কিশোরগঞ্জে শীতবস্ত্রের বাজারে ক্রেতার ভিড়

কিশোরগঞ্জে বেশ ক’দিন ধরে প্রচণ্ড শীত পড়েছে। দিনের একটি বড় সময়জুড়ে প্রকৃতি থাকে কুয়াশার চাদরে ঢাকা। তাপমাত্রা ১৫ থেকে ২০ ডিগ্রী সেলসিয়াসের মধ্যে ওঠানামা করছে। রাতের বেলায় ঠা-ার মাত্রা বেড়ে গিয়ে মানুষকে করে ফেলছে ঘরবন্দী। রাস্তাঘাটে যানবাহন এবং জনচলাচল সীমিত হয়ে পড়ছে। আর এই শীতে মোটা কাপড়ে গা ঢেকে একটু উষ্ণতার ওম পেতে মানুষ ছুটছে শীত বস্ত্রের হাটে।

শহরে স্বচ্ছল মানুষদের রয়েছে বিভিন্ন শপিংমল আর বাহারি দোকান। আর সীমিত আয়ের মানুষেরা যাচ্ছেন খোলা বাজারে গার্মেন্টসের রিজেক্টেড আর সেকেন্ড হ্যান্ড গরম কাড়পড়ের দোকানে। শহরের বিভিন্ন এলাকায় ফুটপাতে আর ভ্যানের ওপর বসে গরম কাপড়ের মার্কেট। শহরের গৌরাঙ্গবাজার সেতু সংলগ্ন নদীর তীরের চত্বরে কয়েক বছর ধরে বসছে বেশকিছু ভাসমান দোকান। উন্মুক্ত আকাশের নীচে যেন পুরোদস্তুর একটা হকার্স মার্কেট।

এখানে পাওয়া যাচ্ছে জেকেট, ব্লেজার, কোট, সুয়েটার, ওলের টুপি, মাফলার আর প্যান্ট, টাইস থেকে শুরু করে নানারকম শীতবস্ত্র। বয়স নির্বিশেষে নারী-পুরুষ সবাই সেখানে যাচ্ছেন কেনাকাটার জন্য। এ মার্কেট বেশি জমজমাট হয়ে ওঠে শুক্র আর শনিবার সাপ্তাহিক ছুটির দিনে। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত এখানে ক্রেতাদের প্রচ- ভিড় পরিলক্ষিত হয়।

শপিংমল বা বাহারি দোকানের তুলনায় এখানে দাম বেশ কম। ফলে এই মার্কেটের প্রতি মানুষের আগ্রহ দিন দিন বাড়ছে। আর এর সুবাদে স্বল্প পুঁজির ছোট ব্যবসায়ীরাও তাদের ছোট্ট দোকানের বদৌলতে কোনমতে সংসারটা চালাতে পারছেন।

রবিবার, ০৯ জানুয়ারী ২০২২ , ২৫ পৌষ ১৪২৮ ৫ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

কিশোরগঞ্জে শীতবস্ত্রের বাজারে ক্রেতার ভিড়

image

কিশোরগঞ্জ : শহরের গৌরাঙ্গবাজার সেতু সংলগ্ন নদীর তীরে উন্মুক্ত চত্বরে ক্রেতাদের ভিড় -সংবাদ

কিশোরগঞ্জে বেশ ক’দিন ধরে প্রচণ্ড শীত পড়েছে। দিনের একটি বড় সময়জুড়ে প্রকৃতি থাকে কুয়াশার চাদরে ঢাকা। তাপমাত্রা ১৫ থেকে ২০ ডিগ্রী সেলসিয়াসের মধ্যে ওঠানামা করছে। রাতের বেলায় ঠা-ার মাত্রা বেড়ে গিয়ে মানুষকে করে ফেলছে ঘরবন্দী। রাস্তাঘাটে যানবাহন এবং জনচলাচল সীমিত হয়ে পড়ছে। আর এই শীতে মোটা কাপড়ে গা ঢেকে একটু উষ্ণতার ওম পেতে মানুষ ছুটছে শীত বস্ত্রের হাটে।

শহরে স্বচ্ছল মানুষদের রয়েছে বিভিন্ন শপিংমল আর বাহারি দোকান। আর সীমিত আয়ের মানুষেরা যাচ্ছেন খোলা বাজারে গার্মেন্টসের রিজেক্টেড আর সেকেন্ড হ্যান্ড গরম কাড়পড়ের দোকানে। শহরের বিভিন্ন এলাকায় ফুটপাতে আর ভ্যানের ওপর বসে গরম কাপড়ের মার্কেট। শহরের গৌরাঙ্গবাজার সেতু সংলগ্ন নদীর তীরের চত্বরে কয়েক বছর ধরে বসছে বেশকিছু ভাসমান দোকান। উন্মুক্ত আকাশের নীচে যেন পুরোদস্তুর একটা হকার্স মার্কেট।

এখানে পাওয়া যাচ্ছে জেকেট, ব্লেজার, কোট, সুয়েটার, ওলের টুপি, মাফলার আর প্যান্ট, টাইস থেকে শুরু করে নানারকম শীতবস্ত্র। বয়স নির্বিশেষে নারী-পুরুষ সবাই সেখানে যাচ্ছেন কেনাকাটার জন্য। এ মার্কেট বেশি জমজমাট হয়ে ওঠে শুক্র আর শনিবার সাপ্তাহিক ছুটির দিনে। সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত এখানে ক্রেতাদের প্রচ- ভিড় পরিলক্ষিত হয়।

শপিংমল বা বাহারি দোকানের তুলনায় এখানে দাম বেশ কম। ফলে এই মার্কেটের প্রতি মানুষের আগ্রহ দিন দিন বাড়ছে। আর এর সুবাদে স্বল্প পুঁজির ছোট ব্যবসায়ীরাও তাদের ছোট্ট দোকানের বদৌলতে কোনমতে সংসারটা চালাতে পারছেন।