কুমার বিশ্বজিতের আত্মজীবনী

চিরসবুজ গায়ক কুমার বিশ্বজিতের আত্মজীবনী লিখেছেন আরেক সংগীতশিল্পী জয় শাহরিয়ার। নাম অপ্রকাশিত এ বইটি একুশের বইমেলায় প্রকাশিত হবে। জয় জানান, এতে কুমার বিশ্বজিতের ছোটবেলা, কৈশোর, চট্টগ্রাম শহর, বেড়ে ওঠা, সংগীত জীবনের চার দশক সবই উঠে আসবে। ২০২১ সালের ৬ জুন থেকে বইটির কাজ শুরু হয়। সম্প্রতি লেখা শেষে পা-ুলিপিটা কুমার বিশ্বজিতের হাতে তুলে দিয়েছেন তিনি।

বিশ্বজিতের আত্মজীবনী লেখা প্রসঙ্গে জয় বলেন, ‘বাংলাদেশে অনেক গুণী শিল্পীই আছেন কিন্তু সবাইকে আমি ধারণ করতে পারব না। আর বিশ্ব দা’র গান আমি গেয়ে বড় হয়েছি। তার সঙ্গে কাজও করেছি। তাই আমি যেমন বিশ্ব দাকে বুঝি, তেমনি তিনিও আমার ওপর আস্থা রাখতে পেরেছেন। সব মিলিয়ে বিশ্ব দাকে নিয়ে লেখা ও বোঝাটা আমার জন্য সহজ।’

জানা যায়, আগামী ১৫ জানুয়ারি থেকে বইটির প্রি-অর্ডার শুরু হবে। তখনই আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করা হবে এর নাম। এছাড়া আগামী ২৮ জানুয়ারি বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমিতে বইটির মোড়ক উন্মোচন হবে। এরপর ফেব্রুয়ারিতে বইমেলায় এটি পাওয়া যাবে। বইটি প্রকাশ করছে আজব প্রকাশ।

মঙ্গলবার, ১১ জানুয়ারী ২০২২ , ২৭ পৌষ ১৪২৮ ৭ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

কুমার বিশ্বজিতের আত্মজীবনী

image

চিরসবুজ গায়ক কুমার বিশ্বজিতের আত্মজীবনী লিখেছেন আরেক সংগীতশিল্পী জয় শাহরিয়ার। নাম অপ্রকাশিত এ বইটি একুশের বইমেলায় প্রকাশিত হবে। জয় জানান, এতে কুমার বিশ্বজিতের ছোটবেলা, কৈশোর, চট্টগ্রাম শহর, বেড়ে ওঠা, সংগীত জীবনের চার দশক সবই উঠে আসবে। ২০২১ সালের ৬ জুন থেকে বইটির কাজ শুরু হয়। সম্প্রতি লেখা শেষে পা-ুলিপিটা কুমার বিশ্বজিতের হাতে তুলে দিয়েছেন তিনি।

বিশ্বজিতের আত্মজীবনী লেখা প্রসঙ্গে জয় বলেন, ‘বাংলাদেশে অনেক গুণী শিল্পীই আছেন কিন্তু সবাইকে আমি ধারণ করতে পারব না। আর বিশ্ব দা’র গান আমি গেয়ে বড় হয়েছি। তার সঙ্গে কাজও করেছি। তাই আমি যেমন বিশ্ব দাকে বুঝি, তেমনি তিনিও আমার ওপর আস্থা রাখতে পেরেছেন। সব মিলিয়ে বিশ্ব দাকে নিয়ে লেখা ও বোঝাটা আমার জন্য সহজ।’

জানা যায়, আগামী ১৫ জানুয়ারি থেকে বইটির প্রি-অর্ডার শুরু হবে। তখনই আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করা হবে এর নাম। এছাড়া আগামী ২৮ জানুয়ারি বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমিতে বইটির মোড়ক উন্মোচন হবে। এরপর ফেব্রুয়ারিতে বইমেলায় এটি পাওয়া যাবে। বইটি প্রকাশ করছে আজব প্রকাশ।