সিলেটে স্ট্যান্ড দখল নিয়ে সংঘর্ষ, আহত ১০

সিলেট নগরীতে লেগুনা মালিক ও চালক-শ্রমিকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। স্ট্যান্ড দখলকে কেন্দ্র করে গতকাল দুপুর দেড়টার দিকে নগরীর ধোপাদিঘিরপাড়ের ওসমানী শিশু উদ্যানের সামনে এ সংঘর্ষ হয়। এতে উভয়পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় দুজনকে আটক করা হয়েছে। রাত ৯টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কোন পক্ষই মামলা করেনি।

পুলিশ জানায়, ওসমানী শিশু উদ্যানের সামনের স্ট্যান্ড দখল নিয়ে লেগুনাচালক ও শ্রমিকদের সঙ্গে মালিকদের একটি পক্ষের দীর্ঘদিনের বিরোধ চলে আসছে। এরই জের ধরে গতকাল দুপুর থেকে মইন উদ্দিন ও আবু সরকারের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয় এবং দুপুর দেড়টার দিকে লাঠিসোঁটা নিয়ে দুপক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

আধঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষকালে দুপক্ষের লোকজন পরষ্পরের দিকে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করেন। এতে উভয়পক্ষের অন্তত ১০ আহত হন। এ সময় দুটি গাড়ির গ্লাসও ভাঙচুর করা হয়। খবর পেয়ে সোবহানীঘাট ফাঁড়ির একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি শান্ত করে। পরে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-কমিশনার (উত্তর) আজবাহার আলী শেখ পিপিএমের নেতৃত্বে অতিরিক্ত পুলিশ সেখানে যায়। আজবাহার আলী শেখ বলেন, কী নিয়ে সংঘর্ষ এখনও স্পষ্ট নয়। তবে শুনা যাচ্ছে- স্ট্যান্ড দখল নিয়ে দু’পক্ষের দীর্ঘদিনের বিরোধ রয়েছে।

তিনি জানান, সংঘর্ষে কয়েকজন আহত হয়েছেন এবং দু’জনকে আটক করা হয়েছে। সংঘর্ষের পরে ওসমানী শিশু উদ্যানের সামনের লেগুনা স্ট্যান্ডটি উচ্ছেদ করেছে পুলিশ। দু’পক্ষের মধ্যে সমঝোতার চেষ্টা চলছে। তবে কোন পক্ষ লিখিত অভিযোগ দিলে পরবর্তীতে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

শুক্রবার, ১৪ জানুয়ারী ২০২২ , ৩০ পৌষ ১৪২৮ ১০ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

সিলেটে স্ট্যান্ড দখল নিয়ে সংঘর্ষ, আহত ১০

প্রতিনিধি, সিলেট

সিলেট নগরীতে লেগুনা মালিক ও চালক-শ্রমিকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। স্ট্যান্ড দখলকে কেন্দ্র করে গতকাল দুপুর দেড়টার দিকে নগরীর ধোপাদিঘিরপাড়ের ওসমানী শিশু উদ্যানের সামনে এ সংঘর্ষ হয়। এতে উভয়পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় দুজনকে আটক করা হয়েছে। রাত ৯টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কোন পক্ষই মামলা করেনি।

পুলিশ জানায়, ওসমানী শিশু উদ্যানের সামনের স্ট্যান্ড দখল নিয়ে লেগুনাচালক ও শ্রমিকদের সঙ্গে মালিকদের একটি পক্ষের দীর্ঘদিনের বিরোধ চলে আসছে। এরই জের ধরে গতকাল দুপুর থেকে মইন উদ্দিন ও আবু সরকারের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয় এবং দুপুর দেড়টার দিকে লাঠিসোঁটা নিয়ে দুপক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

আধঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষকালে দুপক্ষের লোকজন পরষ্পরের দিকে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করেন। এতে উভয়পক্ষের অন্তত ১০ আহত হন। এ সময় দুটি গাড়ির গ্লাসও ভাঙচুর করা হয়। খবর পেয়ে সোবহানীঘাট ফাঁড়ির একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি শান্ত করে। পরে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-কমিশনার (উত্তর) আজবাহার আলী শেখ পিপিএমের নেতৃত্বে অতিরিক্ত পুলিশ সেখানে যায়। আজবাহার আলী শেখ বলেন, কী নিয়ে সংঘর্ষ এখনও স্পষ্ট নয়। তবে শুনা যাচ্ছে- স্ট্যান্ড দখল নিয়ে দু’পক্ষের দীর্ঘদিনের বিরোধ রয়েছে।

তিনি জানান, সংঘর্ষে কয়েকজন আহত হয়েছেন এবং দু’জনকে আটক করা হয়েছে। সংঘর্ষের পরে ওসমানী শিশু উদ্যানের সামনের লেগুনা স্ট্যান্ডটি উচ্ছেদ করেছে পুলিশ। দু’পক্ষের মধ্যে সমঝোতার চেষ্টা চলছে। তবে কোন পক্ষ লিখিত অভিযোগ দিলে পরবর্তীতে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।