুঁইঘর এলাকায়। আর চিকিৎসাধীন অবস্থায় সন্ধ্যায় মারা যান তুষার। তার বাড়ি কুমিল্লার দাউদকান্দি। তিনি পল্টনে একটি গার্মেন্টস ব্যবসার সঙ্গে জড়িত।

আহত তুষারকে উদ্ধার ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে যান আবদুস সাত্তার নামের এক পথচারী। সাত্তার জানান, গাড়িটি একজন পুলিশ সদস্য চালাচ্ছিলেন। গত মাসে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ময়লার গাড়ি চাপায় নটর ডেম কলেজের এক ছাত্রসহ দুইজন নিহত হয়েছেন। পরে পৃথক ঘটনা দুটি জানা যায়, গাড়ি দুটি চালাচ্ছিলেন পরিচ্ছন্নতাকর্মী। এবার পুলিশের চালনায় রাস্তায় প্রাণ ঝরলো দুই পথচারীর।

শুক্রবার, ৩১ ডিসেম্বর ২০২১ , ১৬ পৌষ ১৪২৮ ২৬ জমাদিউল আউয়াল

জব্ধ করা বাসটি চালাচ্ছিলেন পুলিশ, প্রাণ গেল ২ জনের

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

image

গুলিস্তানে ডিভাইডার ভেঙে পথচারীর ওপর চালিয়ে দেয় বাস -সংবাদ

এবার পুলিশ সদস্যের চালনায় বাস চাপায় দুইজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও দুইজন। গতকাল বিকেল ৩টার দিকে গুলিস্তান-কাঁচপুর-মদনপুর রুটে চলাচলকারী শ্রাবণ পরিবহনের একটি বাস গুলিস্তান জিপিও মোড়ের সড়ক বিভাজকের ওপরে উঠে এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- আমেরিকা প্রবাসী শুকুর মাহমুদ (৫৮) ও গার্মেন্টস ব্যবসায়ী তুষার (৩৫)। এ ঘটনায় আনোয়ার হোসেন (৩৩) ও আবদুর রশীদ (৬৫) নামে আরও দুইজন আহত হয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, বাসে কোন যাত্রী ছিল না। বাসটি জব্দ করে ডাম্পিংয়ে নিয়ে যাচ্ছিল পুলিশ। বাসটি চালাচ্ছিলেনও এক পুলিশ সদস্য। তখনই দুর্ঘটনাটি ঘটে। পুলিশও বলছে, বাসটি ডাম্পিংয়ে নেয়ার সময় এ ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনার সময় বাসটির চালকের আসনে ছিলেন এক পুলিশ সদস্য। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বাসটি বেশ জোরে আসছিল। বাসটি প্রথমে কয়েকটি রিকশাকে ধাক্কা দেয়। এরপর দাঁড়িয়ে থাকা মোটরসাইকেল এবং পথচারীদের ধাক্কা দিয়ে উঠে সড়কের মাঝের ডিভাইডারে। তবে বাসে কোন যাত্রী ছিল না।

এ ঘটনায় আহত হন ভাড়ায়চালিত মোটরবাইক চালক আবুল কালাম আজাদ। তিনি বলেন, যাত্রীর অপেক্ষায় বাইক নিয়ে দাঁড়িয়েছিলাম। এ সময় শ্রাবণ পরিবহনের একটি বাস কয়েকটা রিক্সাকে ধাক্কা দেয়। এরপর আমাদের বাইক ও পথচারীদের ওপর তুলে দেয়। পুলিশের মতিঝিল বিভাগের ডিসি আ. আহাদ জানান, দুপুরের পরপরই শ্রাবণ পরিবহনের বাসটি হানিফ ফ্লাইওভারের উপর একটি দুর্ঘটনা ঘটায়। এ সময় একজন পুলিশ সদস্য আহত হন। তাকে উদ্ধার করে মিটফোর্ড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। দুর্ঘটনার পরপরই বাসের চালক ও হেলপার পালিয়ে যায়। তখন আহাদ পুলিশ বক্সের এএসআই এমাদুল বাসটি চালিয়ে জিপিও মোড় হয়ে ডাম্পিংয়ে নিচ্ছিল। এ সময় ব্রেক ফেল হয়ে বাসটি জিপিও এলাকার ডিভাইডারের উপর উঠে যায় এবং দুইজন নিহত হয়। এ ঘটনায় এএসআই এমাদুলকে আটক করা হয়েছে। আর প্রথম দুর্ঘটনার ঘটনায় বাসটির চালক-হেলপারকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ক্যাম্পের সহকারী ইনচার্জ (এএসআই) আবদুল খান জানান, দুর্ঘটনার পরপর চারজনকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। তখন চিকিৎসক একজনকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে তার নাম শুকুর মাহমুদ (৫৮) বলে জানা যায়। তিনি আমেরিকা প্রবাসী। থাকেন নারায়ণগঞ্জের ভুঁইঘর এলাকায়। আর চিকিৎসাধীন অবস্থায় সন্ধ্যায় মারা যান তুষার। তার বাড়ি কুমিল্লার দাউদকান্দি। তিনি পল্টনে একটি গার্মেন্টস ব্যবসার সঙ্গে জড়িত।

আহত তুষারকে উদ্ধার ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে যান আবদুস সাত্তার নামের এক পথচারী। সাত্তার জানান, গাড়িটি একজন পুলিশ সদস্য চালাচ্ছিলেন। গত মাসে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ময়লার গাড়ি চাপায় নটর ডেম কলেজের এক ছাত্রসহ দুইজন নিহত হয়েছেন। পরে পৃথক ঘটনা দুটি জানা যায়, গাড়ি দুটি চালাচ্ছিলেন পরিচ্ছন্নতাকর্মী। এবার পুলিশের চালনায় রাস্তায় প্রাণ ঝরলো দুই পথচারীর।