ফরিদপুরে দেড় কোটি টাকার ঋণ পেলেন ৬৩ পল্লী উদ্যোক্তা

ফরিদপুরে ৬৩ জন পল্লী উদ্যোক্তার হাতে তুলে দেয়া হল ১ কোটি ৪৭ লাখ টাকার ঋণ। গত বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে এ ঋণ বিতরণ করা হয়। জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এ ঋণ বিতরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

‘এসেছে পল্লীর শুভদিন, বিআরডিবি দিচ্ছে এসএমই ঋণ’-এ প্রতিপাদ্য নিয়ে বিআরডিবি (বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন বোর্ড) এর উদ্যোগে এ ঋণ বিতরণ করা হয়। এই ঋণ নিয়ে উদ্যোক্তরা মৎস্য চাষ, গাভী পালন, মুদি দোকান, স্টিলের ব্যবসা, ইলেকট্রিক ব্যবসা, কাপড়ের দোকান, ট্রাক চালনা, ঠিকাদারী, ডেকরেটর ব্যবসা, সেনিটারি ব্যবসাসহ বিভিন্ন ব্যবসা করে নিজে স্বাবলম্বী হবেন।

উদ্যোক্তাদের ব্যবসার ধরণ অনুযায়ী দুই থেকে তিন লাখ টাকা করে ঋণ দেয়া হয়। এই ঋণ ২৪ মাস মেয়াদী এবং সুদের হার চার ভাগ।

ঋণ বিতরণ অনুষ্ঠানে নিজেদের অভিজ্ঞতা তুলে ধরে বক্তব্য দেন ফরিদপুর সদরের ফুশরা এলাকার বাসিন্দা গণি মোল্লা ও তুলাগ্রাম এলাকার সুফিয়া বেগম। ওই অনুষ্ঠানে গনি মোল্লাকে তিন লাখ ও সুফিয়া বেগমকে দুই লাখ টাকা ঋণ দেয়া হয়।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিআরডিবি ফরিদপুরেরর উপ-পরিচালক দীনেশ চন্দ্র মন্ডল। প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন জেলা প্রশাসক অতুল সরকার।

জেলা প্রশাসক বলেন, এ ঋণ নিয়ে আপনাদের জীবনমানের সামান্য উন্নতি হলেও আপনারা কাজ ছেড়ে দেবেন না। আরও কাজ করে নিজের আরো উন্নতি ঘটাবেন। প্রত্যেকে যাতে উদ্যোক্তা থেকে শিল্পপতি হয়ে উঠতে পারেন সে চেষ্টা করবেন।

তিনি বলেন, যে ঋণ দেয়া হয়েছে তার সর্বোচ্চ ব্যবহার করতে হবে। ঋণের টাকা নয়ছয় করা যাবে না। তাহলে আগামীতে বিপদের মুখে পড়তে হবে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন ফরিদপুর সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক এবং সদরের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাসুদুল আলম।

শনিবার, ১৫ জানুয়ারী ২০২২ , ০১ মাঘ ১৪২৮ ১১ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

ফরিদপুরে দেড় কোটি টাকার ঋণ পেলেন ৬৩ পল্লী উদ্যোক্তা

ফরিদপুরে ৬৩ জন পল্লী উদ্যোক্তার হাতে তুলে দেয়া হল ১ কোটি ৪৭ লাখ টাকার ঋণ। গত বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে এ ঋণ বিতরণ করা হয়। জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এ ঋণ বিতরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

‘এসেছে পল্লীর শুভদিন, বিআরডিবি দিচ্ছে এসএমই ঋণ’-এ প্রতিপাদ্য নিয়ে বিআরডিবি (বাংলাদেশ পল্লী উন্নয়ন বোর্ড) এর উদ্যোগে এ ঋণ বিতরণ করা হয়। এই ঋণ নিয়ে উদ্যোক্তরা মৎস্য চাষ, গাভী পালন, মুদি দোকান, স্টিলের ব্যবসা, ইলেকট্রিক ব্যবসা, কাপড়ের দোকান, ট্রাক চালনা, ঠিকাদারী, ডেকরেটর ব্যবসা, সেনিটারি ব্যবসাসহ বিভিন্ন ব্যবসা করে নিজে স্বাবলম্বী হবেন।

উদ্যোক্তাদের ব্যবসার ধরণ অনুযায়ী দুই থেকে তিন লাখ টাকা করে ঋণ দেয়া হয়। এই ঋণ ২৪ মাস মেয়াদী এবং সুদের হার চার ভাগ।

ঋণ বিতরণ অনুষ্ঠানে নিজেদের অভিজ্ঞতা তুলে ধরে বক্তব্য দেন ফরিদপুর সদরের ফুশরা এলাকার বাসিন্দা গণি মোল্লা ও তুলাগ্রাম এলাকার সুফিয়া বেগম। ওই অনুষ্ঠানে গনি মোল্লাকে তিন লাখ ও সুফিয়া বেগমকে দুই লাখ টাকা ঋণ দেয়া হয়।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বিআরডিবি ফরিদপুরেরর উপ-পরিচালক দীনেশ চন্দ্র মন্ডল। প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন জেলা প্রশাসক অতুল সরকার।

জেলা প্রশাসক বলেন, এ ঋণ নিয়ে আপনাদের জীবনমানের সামান্য উন্নতি হলেও আপনারা কাজ ছেড়ে দেবেন না। আরও কাজ করে নিজের আরো উন্নতি ঘটাবেন। প্রত্যেকে যাতে উদ্যোক্তা থেকে শিল্পপতি হয়ে উঠতে পারেন সে চেষ্টা করবেন।

তিনি বলেন, যে ঋণ দেয়া হয়েছে তার সর্বোচ্চ ব্যবহার করতে হবে। ঋণের টাকা নয়ছয় করা যাবে না। তাহলে আগামীতে বিপদের মুখে পড়তে হবে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন ফরিদপুর সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক এবং সদরের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাসুদুল আলম।