এ বছরও হচ্ছে না বীমা মেলা

এ বছরও হচ্ছে না বীমা মেলা। আগামী ১৪ ও ১৫ জানুয়ারি বরিশালে এই মেলা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। তবে কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তে তা স্থগিত করা হয়েছে। গত রোববার বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের (আইডিআরএ) পরিচালক এবং বীমা মেলার আয়োজক কমিটির সদস্য সচিব শাহ আলম স্বাক্ষরিত একটি চিঠিতে বীমা কোম্পানিগুলোকে এ সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দেয়া হয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়েছে, ‘আগামী ১৪ থেকে ১৬ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধু উদ্যান (বেলস পার্ক) বরিশালে হতে যাওয়া বীমা মেলা ২০২২ অনিবার্য কারণবশত স্থগিত করা হয়েছে। এ বিষয়ে পরবর্তী সিদ্ধান্ত যথাসময়ে অবহিত করা হবে।’

এ বছরের বীমা মেলা উদ্বোধনে চিঠি দেয়া হয়েছিল অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালকে। এ ছাড়া মেলায় ইন্স্যুরেন্স অ্যাসোসিয়েশন, ইন্স্যুরেন্স ফোরাম, ইন্স্যুরেন্স অ্যাকাডেমি, ইন্স্যুরেন্স সার্ভেয়ার্স, বীমা প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠানগুলো এবং সব লাইফ ও নন-লাইফ বীমা কোম্পানির অংশ নেয়ার কথা ছিল।

বিভাগীয় শহরে আয়োজিত এই বীমা মেলায় বীমা প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের বিভিন্ন ধরনের বীমা পরিকল্পনা প্রদর্শনসহ বীমা গ্রাহকদের তাৎক্ষণিক প্রয়োজনীয় সেবা প্রদানের সুযোগ দেয়া হচ্ছিল।

এর আগে গত বছরও হয়নি বীমা মেলা। ২০২১ সালের ১ ও ২ মার্চ ওই মেলা হওয়ার কথা ছিল। মেলা অনুষ্ঠিত না হলেও ১ মার্চ বীমা দিবস পালন করে সরকার। দিবসটির সেøাগান ছিল ‘মুজিববর্ষের অঙ্গীকার, বীমা হোক সবার’।

এর আগে ২০১৬ সালে প্রথমবারের মতো বীমা মেলা আয়োজন করা হয় রাজধানী ঢাকায়। এরপর ২০১৭ সালে সিলেটে অনুষ্ঠিত হয় বিভাগীয় পর্যায়ের বীমা মেলা। ২০১৮ সালের বীমা মেলা অনুষ্ঠিত হয় চট্টগ্রামে এবং সর্বশেষ ২০১৯ সালে খুলনায় বীমা মেলা আয়োজন করা হয়। ২০২০ সালে ১ মার্চ বীমা দিবস পালন করা হয়। তবে ২০১৯ সালের করোনা মহামারির কারণে আর কোন বীমা মেলা অনুষ্ঠিত হয়নি।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৬০ সালের ১ মার্চ আলফা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানিতে যোগদান করেন। বীমা পেশায় তার যোগদানের দিনটিকে স্মরণে রাখতে সরকার ১ মার্চকে জাতীয় বীমা দিবস হিসেবে ঘোষণা করা হয়।

মঙ্গলবার, ১১ জানুয়ারী ২০২২ , ২৭ পৌষ ১৪২৮ ৭ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

এ বছরও হচ্ছে না বীমা মেলা

এ বছরও হচ্ছে না বীমা মেলা। আগামী ১৪ ও ১৫ জানুয়ারি বরিশালে এই মেলা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। তবে কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তে তা স্থগিত করা হয়েছে। গত রোববার বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের (আইডিআরএ) পরিচালক এবং বীমা মেলার আয়োজক কমিটির সদস্য সচিব শাহ আলম স্বাক্ষরিত একটি চিঠিতে বীমা কোম্পানিগুলোকে এ সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দেয়া হয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়েছে, ‘আগামী ১৪ থেকে ১৬ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধু উদ্যান (বেলস পার্ক) বরিশালে হতে যাওয়া বীমা মেলা ২০২২ অনিবার্য কারণবশত স্থগিত করা হয়েছে। এ বিষয়ে পরবর্তী সিদ্ধান্ত যথাসময়ে অবহিত করা হবে।’

এ বছরের বীমা মেলা উদ্বোধনে চিঠি দেয়া হয়েছিল অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালকে। এ ছাড়া মেলায় ইন্স্যুরেন্স অ্যাসোসিয়েশন, ইন্স্যুরেন্স ফোরাম, ইন্স্যুরেন্স অ্যাকাডেমি, ইন্স্যুরেন্স সার্ভেয়ার্স, বীমা প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠানগুলো এবং সব লাইফ ও নন-লাইফ বীমা কোম্পানির অংশ নেয়ার কথা ছিল।

বিভাগীয় শহরে আয়োজিত এই বীমা মেলায় বীমা প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের বিভিন্ন ধরনের বীমা পরিকল্পনা প্রদর্শনসহ বীমা গ্রাহকদের তাৎক্ষণিক প্রয়োজনীয় সেবা প্রদানের সুযোগ দেয়া হচ্ছিল।

এর আগে গত বছরও হয়নি বীমা মেলা। ২০২১ সালের ১ ও ২ মার্চ ওই মেলা হওয়ার কথা ছিল। মেলা অনুষ্ঠিত না হলেও ১ মার্চ বীমা দিবস পালন করে সরকার। দিবসটির সেøাগান ছিল ‘মুজিববর্ষের অঙ্গীকার, বীমা হোক সবার’।

এর আগে ২০১৬ সালে প্রথমবারের মতো বীমা মেলা আয়োজন করা হয় রাজধানী ঢাকায়। এরপর ২০১৭ সালে সিলেটে অনুষ্ঠিত হয় বিভাগীয় পর্যায়ের বীমা মেলা। ২০১৮ সালের বীমা মেলা অনুষ্ঠিত হয় চট্টগ্রামে এবং সর্বশেষ ২০১৯ সালে খুলনায় বীমা মেলা আয়োজন করা হয়। ২০২০ সালে ১ মার্চ বীমা দিবস পালন করা হয়। তবে ২০১৯ সালের করোনা মহামারির কারণে আর কোন বীমা মেলা অনুষ্ঠিত হয়নি।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৬০ সালের ১ মার্চ আলফা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানিতে যোগদান করেন। বীমা পেশায় তার যোগদানের দিনটিকে স্মরণে রাখতে সরকার ১ মার্চকে জাতীয় বীমা দিবস হিসেবে ঘোষণা করা হয়।