একমাত্র সন্তান হত্যার দ্রুত বিচার চাইলেন মা-বাবা

ময়মনসিংহের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম কলেজের ২০১৬ সালের এইচএসসি পরীক্ষার্থী, মা-বাবার একমাত্র সন্তান শাকিলের হত্যাকা-ের সঙ্গে জড়িতদের দ্রুত বিচারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে তার মা-বাবা।

গতকাল ময়মনসিংহ প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে শাকিলের মা উম্মে কুলসুম জাহানারা বেগমজানান, আসামিদের অপ্রাপ্ত বয়সের অযুহাতে ছয় বছর ধরে মামলাটি ঝুলে আছে। মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৬ সালের ২৮ জানুয়ারি নগরীর শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম কলেজের এইসএসসি পরীক্ষার্থী মোহতাছিম বিল্লাহ শাকিলকে একটি ইভটিজিং এর ঘটনাকে কেন্দ্র করে কলেজের সামনেই বেশ কয়েকজন যুবক ধাঁড়ালো অস্ত্র দিয়ে উপুর্যপুরি আঘাত করে । পরে তাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক শাকিলকে মৃত ঘোষণা করে। পরে শাকিলের বাবা এমদাদুল হক বাদী হয়ে ২৯ জানুয়ারি কোতয়ালী থানায় মামলা করে। মামলার পর ৭২ ঘণ্টার মধ্যে আসামিদের তিনজনকে জেলার গফরগাঁও ধানার পাগলা থেকে আটক করে। আসামিরা আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। পরে সাত মাস পর পুলিশ ৮ জনকে আসামি করে চার্জশিট দাখিল করলে জেলা জজ আদালত আসামিদের জেল হাজতে পাঠায়।

পরবর্তীতে আসামির পরিবার আটককৃত আসামিরা অপ্রাপ্ত বয়স্ক দাবি করে উচ্চ আদালতে আপিল করে আসামিদের জামিন নিয়ে আসে। মামলার অন্য আসামিরাও আদালতে হাজির হয়ে জামিনে আসে। পরবর্তীতে আসামিদের বয়স ১৮ বছরের উপরে বলে জেলা জজ আদালতের আদেশ বহাল থাকে।

এ অবস্থায় ছয় বছর পার গয়ে গেলেও এ মামলার কোন সুরাহা হচ্ছে না। সংবাদ সম্মেলনে শাকিলের মা-বাবা তাদের এক মাত্র সন্তানের হত্যাকা-ে বিচার দেখে যেতে চান। এ ব্যাপারে তারা প্রধানমন্ত্রী ও বিচার বিভাগের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন। সংবাদ সম্মেলনে শাকিলের বাবা, মামলার বাদী এমদাদুল হকসহ অন্য স্বজনরা উপস্থিত ছিলেন ।

বৃহস্পতিবার, ১৩ জানুয়ারী ২০২২ , ২৯ পৌষ ১৪২৮ ৯ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

একমাত্র সন্তান হত্যার দ্রুত বিচার চাইলেন মা-বাবা

ময়মনসিংহের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম কলেজের ২০১৬ সালের এইচএসসি পরীক্ষার্থী, মা-বাবার একমাত্র সন্তান শাকিলের হত্যাকা-ের সঙ্গে জড়িতদের দ্রুত বিচারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে তার মা-বাবা।

গতকাল ময়মনসিংহ প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে শাকিলের মা উম্মে কুলসুম জাহানারা বেগমজানান, আসামিদের অপ্রাপ্ত বয়সের অযুহাতে ছয় বছর ধরে মামলাটি ঝুলে আছে। মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৬ সালের ২৮ জানুয়ারি নগরীর শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম কলেজের এইসএসসি পরীক্ষার্থী মোহতাছিম বিল্লাহ শাকিলকে একটি ইভটিজিং এর ঘটনাকে কেন্দ্র করে কলেজের সামনেই বেশ কয়েকজন যুবক ধাঁড়ালো অস্ত্র দিয়ে উপুর্যপুরি আঘাত করে । পরে তাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক শাকিলকে মৃত ঘোষণা করে। পরে শাকিলের বাবা এমদাদুল হক বাদী হয়ে ২৯ জানুয়ারি কোতয়ালী থানায় মামলা করে। মামলার পর ৭২ ঘণ্টার মধ্যে আসামিদের তিনজনকে জেলার গফরগাঁও ধানার পাগলা থেকে আটক করে। আসামিরা আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। পরে সাত মাস পর পুলিশ ৮ জনকে আসামি করে চার্জশিট দাখিল করলে জেলা জজ আদালত আসামিদের জেল হাজতে পাঠায়।

পরবর্তীতে আসামির পরিবার আটককৃত আসামিরা অপ্রাপ্ত বয়স্ক দাবি করে উচ্চ আদালতে আপিল করে আসামিদের জামিন নিয়ে আসে। মামলার অন্য আসামিরাও আদালতে হাজির হয়ে জামিনে আসে। পরবর্তীতে আসামিদের বয়স ১৮ বছরের উপরে বলে জেলা জজ আদালতের আদেশ বহাল থাকে।

এ অবস্থায় ছয় বছর পার গয়ে গেলেও এ মামলার কোন সুরাহা হচ্ছে না। সংবাদ সম্মেলনে শাকিলের মা-বাবা তাদের এক মাত্র সন্তানের হত্যাকা-ে বিচার দেখে যেতে চান। এ ব্যাপারে তারা প্রধানমন্ত্রী ও বিচার বিভাগের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন। সংবাদ সম্মেলনে শাকিলের বাবা, মামলার বাদী এমদাদুল হকসহ অন্য স্বজনরা উপস্থিত ছিলেন ।