করোনায় মৃত্যুশূন্য ৭ বিভাগে, শনাক্ত কমেছে

করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা বাড়লেও ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার সংখ্যা আগের দিনের চেয়ে কমেছে। দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে, মারা যাওয়া ৪ জনের মধ্যে ২ জন পুরুষ ও ২ জন নারী এবং তারা সবাই ঢাকা বিভাগের বাসিন্দা। এখন পর্যন্ত দেশে ২৮ হাজার ৭৬ জনের মৃত্যু হয়েছে।

একই সময়ে রোগী শনাক্ত হয়েছেন ৩৭০ জন। এ হিসাবে শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৫ লাখ ৮৫ হাজার ৯০৯ জনে। গত একদিনে যারা আক্রান্ত হয়েছেন, তাদের মধ্যে ৩৩৩ জনই ঢাকা বিভাগের, যা মোট আক্রান্তের প্রায় ৯০ শতাংশ।

গতকাল সন্ধ্যায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে। শুক্রবার করোনায় ২ জনের মৃত্যু হয়েছিল, শনাক্ত হয় ৫১২ জনের।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, এক দিনে করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ২০৩ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ১৫ লাখ ৪৯ হাজার ৩০৪ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ১৫ হাজার ৭৪ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরীক্ষা করা হয় ১৫ হাজার ২১৪টি নমুনা। পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ২ দশমিক ৪৩ শতাংশ। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৭৮ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯৭ দশমিক ৬৯ শতাংশ। আর শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুহার ১ দশমিক ৭৭ শতাংশ।

গত একদিনে মৃত ৪ জনের মধ্যে তিনজনের বয়স ছিল ষাটের বেশি। একজনের বয়স ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে। তাদের তিনজন সরকারি হাসপাতালে এবং একজন চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। গত বছরের ৮ মার্চ দেশে প্রথম ৩ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ওই বছরের ১৮ মার্চ দেশে এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়। চলতি বছরের ৫ ও ১০ আগস্ট দুদিন সর্বোচ্চ ২৬৪ জনের মৃত্যু হয়।

রবিবার, ০২ জানুয়ারী ২০২২ , ১৮ পৌষ ১৪২৮ ২৮ জমাদিউল আউয়াল

করোনায় মৃত্যুশূন্য ৭ বিভাগে, শনাক্ত কমেছে

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা বাড়লেও ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার সংখ্যা আগের দিনের চেয়ে কমেছে। দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে, মারা যাওয়া ৪ জনের মধ্যে ২ জন পুরুষ ও ২ জন নারী এবং তারা সবাই ঢাকা বিভাগের বাসিন্দা। এখন পর্যন্ত দেশে ২৮ হাজার ৭৬ জনের মৃত্যু হয়েছে।

একই সময়ে রোগী শনাক্ত হয়েছেন ৩৭০ জন। এ হিসাবে শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৫ লাখ ৮৫ হাজার ৯০৯ জনে। গত একদিনে যারা আক্রান্ত হয়েছেন, তাদের মধ্যে ৩৩৩ জনই ঢাকা বিভাগের, যা মোট আক্রান্তের প্রায় ৯০ শতাংশ।

গতকাল সন্ধ্যায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে। শুক্রবার করোনায় ২ জনের মৃত্যু হয়েছিল, শনাক্ত হয় ৫১২ জনের।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, এক দিনে করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ২০৩ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন ১৫ লাখ ৪৯ হাজার ৩০৪ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ১৫ হাজার ৭৪ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। পরীক্ষা করা হয় ১৫ হাজার ২১৪টি নমুনা। পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার ২ দশমিক ৪৩ শতাংশ। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৭৮ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯৭ দশমিক ৬৯ শতাংশ। আর শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুহার ১ দশমিক ৭৭ শতাংশ।

গত একদিনে মৃত ৪ জনের মধ্যে তিনজনের বয়স ছিল ষাটের বেশি। একজনের বয়স ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে। তাদের তিনজন সরকারি হাসপাতালে এবং একজন চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। গত বছরের ৮ মার্চ দেশে প্রথম ৩ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ওই বছরের ১৮ মার্চ দেশে এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়। চলতি বছরের ৫ ও ১০ আগস্ট দুদিন সর্বোচ্চ ২৬৪ জনের মৃত্যু হয়।